Tuesday, May 28, 2024
বাড়িরাজ্যভোট প্রচারে সি পি আই এম ও বিজেপি

ভোট প্রচারে সি পি আই এম ও বিজেপি

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৯ জানুয়ারি : প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ার পরেই সবকটি রাজনৈতিক দল প্রচারে গতি এনেছে। জনগণের দুয়ারে দুয়ারে ঘুরে চাইছেন ভোট। কারণ পাঁচ বছর যাই করুক না কেন এবার মনসদে বসার পালা। তাই এই সুযোগকে সঠিকভাবে কাজে লাগাতে জনগণ দরদী নেতারা দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে বুলি উগড়ে দিচ্ছেন। বিজেপি, বামফ্রন্ট সহ সবকটি রাজনৈতিক দলের নেতারাই প্রচার বের হয়ে জনগণের কথা শুনছেন।

রবিবার ছুটির দিনে দেখা গেল মুখ্যমন্ত্রী ৫১ নং বুথে ভোট প্রচারে যান। মুখ্যমন্ত্রী সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয় জানান যেখানে যাচ্ছেন মানুষের কাছ থেকে ভালো সাড়া মিলছে। মানুষ হাসিমুখে অভ্যর্থনা জানাচ্ছে। মানুষ বলছে যেভাবে ত্রিপুরায় উন্নয়নের কর্মযজ্ঞ চলছে তার ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আগামী দিনে পুনরায় প্রতিষ্ঠিত হবে ভারতীয় জনতা পার্টি। বিজেপিকে পরাস্ত করার আওয়াজ জিইয়ে রেখে ময়দানে ঝড় তুলেছে বামেরা। যাচ্ছে বাড়ি বাড়ি। আসন্ন ত্রিয়োদশ বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি’কে পরাস্ত করে গণতান্ত্রিক দল প্রতিষ্ঠিত করতে দুয়ারে দুয়ারে ভোট চাইছে তারা। রবিবার ১৩ প্রতাপগড় বিধানসভা কেন্দ্রের ২৬ নং বুথে প্রচারে বের হন সিপিআইএম মনোনীত প্রার্থী রামু দাস। তিনি জানান, শিক্ষা স্বাস্থ্য সবকিছুই গত পাঁচ বছরে ধ্বংসের পথে।

মানুষের কাজ খাদ্য নেই। তাই এই সরকারের পরিবর্তে বিকল্প সরকার প্রতিষ্ঠিত করার জন্য মানুষের কাছে প্রচারে যাচ্ছেন বলে জানান রামু দাস। আসন্ন নির্বাচনে আগে যদি সন্ত্রাস বন্ধ করা যায় তাহলে বামেরা অবশ্যই প্রতিষ্ঠিত হবে বলে দাবি করে প্রচারে বের হওয়া রাম দাসের সাথে কর্মীরা। তারা জানান, রাজ্যের ৯০ শতাংশ মানুষ বামেদের সাথে রয়েছে। সকলে চাইছে বিজেপিকে তাড়িয়ে সন্ত্রাসমুক্ত সরকার প্রতিষ্ঠিত করতে। এবং বামফ্রন্ট তার আশাবাদী আসন্ন নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করবে। এদিন এছাড়া উপস্থিত ছিলেন সিপিআইএম রাজ্য কমিটির সদস্য সমর চক্রবর্তী সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। এদিকে ৩ নং বামুটিয়া আসনে বামফ্রন্টের একটি বাইক মিছিল সংঘটিত হয়। আওয়াজ তুলে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার এবং রাজ্যের শান্তি সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠা করার জন্য। এদিন এলাকার সিপিআইএম মনোনীত প্রার্থী নয়ন সরকারের নেতৃত্বে হয় বাইক মিছিলটি। পাশাপাশি এই দিন মিছিলের আগে এলাকার কর্মীরা অভিযোগ তুলে বললেন এলাকায় প্রতিনিয়ত দুর্বৃত্তরা পর্যায়ে নষ্ট করছে। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে। কিন্তু বামফ্রন্টের প্রচার সজ্জা নষ্ট করে এলাকায় সিপিআইএম মনোনীত প্রার্থী নয়ন সরকারকে পরাজিত করতে পারবে না বলে জানান তারা। অপরদিকে নয় বনমালীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বাড়ি বাড়ি যান বিজেপি মনোনীত প্রার্থী রাজীব ভট্টাচার্যী। তিনি অত্যন্ত আশাবাদী এলাকার মানুষ বিজেপিকে জয়যুক্ত করবে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য