Saturday, June 15, 2024
বাড়িখেলা৪৩ বছর ধরে রিয়ালের সব ফাইনাল মাঠে বসে দেখছেন তিনি

৪৩ বছর ধরে রিয়ালের সব ফাইনাল মাঠে বসে দেখছেন তিনি

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ৩০ মে; ভেবে গর্ব হচ্ছে যে, ওয়েম্বলির ফাইনাল হতে চলেছে আমার টানা দশম’—কথাগুলো হুয়ান পেদ্রো আমব্রোনার।৭২ বছর বয়সী এই স্প্যানিশ ভদ্রলোককে বাংলাদেশের ফুটবলপ্রেমীদের চেনার কথা নয়। স্পেনেরই বা কজন মানুষ তাঁকে চেনেন! রিয়াল মাদ্রিদের এই একনিষ্ঠ সমর্থককে সবার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার কাজটি করেছে দেশটির ক্রীড়া দৈনিক এএস।লন্ডনের ঐতিহাসিক ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে আগামী শনিবার রাতে চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে মুখোমুখি হবে রিয়াল মাদ্রিদ ও বরুসিয়া ডর্টমুন্ড। ইউরোপীয় ক্লাব ফুটবলের শীর্ষ এই প্রতিযোগিতার অবিসংবাদিত রাজা রিয়াল। দলটি এবার ১৫তম বারের মতো ট্রফি উঁচিয়ে ধরার অপেক্ষায়। ১৯৮১ সাল থেকে রিয়ালের সব চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল মাঠে বসে দেখা আমব্রোনা ওয়েম্বলিতে এবারের ফাইনালেও থাকছেন।

১৯৮১ সালের ফাইনাল হয়েছিল প্যারিসে, পিএসজি ঘরের মাঠ পার্ক দে প্রিন্সেসে। তখনকার ২৯ বছর বয়সী যুবক আমব্রোনার সেটিই ছিল মাঠে বসে প্রথম কোনো চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল দেখা। কিন্তু প্রথম অভিজ্ঞতা সুখকর হয়নি। শিরোপার লড়াইয়ে লিভারপুলের কাছে ১–০ গোলে হেরে যায় রিয়াল। তবে এরপর রিয়াল যে আটবার ফাইনাল খেলেছে, প্রতিবারই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। শনিবার ওয়েম্বলির ফাইনালটা হতে যাচ্ছে রিয়ালের ৩২২৪ নম্বর সদস্য আমব্রোনার টানা দশম।লস ব্লাঙ্কোদের এই পাঁড় ভক্ত ৪৩ বছর ধরে কীভাবে ফাইনালের টিকিটের ব্যবস্থা করছেন, ইউরোপের নানা শহর ঘুরে কেমন অভিজ্ঞতা হয়েছে—সবকিছু নিয়েই এএসের সঙ্গে খোলামেলা আলোচনা করেছেন।

রেকর্ড…

রিয়াল মাদ্রিদকে অনুসরণ করে আমার দশম ফাইনাল। সামনে ওরা আরও ফাইনালে খেলবে। তবে এটিকে (১০ ফাইনাল মাঠে বসে দেখা) রেকর্ড হিসাবে বিবেচনা করতে পারেন। এ ব্যাপারে কিছু প্রবীণ কোচ, সাংবাদিক আর অনুরাগীরাই শুধু ভালো বলতে পারবেন। ১৯৮১ সালে প্যারিসের আগে ১৯৬৬ সালেও (ব্রাসেলসে) ফাইনাল খেলেছে রিয়াল। আমার বয়সী যারা ওই ফাইনাল দেখেছে, তখন তারা প্রায় শিশু ছিল।  

ফাইনালের টিকিটের ব্যবস্থা যেভাবে করেন

আগেকার দিনে কাজটা খুব সহজ ছিল। দলের সঙ্গে চলাফেরা করার রেওয়াজ ছিল না। যেমন—১৯৮১ সালে ফাইনালের টিকিট পেতে হলে ক্লাবকে বললেই ব্যবস্থা করে দিত। সে সময় ফাইনাল হতো বুধবার রাতে। আমি কয়েকজন বন্ধুকে নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে প্যারিসে পৌঁছেছিলাম। আমাদের সারা রাত ভ্রমণ করতে হয়েছে। কষ্ট বলতে এটুকুই। এরপর আমরা সহজেই হোটেল পেয়ে যাই।  

টিকিট পাওয়া যখন থেকে কঠিন হয়ে দাঁড়াল

করোনার কারণে ২০২০ সালের ফাইনাল হয় রুদ্ধদ্বার স্টেডিয়ামে
সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য