Wednesday, July 24, 2024
বাড়িরাজ্যচা বাগানের অফিস ঘেরাও করে সুষ্ঠু বিচার চাইলো শ্রমিকরা

চা বাগানের অফিস ঘেরাও করে সুষ্ঠু বিচার চাইলো শ্রমিকরা

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৫ জুন : গত ২১ জুন রাতে কৈলাশহর থানার অন্তর্গত জগন্নাথপুর চা বাগানের চারটি সেকশনের চা-পাতা গাছ কেটে ফেলে দুষ্কৃতীরা। জেসিবি দিয়ে বাগানের চারটি সেকশনের বিপুল পরিমাণ চা পাতা গাছ নষ্ট করে দেওয়া হয়। পাশাপাশি বড় বড় গর্ত করে রাখা হয়। এমনকি চারটি সেকশনের প্রবেশ মুখে থাকা লোহার গেইট ভেঙ্গে সেখানেও গর্ত করে রাখা হয়। শনিবার চা বাগানের শ্রমিকরা বাগানে গিয়ে ঘটনা প্রত্যক্ষ করে প্রতিবাদে সরব হয়।

চা বাগান শ্রমিকরা সেই দিন পৃথক দুইটি স্থানে সড়ক অবরোধেও সামিল হয়। চা বাগানের চা পাতা গাছ নষ্ট করার প্রতিবাদে চা বাগান শ্রমিকরা মঙ্গলবার সকালে কৈলাশহরের মনুভ্যালি চা বাগানের বাগান অফিসের সামনে প্রতিবাদ সভায় শামিল হয়। এই প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন ত্রিপুরা চা শিল্প উন্নয়ন নিগম বোর্ডের সদস্যা রাখী শীল, বাগানের কর্মী রাজকুমার বাউরী, মানিক পাইন সহ অন্যান্যরা। বাগানের এক কর্মী জানান চা পাতা গাছ তাদের মায়ের মতো।

কারন এই চা গাছের উপর নির্ভর করে তাদের জীবন জিবিকা চলে। যে বা যারা এই চা পাতা গাছ নষ্ট করেছে তাদের চিহ্নিত করে কঠোর শাস্তি প্রদান করতে হবে। অন্যথায় চা বাগান শ্রমিকরা আগামিদিনে তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলবে।ত্রিপুরা চা শিল্প উন্নয়ন নিগম বোর্ডের সদস্যা রাখী শীল জানান সোমবার তিনি ঘটনার বিষয়ে অবগত হয়েছেন। চা বাগানের ক্ষতি করার ঘটনার ধিক্কার জানান তিনি। তিনি আরও জানান যে বা যারা এই ঘটনা সংগঠিত করেছে তাদেরকে চিহ্নিত করে যেন কঠোর শাস্তি প্রদান করা হয়, তার জন্য তিনি চা উন্নয়ন নিগম বোর্ডের অধিকর্তার নিকট দাবি জানাবেন। হাত বা দা দিয়ে চা পাতা গাছ নষ্ট করা হয় নি। রীতিমতো জেসিবি দিয়ে চা বাগানের চা পাতা গাছ নষ্ট করা হয়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই পুলিশ চাইলে ঘটনার সঠিক তদন্তক্রমে অভিযুক্তদের চিহ্নিত করে গ্রেপ্তার করতে পারে। এখন দেখার পুলিশ কতটা সক্রিয় ভুমিকা পালন করে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য