Saturday, April 13, 2024
বাড়িরাজ্যপ্রতিবাদ প্রাক্তন মন্ত্রীর গলায়

প্রতিবাদ প্রাক্তন মন্ত্রীর গলায়

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৬ মার্চ : সদ্য সমাপ্ত বিধানসভা নির্বাচনে চমকহীন ফলাফল হওয়ার পেছনে বহু কারণ রয়েছে বলে মনে করেন ভারতীয় জনতা পার্টি দিল্লি নেতৃত্ব। ২০১৮ সালে সরকার প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর একাধিক বিধানসভা কেন্দ্রের কেউ কেউ জন প্রতিনিধি হিসেবে উন্নয়নমূলক কাজে নিজেকে ব্যস্ত না রেখে গা ভাসিয়েছিলেন জমির দালালি থেকে শুরু করে বিভিন্ন বেআইনি কার্যকলাপে। জমির দালালি জন্য তৈরি করেছিলেন বাইক বাহিনীর গ্রুপ।

আর এই খবরগুলো তথ্য সহকারে দিল্লির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে গোয়েন্দা শাখা মারফত ভালো করেই ছিল। যার কারনে নির্বাচনের আগে দলের প্রাক্তন বিধায়কদের প্রার্থী করার জন্য টিকিট দিতে বহুবার ভাবতেও হয়েছে। আবার দেখা গেছে টিকিট দিলেও ভেবে চিন্তে দিতে হয়েছে। দিল্লির নেতৃত্ব রসায়ন ঠিকই বুঝতে পেরেছিল যদি তারা আবারও জনপ্রতিনিধি হয় তাহলে দলের উপর আঘাত আসতে পারে। কারণ সেই জনপ্রতিনিধিদের উপর মানুষের আস্থা নেই। আর এটা অক্ষরে অক্ষরে পালন করতে গিয়েও দিল্লি নেতৃত্বকে কৌশল অনুযায়ী কাজ করতে হয়েছে বলে দলীয় সূত্রে খবর। ১৮ সূর্যমনির নগর বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক তথা প্রাক্তন মন্ত্রী রামপ্রসাদ পালের অবস্থা বুক ফাটে কিন্তু মুখ ফাটে না। বৃহস্পতিবার নিজ বাসভবনে সাংবাদিক সম্মেলন করে বুঝাতে চেয়েছেন ত্রিপুরা রাজ্যে বিজেপির সৃষ্টিকর্তা একমাত্র তিনি নিজে। স্বর্ণ অক্ষরে তার নাম লেখা থাকা অত্যন্ত জরুরী। সাংবাদিক সম্মেলনে শুরু করেন তিনি দলের দুষ্মন বন্ধুদের প্রসঙ্গ টেনে। তিনি বলেন রামপ্রসাদ পাল দল ছেড়ে দিচ্ছে বলে প্রচার করছে তাঁর দুষ্মন বন্ধুরা। যারা তার বিরুদ্ধে এ ধরনের অপপ্রচারে লিপ্ত হয়েছে তারা জানেন না তিনি কে ? তারা হঠাৎ করে এসেছে দলে আবার তারা ভাবছে দলকে নিজের মত করে ব্যবহার করতে পারবেন। তারা তাকে ষড়যন্ত্র করে সরানোর চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ তুলেন স্ব-দলীয় কার্যকর্তাদের বিরুদ্ধে বিধায়ক বাবু। আরো বলেন যারা এ ধরনের ষড়যন্ত্র করছে তারা আগামী দিনে রাজনীতি থেকে মুছে যাবে। কারণ তিলে তিলে রাজ্যে ৩৫ টি বছর ধরে বিজেপিকে তিনি সৃষ্টি করেছেন।

যার ফলে আজ সরকার গঠন করতে পেরেছে বিজেপি বলে দাবি করেন রামপ্রসাদ পাল। তিনি এদিন তাঁর পরিভাষায় ষড়যন্ত্রকারী যারা রয়েছেন তারা বিজেপির ট্র্যাগ লাইন ছেড়ে গেছে। তাদের দল ছুড়ে ফেলে দেবে বলে অভিমত ব্যক্ত করলেন বিধায়ক। এখন পর্যন্ত মন্ত্রিত্ব না পাওয়া অতি প্রত্যাশী এই বিধায়ক মশাই বলেন, পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে দল চলে। নেতৃত্বে বদল হয়েছে, এটা আলাদা পরম্পরা। দেওয়ার মানসিকতা নিয়ে ত্রিপুরায় বিজেপিকে প্রতিষ্ঠা করেছেন। কিছু পাওয়ার জন্য দল করেন নি। কি পেয়েছেন, কি পাননি সেটা বড় বিষয় নয়। দল থেকে কিছু নেওয়ার নেই বলেও এক প্রকার ভাবে দুঃখ প্রকাশ করলেন বিধায়ক। বিধায়ক মশাই আরো বলেন দলের জন্য কোন সিদ্ধান্ত নেওয়ার কাজ তার নয়। নেতৃত্ব যা সিদ্ধান্ত নেয় সেটাই গ্রহণ করা হবে। ভারতীয় জনতা পার্টি খুব নিয়ম শৃঙ্খলার দল। তাই দল নিজের মতো করে এগিয়ে যাবে বলে আশা ব্যক্ত করলেন হতাশাগ্রস্ত বিধায়ক।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য