Monday, February 6, 2023
বাড়িখেলাআগুনে পরীক্ষার আগে ‘শান্ত মেসি’

আগুনে পরীক্ষার আগে ‘শান্ত মেসি’

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক, আগরতলা, ৩০ নভেম্বর: একে একে লাউতারো মার্তিনেস, পাওলো দিবালা মাঠে ঢুকে অনুশীলন শুরু করলেন। লিওনেল মেসি নামলেন প্রস্তুতি শুরুর প্রায় মিনিট দশেক পর। অথচ, সামনেই বসতে হবে পোল্যান্ড পরীক্ষায়। একটু এদিক-ওদিক হলে আর রক্ষে নেই। বিশ্বকাপে আর মেসিকে দেখা যাবে কি, এই প্রশ্ন তুলে দিয়ে কাতার বিশ্বকাপ থেকে বেজে যাবে আর্জেন্টিনার বিদায়ঘণ্টাও।গত দুই ম্যাচে ঝলক দেখিয়েছেন মেসি, গোল পেয়েছেন। একটায় হেরেছেন, জিতেছেন অন্যটায়। তবে গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলেরও যে অবস্থা, সৌদি আরবের কাছে অবিশ্বাস্য সেই ভরাডুবির ঘানি এখনও টেনে চলেছে আর্জেন্টিনা। গ্রুপের শেষ ম্যাচ তাই দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের জন্য যেমন, শেষ রাগিনী শুনতে শুনতে কাতারে আসা মেসির জন্য তেমনি আগুনে পরীক্ষা।‘সি’ গ্রুপে সবচেয়ে সুবিধাজনক অবস্থায় আছে পোল্যান্ড। দুই ম্যাচে একটি করে জয় ও ড্রয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে পোলিশরা। আর্জেন্টিনা ও সৌদি আরবের পয়েন্ট ৩ করে। ১ পয়েন্ট নিয়ে তলানিতে মেক্সিকো। নানা সমীকরণের মারপ্যাঁচ থাকলেও গ্রুপ পর্বের বৈতরণী পেরিয়ে যাওয়ার সুযোগ আছে চার দলের সামনে। কেউই নিরাপদ নয় পুরোপুরি। ফুটবলপ্রেমীদের শঙ্কা বেশি মেসিকে নিয়ে। অনেকের চোখেই তাকে ছাড়া বিশ্বকাপ দ্যুতিহীন, মলিন।স্টেডিয়াম-৯৭৪-এ বুধবার পোল্যান্ডের মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা। এই ম্যাচের ভেতরে বইবে আরেক লড়াইয়ের চোরাস্রোতও। মুখোমুখি হবে মেসি ও রবের্ত লেভানদোভস্কি। এখন পর্যন্ত দুই গোল করে কিছুটা এগিয়ে মেসি। সৌদি আরবের বিপক্ষে ২-০ গোলে পেল্যান্ডের জেতা ম্যাচে ওই একবারই জালের দেখা পান লেভানদোভস্কি। এ দুজনের চওড়া কাঁধে দুই দলকে টেনে নেওয়ার মহাভার।

সম্ভবত মেসির ভার আরও বেশি। ৩৫ বছর বয়স, শেষ বিশ্বকাপ নিয়ে প্রশ্ন এখনও তার পিছু ছাড়েনি। ১৯৮৬ সালের পর আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপের মুকুট ফিরিয়ে দেওয়ার গুরুদায়িত্বও চেপে আছে সাতবারের বর্ষসেরার কাঁধে। আপাতত মেসির মূল কাজ আর্জেন্টিনার গ্রুপ পর্বের কঠিন সমীকরণ মিলিয়ে দেওয়া।পোল্যান্ডের যেখানে হার এড়ালেই তা মিলে যায়, সেখানে অন্য কারো উপর নির্ভর না করতে হলে জয়ের বিকল্প নেই লিওনেল স্কালোনির দলের সমানে। ড্র করলেও সুযোগ থাকবে, কিন্তু তৃষ্ণার্ত চাতকের মতো তাকিয়ে থাকতে হবে মেক্সিকো-সৌদি আরব ম্যাচের দিকে। ওই ম্যাচ ড্র হলে কিংবা মেক্সিকো ৩ গোলের বেশি ব্যবধানে না জিতলে মিলবে নকআউট পর্বের টিকেট।দ্বিতীয় রাউন্ডে চোখ রেখে কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন নম্বর মাঠে মেসি নিজেকে শাণিয়েও নিচ্ছেন সেভাবে। বরাবরের মতো ক্লোজড ডোর অনুশীলনের আগে গণমাধ্যমের জন্য বরাদ্দ মাত্র ১৫ মিনিট। মেসিকে তাই খুব বেশি খুটিয়ে খুটিয়ে দেখার ফুসরত মেলে না। এদিন আবার তিনি এলেনই মিনিট দশেক পর!এতটুকু সময়ের দেখাতে অবশ্য আঁচ মেলে আগুনে পরীক্ষার প্রস্তুতি, দলের প্রতি তার নিবেদন, নিষ্ঠা সবকিছু। পোল্যান্ডের বিপক্ষে নামার আগে মঙ্গলবারও একাগ্রতা নিয়ে অনুশীলন সারলেন মেসি। অধিকাংশ সময়ই সতীর্থদের সঙ্গে।এদিনের প্রস্তুতিতে যেন একটু নির্ভার মেসি। সৌদি আরবের বিপক্ষে হেরে যাওয়ার ধাক্কা সামলে মেক্সিকোর বিপক্ষে জিতেছে আর্জেন্টিনা। ছিটকে যাওয়ার শঙ্কার যে মেঘ প্রবল চোখ রাঙানি দিয়ে জেকে ধরেছিল, তা কিছুটা আলগা হয়েছে মেক্সিকো ম্যাচের জয়ে। অনুশীলনে তাই মাঝেমধ্যে অনাবিল হাসি মুখেও দেখা গেল বাঁ পায়ের এই ফুটবল জাদুকরকে।রানিং, স্ট্রেচিং করে গা গরম পর্ব সারলেন মেসি। শুরুর দিকে শুটিং প্র্যাকটিস করলেন না। অথচ কোনো হিসাব ছাড়া, আতংক নিয়ে অপেক্ষার ক্ষণ গুণতে না চাইলে জিততে হবে আর্জেন্টিনাকে। জিততে হলে গোল চাই স্কালোনির। এ চাওয়া পূরণের জন্য তিনি নিশ্চিতভাবে তাকিয়ে থাকবেন দলের সেরা তারকাটির দিকে।কিছুটা লাজুক এবং ভাবুক প্রকৃতির মেসির ভাবনা দূর থেকে বোঝা কঠিন। তবে এটুকু নিশ্চিত স্টেডিয়াম-৯৭৪-এর আঙিনায় যখন নামবেন, পোল্যান্ডের গোলমুখে তার থাকবে মরুভূমির শিকারী বাজের শ্যেন দৃষ্টি।

পূর্ববর্তী নিবন্ধদিবালার জন্য অপেক্ষা
পরবর্তী নিবন্ধবিজেপির ঘর ঘর অভিযান
সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য