Wednesday, May 18, 2022
বাড়িবিশ্ব সংবাদফেইসবুকের বিরুদ্ধে রাশিয়ায় মামলা

ফেইসবুকের বিরুদ্ধে রাশিয়ায় মামলা

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১২ মার্চ।  ফেইসবুক তাদের নীতি পরিবর্তন করে রুশ সেনাদের বিরুদ্ধে সহিংস প্রতিরোধের আহ্বান জানানোর সুযোগ করে দেওয়ায় এর মূল কোম্পানি মেটার বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা হয়েছে রাশিয়ায়।

রয়টার্স জানিয়েছে, রাশিয়ার সরকারি কৌঁসুলিরা তাদের মামলায় মার্কিন এই সোশাল মিডিয়া কোম্পানিকে ‘চরমপন্থি সংগঠন’ ঘোষণা করার আবেদন করেছে আদালতের কাছে।পাশাপাশি রাশিয়া থেকে মেটার আরেক প্ল্যাটফর্ম ইন্সটাগ্রামে প্রবেশের সুযোগ বন্ধ করার কথা জানিয়েছে দেশটির নিয়ন্ত্রক সংস্থা।রাশিয়ার তদন্ত সংস্থা এক বিবৃতিতে বলেছে, “একটা ফৌজদারি মামলা হয়েছে… ফেইসবুক ও ইন্সটাগ্রামের মূল কোম্পানি মেটার কর্মীরা রাশিয়ার নাগরিকদের বিরুদ্ধে হত্যা ও সহিংসতার অবৈধ যে আহ্বান জানিয়েছে তার সঙ্গে এটি সংশ্লিষ্ট।”এই তদন্ত সংস্থা সরাসরি প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কাছে জবাবদিহি করে। এই মামলার ফল কী হতে পারে, সে বিষয়ে কোনো ধারণা পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে মেটার বক্তব্য জানার চেষ্টা করা হলেও তাদের সাড়া মেলেনি বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

ইউক্রেইনে রাশিয়ার আগ্রাসনের দুই সপ্তাহের মাথায় বৃহস্পতিবার ফেইসবুকের ‘হেইট স্পিচ পলিসিতে’ পরিবর্তন আনার খবর আসে।এমনিতে ফেইসবুক ও ইন্সটাগ্রামে বিদ্বেষমূলক পোস্ট দেওয়া নিষিদ্ধ হলেও সেই নিয়ম কয়েকটি দেশের ক্ষেত্রে কিছুটা শিথিল করে রুশ সেনাদের বিরুদ্ধে সহিংস প্রতিরোধের আহ্বান জানানোর সুযোগ দেওয়ার কথা বলা হয় মেটার একটি অভ্যন্তরীণ ইমেইলে।সেই সুযোগ নিয়ে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এবং বেলরুশের প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কোর মৃত্যু কামনা করেও পোস্ট দিতে পারবেন ব্যবহারকারীরা।

মেটার একজন মুখপাত্র এক বিবৃতিতে বলেন, “ইউক্রেইনে রাশিয়ার আগ্রাসনের প্রেক্ষাপটে আমরা কিছু রাজনৈতিক মত প্রকাশের সুযোগ দিচ্ছি যা হয়তো স্বাভাবিক সময়ে আমাদের বিদ্বেষপূর্ণ বক্তব্য প্রচারের নীতিমালার লঙ্ঘন হিসেবে বিবেচিত হয়, যেমন ‘রাশিয়ায় আক্রমণকারীদের মৃত্যু হোক’- এ ধরনের বক্তব্য। আমরা এখনও রুশ নাগরিকদের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের সহিংসতার আহ্বান ছড়িয়ে দেওয়ার সুযোগ দেব না।”রাশিয়ার পাশাপাশি ইউক্রেইন ও পোল্যান্ডসহ আরো কয়েকটি দেশে ফেইসবুক ও ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীদের জন্য ‘হেইট স্পিচ পলিসিতে’ এই পরিবর্তন আনা হয় মেটার তরফ থেকে।অন্যদিকে মেটার এ ধরনের পদক্ষেপেকে ‘চরমপন্থি কর্মকাণ্ড’ আখ্যায়িত করে তা থামাতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানায় রাশিয়া।

ক্রেমলিন মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেন, “আমরা আশা করব, এটি যাতে সত্য না হয়। আর যদি সত্য হয়, তাহলে কোম্পানিটির কার্যক্রমের লাগাম টানতে সর্বোচ্চ সিদ্ধান্ত নিতে হবে।”রাশিয়ার প্রসিকিউটর অফিস বলছে, মেটার এ ধরনের সিদ্ধান্ত শুধু ‘চরমপন্থাকে বৈধতা’ দেবে না, রাশিয়ার নাগরিকদের বিরুদ্ধে ঘৃণা ও বিদ্বেষ ছড়াতেও উৎসাহিত করবে।রাশিয়ায় মেটার কার্যক্রম নিষিদ্ধ করার জন্যও আদালতের কাছে আবেদন করার কথা জানিয়েছে প্রসিকিউটর অফিস।জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক সংস্থাও ফেইসবুকের ‘নীতি’ পরিবর্তনকে ‘উদ্বেগজনক’ হিসেবে বর্ণনা করেছে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য