Sunday, June 23, 2024
বাড়িখেলা‘রেয়াল মাদ্রিদ পরিষ্কার ফেভারিট, তবে আমরা পরোয়া করি না’

‘রেয়াল মাদ্রিদ পরিষ্কার ফেভারিট, তবে আমরা পরোয়া করি না’

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ১ জুন: চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে রেয়াল মাদ্রিদকে ফেভারিট মানতে আপত্তি নেই এদিন তেরজিচের। তবে প্রতিপক্ষের কাছে নতি স্বীকার করতেও প্রস্তুত নয় তার দল। বরং ম্যাচের আগের তকমা বা কাগজ-কলমের হিসাবকে পাত্তা দিচ্ছেন না বরুশিয়া ডর্টমুন্ড কোচ। তার সাফ কথা, স্রেফ খেলার জন্য খেলা নয়, বরং জয়ের তীব্র তাড়নাতেই মাঠে নামবে তার দল।চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ১৪ বারের বিজয়ী রেয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে শনিবার লন্ডনে ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড নামবে দ্বিতীয় শিরোপার আশায়।

নামের ধারে-ভারে, শক্তি-সামর্থ্যে, অভিজ্ঞতায় এবং যে কোনো বাস্তবতায় এই ম্যাচে এগিয়ে থেকে মাঠে নামছে রেয়াল। তবে লড়াইটা যখন এক ম্যাচের, তখন নিজেদের সম্ভাবনাও ভালোভাবেই দেখছেন বরুশিয়া ডর্টমুন্ড কোচ। কোয়ার্টার-ফাইনাল ও সেমি-ফাইনালেও যে তারা হিসাব পাল্টে দিয়েছেন, সেটি মনে করিয়ে দিলেন। তেরজিচ।“সর্বোচ্চ পর্যায়ে লড়াই করে আমরা প্রস্তুত। রেয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে ১০ বার খেললে কাজটা কঠিন। ৩৪ বার খেললে কাজটা অসম্ভব। তবে এটাকে যদি এক ম্যাচে ভাগ করে আনেন, তাহলে যে কোনো কিছুই হতে পারে।”“এটা পরিষ্কার যে তারা ফেভারিটের ভূমিকায় থাকবে। তবে আমরা পরোয়া করি না। আতলেতিকো মাদ্রিদ বা পিএসজির বিপক্ষেও আমরা ফেভারিট ছিলাম না।”

বরুশিয়া ডর্টমুন্ড এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে খেলবে, কিছুদিন আগেও তা ছিল অভাবনীয়। এবার বুন্ডেসলিগায় তারা ছন্দে ছিল না একদমই। লিগ শেষ করেছে পয়েন্ট তালিকার পাঁচে থেকে। তবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তারা ছিল ভিন্ন রূপে। গ্রুপে সেরা হওয়ার পর নক-আউট পর্বেও একের পর এক বাধা পেরিয়ে এগিয়ে গেছে। শেষ কয়েকটি ম্যাচে তো দারুণ গোছানো ও কার্যকর ফুটবল তারা উপহার দিয়েছে।ফাইনাল খেলতে পারাই তাদের জন্য বেশ বড় সাফল্য। তবে এতেই তৃপ্ত নন তেরজিচ।“ফাইনাল কেউ স্রেফ খেলার জন্য খেলে না, ফাইনাল জিততে হয় এবং সেটিই আমাদের পরিষ্কার লক্ষ্য। আমরা এখানে রেয়ালের ট্রফি জয় তেখতে আসিনি। যথেষ্ট সাহসী হতে পারলে আমাদেরও সুযোগ আছে।”

“এই পর্যন্ত আসতে পেরে আমরা খুশি। তবে ট্রফি পেতে হলে ওয়েম্বলিতে রেয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে জিততে হবে আমাদের। এটিই আমাদের চাওয়া।”ফাইনালে রেয়ালকে হারাতে তেরজিচের ভরসা দলের রক্ষণভাগ। আঁটসাঁট ও গোছানো রক্ষণভাগ রেয়ালের আক্রমণ রুখতে পারবে বলেই বিশ্বাস তার।“এই টুর্নামেন্টে এখনও পর্যন্ত আমরাই সবচেয়ে বেশি ম্যাচে গোল হজম করিনি। গোলবার থেকে প্রকিপক্ষকে যতটা সম্ভব দূরে রাখতে হবে। সেপ্টেম্বরে যখন আমরা গোল হজম করেছিলাম, তখনও আমরা এই অবস্থায় ছিলাম না। তবে এখন আমরা পুরো ভিন্ন এক দল এবং দেখিয়েছি যে, ট্রফির জন্য লড়তে আমরা প্রস্তুত।”

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য