Saturday, July 2, 2022
বাড়িরাজ্যবিদায়ী মুখ্যমন্ত্রীর অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করাই একমাত্র লক্ষ্য, শপথ নিয়ে দৃঢ়তার সঙ্গে...

বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রীর অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করাই একমাত্র লক্ষ্য, শপথ নিয়ে দৃঢ়তার সঙ্গে বললেন নয়া মুখ্যমন্ত্রী মানিক সাহা



আগরতলা, ১৫ মে (হি.স.) : ত্রিপুরার নতুন মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন ডা. মানিক সাহা। তিনি ত্রিপুরার একাদশতম মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বভার সামলাবেন। ত্রিপুরার রাজ্যপাল সত্যদেও নারায়ণ আর্য আজ রবিবার তাঁকে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে পদ ও গোপনীয়তার শপথবাক্য পাঠ করিয়েছেন। আজ অবশ্য মানিকের পূর্ণাঙ্গ মন্ত্রিসভা শপথ নেয়নি। গতকালের ঘোষণা অনুযায়ী আজ মন্ত্রিসভার বাকি সদস্যদেরও শপথ নেওয়ার সূচি নির্ধারিত হয়েছিল। কিন্তু আজ সকালে সূচি পরিবর্তন করা হলে শুধু মুখ্যমন্ত্রীই শপথ নিয়েছেন।

মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার পর থেকে শুভেচ্ছায় ভাসছেন ডা. মানিক সাহা। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, কেন্দ্রীয় ভূতল সড়ক পরিবহণ মন্ত্রী নীতিন গডকড়ি, কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রী জি কিষাণ রেড্ডি, কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী ডা. মনসুখ মান্ডবিয়া, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ভুপেন্দ্র যাদব, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, বিজেপির সর্বভারতীয় সাংগঠনিক সাধারণ সম্পাদক বি এল সন্তোষ মুখ্যমন্ত্রী পদে দায়িত্ব নেওয়ার পর ডা. মানিক সাহাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

আজ তাঁর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে বিদায়ী মন্ত্রিসভার সদস্যগণ সহ ত্রিপুরা বিধানসভার অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ, রাজ্যের দুই সাংসদ, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ভূপেন্দ্র যাদব, বিজেপির প্রদেশ শীর্ষ নেতৃত্ব, শরিক দলের বিধায়কগণ, বিজেপির বিধায়কবর্গ এবং প্রশাসনের পদস্থ আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া আগরতলা পুর নিগমের সমস্ত কাউন্সিলর এদিন নয়া মুখ্যমন্ত্রীর শপথগ্রহণ সমারোহে অংশগ্রহণ করেছেন। ছিলেন বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবও।

এদিন শপথ নেওয়ার পর মুখ্যমন্ত্রী ডা. মানিক সাহা বলেন, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছি। ত্রিপুরাবাসীর কল্যাণে সমস্ত রকম উদ্যোগ নেওয়া হবে। এক ত্রিপুরা শ্রেষ্ঠ ত্রিপুরা গঠনের স্বপ্ন সফল করব। সাথে তিনি যোগ করেন, ত্রিপুরার আইন-শৃঙ্খলা ব্যবস্থা সুদৃঢ় করার অঙ্গীকার নিয়েছি। তিনি বলেন, ত্রিপুরা প্রদেশ বিজেপি সভাপতির অভিজ্ঞতা এখন মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে প্রশাসন পরিচালনায় ব্যবহার করব। সবাইকে নিয়ে এগিয়ে যাব।তাঁর দাবি, মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে কোনও চ্যালেঞ্জ নজরে আসছে না। সমস্যা যা রয়েছে সকলে মিলে সমাধানের পথ খুঁজে বের করব। তিনি দৃঢ়তার সাথে বলেন, উন্নয়নই হবে আমাদের প্রথম এবং একমাত্র লক্ষ্য। সেই লক্ষ্যে অবিচল থেকে মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনের চেষ্টায় ব্রতী হব।

বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব যোগ্য ব্যক্তির হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। ডা. মানিক সাহা সংগঠন পরিচালনায় পারদর্শী ছিলেন এবং এখন মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে যোগ্যতার ছাপ রাখবেন বলে তিনি বিশ্বাস করেন।বিদায়ী মন্ত্রিসভার সদস্য রতনলাল নাথ বলেন, বিজেপি-তে মান-অভিমান থাকতেই পারে। কিন্তু আমরা সকলেই একজোট রয়েছি। নতুন মুখ্যমন্ত্রী আরও বেশি উদ্যমের সাথে ত্রিপুরার উন্নয়নে কাজ করবেন। আমরা সকলে মিলে ত্রিপুরাকে শ্রেষ্ঠ রাজ্য বানাতে সচেষ্ট হব। বিদায়ী মন্ত্রিসভার অপর সদস্য প্রণজিত সিংহরায় বলেন, বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব ত্রিপুরার অভূতপূর্ব উন্নয়ন করেছেন। নতুন মুখ্যমন্ত্রী সেই উন্নয়নের ধারাকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবেন।

বিদায়ী মন্ত্রিসভার অপর সদস্য সুশান্ত চৌধুরী বলেন, বিজেপি এবং বিধায়ক দলে সকলেই এক পরিবারের অংশ হিসেবে আমরা রয়েছি। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব নিয়েছেন। কারণ, তিনি প্রশাসন পরিচালনার সাথে সংগঠন পরিচালনায়ও সমানভাবে দক্ষ। তাই তাঁকে সংগঠনে ফিরিয়ে নেওয়া উচিত বলে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব মনে করেছেন। তেমনি, নতুন মুখ্যমন্ত্রীও যথেষ্ট অভিজ্ঞতা সম্পন্ন। ফলে, তাঁর মুখ্যমন্ত্রীত্বে ত্রিপুরা আরও এগিয়ে যাবে এবং আমরা সকলে মিলে ত্রিপুরাকে শ্রেষ্ঠ রাজ্য গড়ে তুলব।

আজ মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার পর এক টুইট বার্তায় ডা. মানিক সাহা ত্রিপুরার দায়িত্ব দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নড্ডা এবং বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব সহ সমস্ত বিধায়কদের অসংখ্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য