Sunday, December 4, 2022
বাড়িরাজ্যএকদলীয় শাসন ব্যবস্থা থেকে ত্রিপুরা মুক্ত হয়েছে : মুখ্যমন্ত্রী

একদলীয় শাসন ব্যবস্থা থেকে ত্রিপুরা মুক্ত হয়েছে : মুখ্যমন্ত্রী

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৭ জানুয়ারি: ৪০ বছরের একদলীয় শাসন ব্যবস্থা থেকে ত্রিপুরা মুক্ত হয়েছে। রাজ্যের যুবকরা এখন নিজে কিছু করতে চায়। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা, শৌচালয়ে্য মতো সরকারি সুযোগ-সুবিধা পেতে মানুষকে পার্টি অফিসে এবং মিছিল মিটিংয়ে যেতে হয় না। মিছিল-মিটিংয়ে না গেলেও মানুষ সরকারি সুবিধা পায়। রাজ্যে ইনফ্রাস্ট্রাকচার থেকে কোন অন্তিম ব্যক্তি পর্যন্ত পরিবর্তন হয়েছে।

৬৫ শতাংশ পরিবর্তন হয়েছে রাজ্যের। সোমবার রাজধানীর ভোলাগিরি স্থিত স্যন্দন টিভির শুভ উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব একথা বলেন। তিনি বলেন, একটি রাজ্যকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সংবাদ মাধ্যম, আইনি মাধ্যম, প্রশাসনিক মাধ্যম এবং পুলিশি ব্যবস্থা যখন একসাথে কাজ করে তখন রাজ্যের আমূল পরিবর্তন হয়। ত্রিপুরার প্রকৃত উন্নয়নের নতুন দিশা তৈরি হবে। আর সেই দিশায় কাজ করছে রাজ্য সরকার। আর এক বছর পর নির্বাচন। জনতা যদি কাজ পছন্দ করে তাহলে আবার পাঠাবে, আর পছন্দ না হলে যে জায়গা দেবে সেই জায়গায় যাবে। ২০২৩ -এর বিধানসভা নির্বাচন প্রসঙ্গে এ কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি সংবাদমাধ্যম প্রসঙ্গে বলেন, এই সরকার আসার পর ইউটিউব, ওয়েবসাইট, ইলেকট্রনিক্স মিডিয়া, প্রিন্ট মিডিয়ার পরিধি বেড়েছে। এর সাথে কোয়ালিটির সামঞ্জস্য হচ্ছে। এবং মুখ্যমন্ত্রী কাছ থেকে জনতা যেমন গুণগত কাজ চান, তেমনি তিনি রাজ্যে কোয়ালিটি অফ জার্নালিস্ট চান বলে জানান।

এদিন অনুষ্ঠানে উপস্থিত স্যন্দনের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর সুবল কুমার দে বলেন, সিপিআইএম -এর সময় দীর্ঘ ২৫ বছর প্রচেষ্টা করে একটি ইলেকট্রনিক্স চ্যানেল করতে পারেন নি। বহু বাধার সম্মুখীন হতে হয়েছেন। চাইলে আইনিভাবে লড়াই করে চ্যানেল খোলা যেত। কিন্তু করেন নি। কিন্তু বর্তমান স্নেহভাজন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের জন্য স্যন্দন টিভি খোলা সম্ভব হয়েছে। তাই মূখ্যমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান সুবল কুমার দে। তিনি বলেন মিডিয়া থাকতে গেলে ডিজিটাল থাকতে হয়। এছাড়া আর কোন বিকল্প নেই। আগামী দিনে ডিজিটাল মিডিয়া থাকবে। কারণ এর প্রতি মানুষের সমর্থন বাড়ছে। ডিজিটাল মাধ্যমে সঠিক নীতি বাস্তবায়ন হবে বলে আশা ব্যক্ত করেন তিনি। কারোর সাথে স্যন্দনের ব্যক্তিগত শত্রুতা নেই। ভুল তুলে ধরা হয় সরকার যাতে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করে। এবং দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়ে ওঠে মানুষের স্বার্থে কাজ করে। আর বর্তমান সরকার সেই বিষয় কাজ করছে বলে আশা ব্যক্ত করেন স্যন্দনের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর সুবল কুমার দে। মুখ্যমন্ত্রী এদিন প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে শুভ উদ্বোধন করেন স্যন্দন টিভির। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন তথ্য সংস্কৃতি মন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী, মেয়র দীপক মজুমদার সহ অন্যান্য বিশিষ্ট সংবাদ ব্যক্তিত্ব।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য