Monday, February 6, 2023
বাড়িরাজ্যমুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের দুই রকম তথ্যে বিভ্রান্ত মানুষ

মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের দুই রকম তথ্যে বিভ্রান্ত মানুষ

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৬ জানুয়ারি :  ২৪ ঘন্টার মধ্যে রাজ্য মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের মুখ থেকে বের হলো দুই তথ্য। বৃহস্পতিবার তিনি সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বলেছিলেন ত্রিপুরা রাজ্যে সর্বমোট ভোটারের সংখ্যা ২৮ লক্ষ ১৪ হাজার। কিন্তু ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে শুক্রবার মহাকরণের সাংবাদিক সম্মেলন করে তিনি জানান, বৃহস্পতিবার চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। ভোটার তালিকায় নতুন করে ৭৯ হাজার ৫৮৭ জন নাম নথিভুক্ত হয়েছে। ২০১৮ সালে ভোটারের সংখ্যা ছিল ২৫ লক্ষ ৭৩ হাজার ৪১৩ জন।

 এবার তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৮ লক্ষ ১৩ হাজার ৪৭৮ জন। তাহলে প্রশ্ন হলো কেন তিনি দুই তথ্য প্রকাশ করলেন। মানুষ কোনটা সঠিক বলে মনে করবে ? যাই হোক এদিন তিনি আরো জানান নতুন ভোটারদের মধ্যে মহিলা ভোটারের সংখ্যা বেশি। রাজ্যে ১০০ বছরের অধিক বয়সের ভোটার রয়েছে ৬৭৯ জন। দিব্যাঙ্গন ভোটার রয়েছে ১৭ হাজার ২৯৭ জন। মোট পোলিং স্টেশন রয়েছে ৩৩২৮ টি। প্রতি পোলিং স্টেশনে ৮৪৫ জন ভোটার রয়েছেন। তৃতীয় লিঙ্গ ভোটার রয়েছে ৩১ জন। ১৮ থেকে ১৯ বছর বয়সী ভোটার রয়েছে ৬৫ হাজার ৪৪ জন। রাজ্যের ১২ টি জায়গায় ব্রু পুনর্বাসন দেওয়া হচ্ছে। এইক্ষেত্রে ১৩, ৫০০ ব্রু ভোটারের নাম ভোটার তালিকায় নথিভুক্ত করা  হয়েছে। মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক জানান ৬,৩০২ টি ব্রু পরিবার পুনর্বাসন হওয়ার কথা রয়েছে। তার মধ্যে ৫,৫০৫ টি পরিবারের পুনর্বাসন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। ৮০০ টি পরিবার বাকি রয়েছে। মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক এইদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে জানান এই বছর যে সকল ভোটারের বয়স ৮০ বছরের অধিক এবং চলাফেরা করতে পারে না, তারা চাইলে বাড়িতে বসে ভোট দিতে পারবে। তাঁর ব্যবস্থা রয়েছে। তবে তার জন্য সংশ্লিষ্ট ভোটারদের আগাম আবেদন করতে হবে। এছাড়াও ভোট কেন্দ্রে আসার পর ভোটারদের যেন কোন অসুবিধা না হয় তার জন্য সকল ধরনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা থাকবে। যারা হুইল চেয়ার ব্যবহার করতে চায় তাদেরকে আগাম আবেদন করতে হবে বলেও জানান তিনি।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য