Wednesday, June 19, 2024
বাড়িবিশ্ব সংবাদকানাডায় বরফ ঝড়ের পর বিদ্যুৎহীন লাখো মানুষ, দুই মৃত্যু

কানাডায় বরফ ঝড়ের পর বিদ্যুৎহীন লাখো মানুষ, দুই মৃত্যু

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক,৭ এপ্রিল: কানাডার জনবহুল দুই প্রদেশে বরফ ঝড় আঘাত হানার পর ধেয়ে আসা ঠাণ্ডা বৃষ্টি ও তুমুল বাতাস অসংখ্য গাছ উপড়ে ফেলার পাশাপাশি অনেক এলাকার বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে।স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টার দিকেও ক্যেবেকের প্রায় ১০ লাখ মানুষ এবং অন্টারিওর এক লাখ ১০ হাজারের মতো মানুষ বিদ্যুৎহীন অবস্থায় আছে বলে জানিয়েছে পাওয়ারআউটেজ ডটকম।আগের তুলনায় পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে; দিনের শুরুতেও ওই দুই প্রদেশের বিদ্যুৎহীন মানুষের সংখ্যা অন্তত ১৩ লাখ ছিল বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।এই দুই প্রদেশেই কানাডার পৌনে চার কোটি বাসিন্দার অর্ধেক থাকে।প্রদেশদুটিতে বিদ্যুৎ সরবরাহে নিয়োজিত সংস্থাগুলো সংযোগ পুনঃস্থাপনে কাজ করছে। এ কাজ শেষ হতে কয়েকদিন লাগবে বলেই মনে হচ্ছে। যার মানে দাঁড়াচ্ছে, ইস্টার উৎসবের সময়ও অনেক কানাডীয়কে অন্ধকারেই থাকতে হচ্ছে।ক্যেবেকে গাছ পড়ে একজনের মৃত্যুর খবর দিয়ে প্রদেশটির প্রধানমন্ত্রী ফ্রাঙ্কো লেগল লোকজনকে ছেড়া তার ও দুর্বল গাছ দেখে চলার পরামর্শ দিয়েছেন।গাছের ডাল পড়ে অন্টারিওর পূর্বাঞ্চলে আরেকজনের মৃত্যু হয়েছে বলে সম্প্রচারমাধ্যম সিটিভি নিউজের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।মন্ট্রিয়লের একটি আসন থেকে নির্বাচিত হয়ে পার্লামেন্টে যাওয়া কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো দুর্যোগে বিপর্যস্ত প্রদেশদুটিতে ‘প্রয়োজন পড়লে’ কেন্দ্রীয় সাহায্য পাঠানোর প্রস্তাব দিয়েছেন।“খুব কঠিন সময়, অনেকের বিদ্যুৎ নেই, গাছ ভেঙে পড়ে ভবন, গাড়ি আরও অনেককিছুর ক্ষতি করছে, অবশ্যই উদ্বেগ কাজ করছে,” সাংবাদিকদের বলেছেন তিনি।ক্যেবেকের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোর মধ্যে মন্ট্রিয়লও আছে।হাইড্রো-ক্যেবেক শুক্রবার মধ্যরাতের মধ্যে বিদ্যুৎহীন অবস্থায় থাকা প্রায় ৭০ শতাংশের বিদ্যুৎ ফিরিয়ে দিতে পারবেন বলে আশা করছেন সংস্থাটির এক নির্বাহী।“দুর্ভাগ্যজনকভাবে, এটা একটা দীর্ঘ সপ্তাহান্তের শুরু, কিন্তু কিছু এলাকার পরিস্থিতি এতটাই জটিল যে দ্রুত বিদ্যুৎ সংযোগ ফেরানো সম্ভব হবে না,” টেলিভিশনে সম্প্রচারিত ব্রিফিংয়ে বলেছেন হাইড্রো-ক্যেবেকের অপারেশন অ্যান্ড মেইনটেনেন্সের ভাইস প্রেসিডেন্ট রেজিস টেলিয়ার।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য