Wednesday, February 8, 2023
বাড়িরাজ্যগৃহ নির্মাণ না করে গৃহপ্রবেশ করার কথা বলছেন, এমন প্রধানমন্ত্রী আগে দেখা...

গৃহ নির্মাণ না করে গৃহপ্রবেশ করার কথা বলছেন, এমন প্রধানমন্ত্রী আগে দেখা যায়নি : অনিমেষ দেববর্মা

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২০ ডিসেম্বর :  কয়েকটি ককবরক বলে তিপ্রাসাদের মন জয় করতেন পারবেন না। তিপ্রাসাদের মন জয় করতে হলে গ্রেটার তিপরাল্যান্ড নিয়ে কথা বলেন, তাহলেই কোথায় চিড়া ভিজবে না, জলের চিড়া ভিজবে। মঙ্গলবার অমরপুর মহকুমা অন্তর্গত নতুন বাজার এ ডি সি ভিলেজে নতুন গার্লস স্কুলের মাঠে আয়োজিত জনসভায় বক্তব্য রেখে এমনটাই বললেন টি টি এ ডি সি -এর ই এম অনিমেষ দেববর্মা। তিনি বলেন গ্রেটার তিপরাল্যান্ডের অর্থ হলো এ ডি সি -র বাইরে যেখানে তিপ্রাসা রয়েছে সেই অংশটা নিয়ে গ্রেটার তিপরাল্যান্ড করার দাবি জানানো হচ্ছে। আর এই গ্রেটার তিপরাল্যান্ডের মধ্যের শান্তি সম্প্রীতি রেখে সমস্ত অংশের মানুষ বাস করবে বলে জানান তিনি।

 অনিমেষ দেববর্মা বর্তমান আইনমন্ত্রী বিধানসভা কেন্দ্র নিয়ে মঞ্চ থেকে চ্যালেঞ্জ করে বলেন, আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে মোহনপুর বিধানসভা কেন্দ্রটি জিততে পারবেন কিনা বিজেপি। দিকে দিকে শুধু তিপ্রা মথা হবে। কারণ তিপ্রা মথার বিকল্প নেই। তিপ্রা মথা ভবিষ্যৎ বলে জানান তিনি। ১৮ ডিসেম্বর মোদি বাবু এসেছিলেন, মোদি বাবুর সফর ঘিরে তের প্রকারের নাচ গানের ব্যবস্থা করেছে। মাঠের মধ্যে ২০ হাজার চেয়ারের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। কিন্তু মাঠের মধ্যে লোক ছিল না। ২০ কোটি টাকা খরচ করেছে মোদি বাবুকে আনা হয়েছে। শৌচালয়ের জন্য খরচ করেছে এক কোটি টাকা। এমনকি মাঠে লোক না থাকায় ১০ হাজার চেয়ার মাঠ থেকে বের করে দেয়। আর মাঠের মধ্যে যারা ছিলেন তারা আশা কর্মী, টিসিএস অফিসার, পুলিশ, সমস্ত করণিক সহ সরকারি কর্মচারীদের বসিয়ে মাঠ সাজিয়েছে তারপরও লোক নেই। আর বিজেপি নেতারা দাবি করছে মাঠের বাইরে নাকি দশ গুন লোক ছিল। নরেন্দ্র মোদির চোখ কি ভগবানের চোখ দিয়ে তিনি বাইরে পর্যন্ত দেখেছেন ? তাই এই বিজেপি নেতাদের উদ্দেশ্যে তিনি এদিন মঞ্চ থেকে স্লোগান তুলেন মা বোনেরা বলছে তিপ্রা মথা আসছে। এমনটাই বলে বিজেপিকে এদিন মঞ্চ থেকে কড়ায়-গন্ডায় হিসাব দিলেন অনিমেষ দেববর্মা। বিজেপির ১২০০ কোটি টাকা বাজেট দিয়ে ত্রিপুরাকে কেনা সম্ভব নয়। যারা সুশাসন চায় এবং গরিব মানুষের উন্নয়ন চায় তাদের তিপ্রা মথায় যোগদান করার আহ্বান জানান ডেপুটি সি ই এম অনিমেষ দেববর্মা। তিনি বলেন তিপ্রা মথা কোন জাতি বা ধর্মকে আঘাত করে শাসন করবে না। এবং রাজ্যে এক লক্ষের অধিক শূন্য পদ পূরণ করতে ব্যর্থ বর্তমান সরকার। যদি আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তিপ্রা মথা সরকারি প্রতিষ্ঠিত হয় তাহলে রাজ্যের বেকার যুবক-যুবতীদের সঠিক দিশা দেখাবে। পাশাপাশি সত্যিকারের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করবে। বিপ্লব বাবুদের মতো মিথ্যে কথা বলবেন না। যা প্রতিশ্রুতি দেওয়া হবে তা পালন করা হবে বলে জানান তিনি। বিজেপি যে মায়া কান্না কাঁদে।

তাই ভারতবর্ষের যে আয়তন তার একটি নারিকেলের সমানও নয় বাংলাদেশ। আর মোদী যেহেতু মায়া কান্না করে তাই এক ব্যাটেলিয়ান ইন্ডিয়ান আর্মি পাঠিয়ে বাংলাদেশের বাঙালিদের বাঁচানোর জন্য বলেন তিনি। কিন্তু এটা করবেন না মোদী। কথায় তারা বাঙালীদের ঠকাতে এসেছে। ৩৪০০ কোটি টাকা ব্যয় করে নরেন্দ্র মোদি ত্রিপুরা রাজ্যে গৃহ প্রবেশ করতে এসেছেন। কিন্তু মোদি বাবু তো ঘর বানাননি আর কোন ঘরে ঢুকবেন তিনি। আর এই প্রথম দেখা গেছে ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী গৃহ নির্মাণ না করে গৃহপ্রবেশ করার কথা বলছেন। তা নিয়ে কটাক্ষ করলেন অনিমেষ দেববর্মা। এদিনের আয়োজিত সবাই এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ই এম ডেলি ডার্লং, প্রাক্তন বিধায়ক বুর্বুমোহন ত্রিপুরা সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। তাদের হাত ধরে এটি বিজেপি এবং আইপিএফটি ছেড়ে ৩২ পরিবারের ৯০ ভোটার তিপ্রা মথায় যোগদান করে। তাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দিয়ে দলে স্বাগত জানান উপস্থিত নেতৃবৃন্দ। তবে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি বনাম মথা লড়াই এক প্রকার ভাবে নিশ্চিত হয়ে গেছে। যদিও শাসক দল পাহাড়ে দুর্বল হওয়ায় মথার সাথে জোট হয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে উঠে পড়ে লেগেছে। বিশ্বস্ত সূত্রে খবর দিল্লি থেকে জোট নিয়ে সবুজ সংকেত পেতেই মথার সুপ্রিমোর সাথে আলোচনার টেবিলে বসতে এক প্রকার ভাবে প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে। কিন্তু বাকিটা সময় বলবে। আসলে জোট নাকি হাড্ডাহাড্ডি লড়াই।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য