Sunday, December 4, 2022
বাড়িরাজ্যমুমূর্ষুকে রক্তদানের চাইতে বড় কর্ম এবং ধর্ম আর কিছু নেই: সুশান্ত

মুমূর্ষুকে রক্তদানের চাইতে বড় কর্ম এবং ধর্ম আর কিছু নেই: সুশান্ত

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১০ জানুয়ারি : আজ দুপুরে রামঠাকুর কলেজের এন.এস.এস ইউনিটের উদ্যোগে এক স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবিরে অংশ নেন রাজ্যের যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া তথা তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের মন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী। তিনি মঙ্গলদ্বীপ প্রজ্জ্বলের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করে রক্তদান শিবিরে রক্তদাতাদের তাদের এই মহতী সেবামূলক কাজের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে  উৎসাহীত করেন। রক্তদান শিবিরে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী বলেন, আমরা সকলেই জানি,যেকোনও দানই মহৎ কাজ, অন্নহীনে অন্নদান, গৃহহীনকে আশ্রয়দান, তৃষ্ণার্তকে জল দান, সবই পুণ্যের কাজ ।

কিন্তু মুমূর্ষুকে রক্তদান — এর চাইতে বড় কর্ম এবং ধর্ম আর কিছু নেই । তাই রক্তদানের আরেক নাম জীবনদান । বর্তমানে কোভিডকালীন পরিস্থিতিতে কোনোভাবেই যাতে  প্রয়োজনের তুলনায় রক্তের পরিমাণ কম না হয় সেদিকে আমাদের সকলকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। তাই রক্তদানের জন্য আমাদের সকলকে আরো প্রচার বাড়াতে হবে । এই কাজে এগিয়ে আসার জন্য মানুষকে সচেতন করতে এবং অনুপ্রাণিত করতে আমাদেরকে আরও বেশি করে সচেষ্ট হতে হবে।তিনি আরও বলেন, এখন বিভিন্ন ক্লাবে, কলেজে, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে রক্তদান শিবির হচ্ছে যেখানে যুবক-যুবতীরা স্বেচ্ছায় এগিয়ে এসে রক্তদান করছেন।রামঠাকুর কলেজের এন.এস.এস ইউনিটের উদ্যোগে রক্তদান শিবিরে  যেসকল কলেজ পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীরা স্বেচ্ছায় রক্তদানে  এগিয়ে এসেছেন তাদের সকলকে তিনি ব্যক্তিগতভাবে   ধন্যবাদ জানান।

তিনি উপস্থিত ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে বলেন, কলেজ জীবন থেকেই  রক্তদানের মাধ্যমে  মানবিক কার্যকলাপে অনুপ্রেরণা,উৎসাহ এবং উদ্যোগী হওয়া  ছাত্র-ছাত্রীদের মূল লক্ষ্য হতে হবে। আজকের এই মহতী রক্তদান শিবিরে যাঁরা স্বেচ্ছায় রক্তদান করেছেন এবং রক্তদান করার জন্য নাম নথিভুক্ত করেছেন তাদের সকলকে তিনি তাদের এই মহতী সেবামূলক মানসিকতা ও কাজের জন্য  ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। রামঠাকুর কলেজে পাঠরত ছাত্র-ছাত্রীরা নিজেদের সামাজিক দ্বায়িত্ব পালনে আরও বেশী করে সক্রিয় ভূমিকা পালন করবেন, মন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী এই আশা ব্যক্ত করেন। আজকে যাঁরা  স্বেচ্ছায় রক্তদানে এগিয়ে এসেছেন তাঁদের  সকলের এই মানবিক কাজের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে তাদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ ও সুস্বাস্থ্য কামনা করেন যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া দপ্তরের  মন্ত্রী । আজকের এই মহতী অনুষ্ঠানে  অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রামঠাকুর কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডক্টর দীপক বর্ধন,রামঠাকুর কলেজের টীচার্স কাউন্সিলের সচিব ডক্টর অর্জুন গোপ, ত্রিপুরা স্টেট এন.এস.এস অফিসার ডক্টর চিত্রজিৎ ভৌমিক, কলেজের এনএস.এস ইউনিটের প্রোগ্রাম অফিসার শ্যামসুন্দর সরকার, মেডিকেল অফিসার বিজন সাহা সহ অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিরা॥

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য