Sunday, April 21, 2024
বাড়িরাজ্যদুর্ঘটনা রুখতে রাস্তার পাশে দাঁড়াল কচিকাঁচারা, দ্রুত গতিতে বাইক, গাড়ি না চালানোর...

দুর্ঘটনা রুখতে রাস্তার পাশে দাঁড়াল কচিকাঁচারা, দ্রুত গতিতে বাইক, গাড়ি না চালানোর বার্তা দিল তারা

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৫ ফেব্রুয়ারি :  যান চালকদের অসাবধানতা এবং ট্রাফিক পুলিশের কর্তব্যের গাফিলতির কারণে যান দুর্ঘটনা ক্রমশ বেড়ে চলেছে। প্রতিদিন ঝরে যাচ্ছে তরতাজা প্রান। পঙ্গু হয় পরিবারের কাছে ভোজা হচ্ছে বহু যুবক। কেউ সিনেমার হিরোর মত গাড়ি কিংবা বাইক চালাতে গিয়ে পড়ছে দুর্ঘটনা, আবার কেউ সাধারণভাবে গন্তব্যস্থলে পৌঁছাতে গিয়ে উশৃংখল এবং নেশাগ্রস্থদের গাড়ি, বাইকের ধাক্কায় দুর্ঘটনায় পড়ছে। এই দুর্ঘটনাগুলি সংঘটিত হওয়ার পেছনে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে পুলিশ প্রশাসনের চরম কর্তব্যের গাফিলতি রয়েছে।

 কারণ উৎশৃংখল চালকদের বিরুদ্ধে নেই কঠোর পদক্ষেপ। নেই পুলিশ প্রশাসনের নিয়মিত টহলদারি এবং নাকা পয়েন্টে চেকিং। তড়িৎ গতিতে গাড়ি কিংবা বাইক চালানোর ফলে এ ধরনের দুর্ঘটনা সংঘটিত হচ্ছে। যার ব্যাখ্যা দিতে পারছে না পরিবার। বাকরুদ্ধ হয়ে পড়ছে পরিবারের লোকজনেরা। জাতীয় সড়কের রাস্তার পাশে অধিকাংশ থানা থাকলেও পুলিশের নেই কোন তৎপরতা। যার কারণে এবার কচিকাচারা রাস্তায় নেমে যান চালকদের কাছে অনুরোধ করছে হেলমেট ছাড়া যাতে কেউ বাইক না চালায় এবং দ্রুত গতিতে গাড়ি, বাইক না চালানোর জন্য।

 এই দৃশ্য দেখা গেল রবিবার ছুটির দিনে ধর্মনগর দুর্গাপুর এলাকার কচিকাঁচাদের উদ্যোগে। হাতে ব্যানার নিয়ে তারা সকলকে বার্তা দিতে চায় যাতে কেউ নিজেও দুর্ঘটনায় না পড়ে, আবার অন্য কাউকে দুর্ঘটনায় না ফেলে। দীর্ঘক্ষণ প্রখর রোদে দাঁড়িয়ে যান চালকের উদ্দেশ্যে এই বার্তা দিল কচিকাঁচারা। হয়তো তাদের কথায় গুরুত্ব দিলে আগামী দিনে বহু মা আর সন্তান হারাবে না, বহু স্ত্রী স্বামী হারাবে না, বহু স্বামী স্ত্রী হারাবে না, ভাই বোনকে হারাবে না, ভাইও বোনকে হারাবে না, বহু সন্তান তার মা-বাবাকে হারাবে না। এমনকি স্বামী পঙ্গু হয়ে ঘরে বসলে স্ত্রীকে কাজ খুঁজে রোজগার করতে বাড়ি থেকে বের হতে হবে না। বহু যুবক ছেলেকে ঘরে বিছানায় শয্যাশায়ী রেখে বৃদ্ধ মা, বাবাকে কাজ খুঁজতে হবে না।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য