Monday, December 5, 2022
বাড়িরাজ্যসিত্রাং -এর দাপটে ব্যাপক ক্ষতি রাজ্যে

সিত্রাং -এর দাপটে ব্যাপক ক্ষতি রাজ্যে

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৫ অক্টোবর : সোমবার রাতে রাজ্যজুড়ে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং। এই ঘূর্ণিঝড়ে বিপর্যস্ত সাধারন জনজীবন। কোথাও উপড়ে পড়েছে গাছ। আবার কোথাও ভেঙ্গে গেছে পুজোর মণ্ডপ সহ বাড়ি ঘর। মঙ্গলবার ভোরের আলো ফুটতেই স্পষ্ট হয়ে ক্ষয়ক্ষতির চিত্র। পরবর্তী সময় প্রশাসনিক সূত্রে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জানা যায়, উত্তর ত্রিপুরা জেলার কাঞ্চনপুর মহকুমায় ঘূর্ণিঝড়ে দশটি ঘর আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সাখান সেরহমুন ভিলেজ কমিটি এলাকায় ২৬ টি আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এছাড়াও ২২ টি বিদ্যুতিক খুঁটি ভেঙে পড়ে।

আলকোনেট বাগানের ৩০ টি গাছ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। অপরদিকে গোমতি জেলার করবুক মহকুমা পোয়াং বাড়ি ভিলেজ কমিটির অন্তর্গত সাগরাম পাড়ার করবুক উপ-বিভাগের অধীনে এলাকায় দশটি ঘর আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। করবুক থেকে সাতচন্দ্র পর্যন্ত রাস্তার মধ্যে গাছ উপড়ে পড়ে। করবুক থেকে জলায় যাওয়ার রাস্তায় দুটি গাছ ভেঙে পড়েছে। অমরপুর মহকুমা ৮১ টি বাড়ি আংশিক ক্ষতি হয়। পাশাপাশি একটি গাছ পড়ে অমরপুর কলেজ এলাকার রাস্তা আটকে দেয়। পেরাটিয়া একটি ১১ কেভি লাইনে একটি বড় গাছ পড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে এলাকায়। উদয়পুরে আংশিক ক্ষতি হয় ২২ টি বাড়ি ঘর। জম্পুইজলায় বাড়িঘর ক্ষতি হয় ১৬ টি, আংশিক ক্ষতি হয় ৬৮ টি ঘর। সর্বমোট ২১ টি গাছ রাস্তার উপর ভেঙে পড়ে।  দীর্ঘক্ষণ আটকে থাকে যান চলাচল। বিশালগড়ে আংশিক ভাবে ক্ষতি হয় ৮৬১ টি ঘর, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয় ৩২ টি ঘর এবং সম্পূর্ণভাবে সাতটি ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সোনামুড়া আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় ৬৮ টি বাড়ি। ২১ টি গাছ রাস্তায় পড়ে। সোমবার রাতে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে বহু এলাকায় । মঙ্গলবার শহরতলীর বেশ কিছু এলাকায় এখনো বিদ্যুৎ পরিষেবা স্বাভাবিক হয়নি। সচল করতে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে নিগম। মঙ্গলবার সকাল থেকে প্রশাসনিক কর্মীরা উদ্ধারের কাজে হাত লাগায়।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য