Saturday, June 15, 2024
বাড়িরাজ্যসামনে জাতিকে রেখে পেছনে দলকে রাখতে হবে : প্রদ্যোত

সামনে জাতিকে রেখে পেছনে দলকে রাখতে হবে : প্রদ্যোত

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৬ জুন : যেসব তিপ্রাসা কংগ্রেস ও সিপিআইএমকে ভোট দিয়েছে তাদের বোঝাতে হবে জনজাতিরা যখন সাংবিধানিক অধিকার ফিরে পাবে তখন সেটা তারাও উপভোগ করতে পারবে। তাই তারা এই দাবি আদায় করতে আন্দোলনের বাইরে থাকলে চলবে না। আগামী দিন হয়তো কংগ্রেস সিপিএমের দল সরকারে থাকতে পারে, হয়তো একদিন সর্বভারতীয় কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়ার গান্ধী, প্রিয়াঙ্কা গান্ধী এবং সাংসদ রাহুল গান্ধীর সাথেও কথা বলতে হবে।

যার কারনে তাদের বিরুদ্ধে একটি শব্দও উচ্চারণ করা হয় না। তাই দলকে পিছনে রেখে জাতিকে সামনে রাখার জন্য তিপ্রাসাদের কাছে আহ্বান জানান তিপ্রা মথার সুপ্রিমো প্রদ্যোত কিশোর দেববর্মণ। বৃহস্পতিবার আগরতলা টাউন হল টি ডব্লিউ এফ -এর তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন তিপ্রা মথার প্রদ্যোত কিশোর দেববর্মণ। তিনি আরো বলেন, তিপরা মথা দলে হিন্দু, মুসলিম, খ্রিস্টান, বৌদ্ধ যে কোন ধর্ম থাকতে পারবে। কিন্তু আন্দোলনের জন্য তিপ্রাসাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

কারণ দলটা শুধু জাতির জন্য বানানো হয়েছে। কিন্তু কোন বাঙালিকে আক্রমণ করা যাবে না, কারণ বাঙালির ঘর জ্বালিয়ে তিপ্রাসারা ঘর বানাতে পারবে না। তিপ্রাসা ঘর বানাতে হলে দিল্লি গিয়ে বলতে হবে আমাদের পয়সা দিতে হবে। একইভাবে চাকুরির জন্য দিল্লি গিয়ে বলতে হবে আমাদের চাকরির প্রয়োজন ফন্ড দিতে হবে। স্বাধীনতার এত বছর হয়ে গেলেও ত্রিপুরায় তিপ্রাসার কাঁধে ভর বহু মানুষ রাজনীতি করেছে। কিন্তু পেছনে অন্য কেউ চাবি লাগিয়েছে। তিনি আরো বলেন, আগামী দিন ছোট ছোট বিষয়গুলো দিল্লিতে দাবী করা হবে। এতদিন মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন মানিক সাহা, মানিক সরকার, নৃপেন চক্রবর্তী সহ অনেকে। কিন্তু কবে তিপ্রাসারা হবে তার নিয়ে প্রশ্ন তুলে কার্যকর্তাদের কাছে প্রদ্যুৎ। আরো বলেন, নিতিশ কুমার ও চন্দ্রবাবু নাইডু যদি দিল্লি গিয়ে প্যাকেজ চেয়ে সুযোগ নিতে পারে তাহলে কেন ত্রিপুরার তিপ্রাসারা কেন পাবে না। এই অষ্টাদশ লোকসভা নির্বাচনে উত্তর-পূর্ব এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি সমর্থন করেছে তিপ্রাসা লোক। টি ডব্লিউ এফ আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রদ্যোত কিশোর দেববর্মণ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন দলের সভাপতি বিজয় রাঙ্খল, মন্ত্রী অনিমেষ দেববর্মা সহ অন্যান্য নেতৃত্ব।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য