Wednesday, June 12, 2024
বাড়িরাজ্যপুলিশের স্পেশাল ড্রাইভ শহরে

পুলিশের স্পেশাল ড্রাইভ শহরে

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২১ মে :  শহরে বাড়ছে নেশা কারবারিদের দৌরাত্ম্য। প্রতিদিন সন্ধ্যা থেকে শুরু হয় শহরে কারবারিদের দৌড়ঝাঁপ। ঘটছে দুর্ঘটনা, চুরি, ছিনতাই সহ বিভিন্ন অপরাধমূলক ঘটনা। লাগাতার খবর প্রকাশের পর শনিবার রাতের বেলা স্পেশাল ডাইভ হিসেবে পাঁচটি স্থানে নাকা বসানো হয়। পুলিশ সুপার কিরণ কে নেতৃত্বে নাকাগুলিতে এদিন রাতের বেলা চলে দীর্ঘক্ষণ অভিযান। আধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন মেশিন দিয়ে গাড়ি চালকদের পরীক্ষা করা হয় তারা মদমত্ত কিংবা অন্যান্য নেশা সামগ্রী সেবন করে গাড়ি চালাচ্ছে কিনা।

এর পাশাপাশি চলে তল্লাশি। শহরের পাঁচটি নাকা থেকে মোট ১২ জন আটক করেছে পুলিশ। এভাবে স্পেশাল ডাইভ আগামী দিনও অব্যাহত থাকবে বলে জানান পুলিশ সুপার। কিন্তু স্পেশাল ড্রাইভ শুধু নির্দিষ্ট সময় সীমাবদ্ধ থাকলে ভুল হবে। কারণ সন্ধ্যার পর থেকে শহর এবং শহরতলি নেশায় ডুবে যাচ্ছে। পশ্চিম জেলার পূর্বতন পুলিশ সুপারের সময় দাবি করা হয়েছিল আগরতলা প্রবেশের মুখগুলিতে নাকা পয়েন্ট বসানো হবে। কিন্তু পরবর্তী সময়ে দেখা গেছে পুলিশ প্রশাসনের বিবৃতি শুধুমাত্র কলাপাতা। যার ফলে দিন দিন শহরে নেশা সাম্রাজ্য গড়ে উঠেছে।

 কিন্তু এবার স্পেশাল ডাইভ কতদিন স্থায়ী হবে সেটাই এখন বড় বিষয়। রাজ্য সরকার নেশা মুক্ত ত্রিপুরা গড়তে সংকল্পবদ্ধ হলেই শুধু চলবে না। নেশা রুখার জন্য আরক্ষা প্রশাসনকে কঠোর নির্দেশ দিতে হবে। না হলে বক্তৃতায় থেকে যাবে নেশা মুক্ত ত্রিপুরার স্বপ্ন। বাস্তবে হারাতে হবে বহু মানুষকে পরিবার পরিজন। সম্প্রতি রানীবাজার নোয়াগাঁও এলাকা থেকে এক যুবকের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা জন্য তার বাবা দায়ী করেছেন নেশা। নেশা কেড়ে নিয়েছে তার ছেলের জীবন। দৈনিক ৩০ টি ইনজেকশন পুশ করে ড্রাগস নিত সে। পরিনাম শেষ পর্যন্ত অস্বাভাবিক মৃত্যু। এভাবে আর কত যুবক হারিয়ে গেলে এবং ধ্বংস হলে সরকার ও প্রশাসন সজাগ হবে সেটাই এখন দেখার।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য