Sunday, April 14, 2024
বাড়িখেলাপ্রীতি ক্রিকেটে যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া দপ্তরকে ৩ উইকেটে হারিয়ে দিল ত্রিপুরা...

প্রীতি ক্রিকেটে যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া দপ্তরকে ৩ উইকেটে হারিয়ে দিল ত্রিপুরা স্পোর্টস জার্নালিস্ট ক্লাব।

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ১৬ মার্চ : প্রীতি ক্রিকেটে যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া দপ্তরকে ৩ উইকেটে হারিয়ে দিল ত্রিপুরা স্পোর্টস জার্নালিস্ট ক্লাব। ম্যাচে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত রাজ্যের ক্রীড়া ও যুব বিষয়ক দপ্তরের মন্ত্রী টিংকু রায় বললেন তরুণ প্রজন্মের ছেলে মেয়েদের খেলাধুলার প্রতি আরো বেশি পরিমাণে আকৃষ্ট করাই রাজ্য সরকারের মূল লক্ষ্য।

যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া দপ্তর এবং ত্রিপুরা স্পোর্টস জার্নালিস্ট ক্লাবের মধ্যে ফিট ইন্ডিয়া কার্যক্রমের অঙ্গ হিসাবে এক প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। শনিবার রাজধানীর ভোলাগিরি মাঠে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া দপ্তরের মন্ত্রী টিঙ্কু রায়। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া দপ্তরের সচিব ডক্টর প্রদীপ কুমার চক্রবর্তী, ক্রীড়া দপ্তরের অধিকর্তা সত্যব্রত নাথ, পাইমুং মগ, স্কুল স্পোর্টস বোর্ডের জয়েন্ট সেক্রেটারি অপু রায়, ত্রিপুরা স্পোর্টস জার্নালিস্ট ক্লাবের সভাপতি সরযূ চক্রবর্তী, সম্পাদক সুপ্রভাত চক্রবর্তী, সহ অন্যান্য সদস্যরা।

খেলার শুরুতেই খেলোয়াড়দের গোলাপ দিয়ে বরন করে নেওয়া হয়। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া দপ্তরের ক্রিকেটাররা নির্ধারিত ২০ ওভারে ১২১ রান সংগ্রহ করে। দপ্তরের পক্ষে ব্যাট হাতে বাপ্পা দাস ও সঞ্জীত নোয়াতিয়া উল্লেখযোগ্য ৪৪ রান করেন। জয়ের জন্য টি এস জে সি’র সামনে লক্ষ্যমাত্রা গিয়ে দাঁড়ায় ১২২ রান। এই লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে ত্রিপুরা স্পোর্টস জার্নালিস্ট ক্লাব ১৮.৩ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে জয়ের রান তুলে নেয়। তিন উইকেটে এই ম্যাচ জিতে নিল ক্রীড়া সাংবাদিকরা। ম্যাচে টি এস জেসি দলকে নেতৃত্ব দেন বিপ্লব চন্দ। এই ম্যাচে ভাতৃ প্রতীম সংগঠন জার্নালিস্ট রিক্রেশন ক্লাবের সদস্যরা ত্রিপুরা স্পোর্টস জার্নালিস্ট ক্লাবের প্রতিনিধি হিসেবে খেলেন।


প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ উপভোগ করে খুশি মন্ত্রী টিংকু রায়। তিনি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন রাজ্য সরকার খেলাধুলার মধ্য দিয়ে রাজ্যের ছেলে মেয়েদের জাতীয় ও আন্তর্জাতিক স্তরে নিজেদের তুলে ধরার জন্য একের পর এক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এর সুফল এই রাজ্যের ছেলে মেয়েরা পাচ্ছে। ইতিমধ্যেই ওলিম্পিকে ত্রিপুরার খেলোয়াড়রা বেশ সুনাম অর্জন করেছে। মোট ৭৮ জনকে রাজ্য সরকারের তরফে পুরষ্কার প্রদান করা হয়েছে। খেলা ধুলার প্রতি তারা যাতে আরো বেশি আকৃষ্ট হতে পারেন এই লক্ষ্যেই সরকারের এই উদ্যোগ।
প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী টিঙ্কু রায়, সাংবাদিক প্রণব সরকার ও সাংবাদিক সেবক ভট্টাচার্য সহ অন্যান্য অতিথিরা পুরষ্কার তুলে দিলেন। বিজয়ী দলকে মন্ত্রী টিংকু রায় ১০ হাজার টাকা সঙ্গে ট্রফি তুলে দেন। সেই সঙ্গে রানার্স টীমকেও পাঁচ হাজার নগদ টাকা ও ট্রফি তুলে দিলেন অতিথিরা। প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচে সেরা ব্যাটসম্যান হলেন ক্রীড়া দপ্তরের বাপ্পা দাস ও সঞ্জিত নোয়াতিয়া। দুজনকেই ৫ হাজার টাকার আর্থিক সন্মান দিলেন ক্রীড়ামন্ত্রী। সব থেকে বেশি ওভার বাউন্ডারি মারার জন্য ও বাপ্পাকে দেয়া হলো ৫ হাজার টাকা। ম্যাচের ম্যান অব দ্য ম্যাচ হলেন ত্রিপুরা স্পোর্টস জার্নালিস্ট ক্লাবের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা অভিষেক দে ও বিশ্বজিৎ দেবনাথ। দুজনেই দারুন পারফরম্যান্স করেন গোটা ম্যাচে। এককথায় পুরো টি এস জে সি দল প্রীতি এই ম্যাচে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করলো।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য