Monday, February 6, 2023
বাড়িরাজ্যভগিনী নিবেদিতা হোস্টেলের চরম অব্যবস্থা নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর দারস্থ ছাত্রীরা

ভগিনী নিবেদিতা হোস্টেলের চরম অব্যবস্থা নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর দারস্থ ছাত্রীরা

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৫ ডিসেম্বর :  ঘরে ঘরে সুশাসনের ঠেলায় হোস্টেলগুলির অবস্থা কাহিল। খবর রাখছেন না রাজ্যের মন্ত্রী তথা দপ্তরের অভিভাবক মশাই। শেষ পর্যন্ত ছাত্রীরা শিক্ষা দপ্তরের অভিভাবক মশাইয়ের হুঁশ ফেরাতে বাসভবনে গেলেন বৃহস্পতিবার। হোস্টেলের দীর্ঘদিনের সমস্যা সম্পর্কে মন্ত্রীকে অবগত করেন ছাত্রীরা। ছাত্রীদের অভিযোগ কৃষ্ণনগর স্থিত ভগিনী নিবেদিতা হোস্টেলের চরম বেহাল দশায় পরিণত হয়ে আছে। বহু কক্ষের মধ্যে বিদ্যুতিক পাখা এবং আলোর ব্যবস্থা নেই।

এমনকি পানীয় জলের চরম অভাব। বাথরুম গুলির অবস্থা পর্যন্ত অত্যন্ত করুন। পর্যাপ্ত পরিমাণে জলের ব্যবস্থা নেই। ছাত্রীরা যাতে এ বিষয়ে মুখ খুলতে না পারে তার জন্য তাদের উপর মিথ্যা অভিযোগ তুলেন হোস্টেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত দিদিমণি তৃপ্তি সাহা। সবচেয়ে বড় বিষয় হলো ছাত্রীরা যদি রাত ৮ টার পরে অসুস্থ হয়ে পড়েন তাহলে হোস্টেলের পক্ষ থেকে ছাত্রীদের কোন ধরনের সহযোগিতা করা হয় না। বুধবার রাতে বেলা হোস্টেলের এক ছাত্রী অসুস্থ হওয়ার পর সেই ছাত্রীকে চিকিৎসার জন্য ডাক্তার কাছে নিয়ে যেতে অন্যান্য ছাত্রীদের রাস্তা থেকে গিয়ে অটো ডেকে আনতে হয়েছে। এ সমস্যাগুলো নিয়ে বহুবার ছাত্রীরা হোস্টেলে প্রতিবাদ জানালে তাদের বলা হয় বিষয়টি তিনি দেখবেন। কিন্তু আজকে যে বিষয় পরবর্তী সময় এই সমস্যাগুলি সুরাহা করার কোন ভূমিকা নেন নি দিদিমণি তৃপ্তি সাহা। বরং ছাত্রীদের উপর মিথ্যা অভিযোগ তুলে দেওয়া হয় বলে ছাত্রীরা শিক্ষামন্ত্রীর কাছে অভিযোগ জানায়।

ছাত্রীদের দাবি হোস্টেলটি এস সি ওয়েল ফেয়ারের অধীনে হতে পারে, কিন্তু যেহেতু রতন লাল নাথ শিক্ষা দপ্তরের মন্ত্রী, এর জন্য হোস্টেলে পড়াশোনা করতে ছাত্রীদের যে সমস্যার শিকার হতে হচ্ছে সে বিষয়টা মন্ত্রীর গোচরে দিতে এসেছেন। যদিও মন্ত্রী প্রথমেই ছাত্রীদের বলে দিলেন এস সি ওয়েলফেয়ারের বিষয় যেহেতু তাহলে কেন সমস্যাগুলো নিয়ে মন্ত্রীর দ্বারস্থ হয়েছেন। আরো বলেন আগে জানতে হবে এটা কোন দপ্তরের অধীনে রয়েছে হোস্টেলটি। তারপর যেতে হবে সেই দপ্তরের মন্ত্রীর কাছে। কিন্তু ছাত্রীরা বিষয়টি এত না ভেবে যেহেতু তাদের পড়াশোনার ক্ষেত্রে ব্যাঘাত হচ্ছে তাই তারা শিক্ষামন্ত্রীর দারস্থ হয়েছিল। মন্ত্রীর এ ধরনের মন্তব্য শুনতে পেয়ে হতাশ হয়ে পড়েন ছাত্রীরা।

শিক্ষামন্ত্রী ছাত্রীদের জানিয়েছেন হোস্টেলের মধ্যে যেহেতু সমস্যা তৈরি হয়ে আছে সে বিষয়টা ওনার জানা ছিল না। বিষয়টি তিনি দেখবেন বলে আশ্বস্ত করেন। তবে হোস্টেলের মধ্যে শতাধিক ছাত্রী এই ধরনের সমস্যা এখন দপ্তরের অভিভাবক মশাই কতটা নজর দেন সেটা দেখার বিষয়। গুণগত শিক্ষার নাম করে মাঠ ঘাট গরম করলেই শুধু চলবে না। স্কুল কলেজ হোস্টেলে ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনার কতটা পরিবেশ রয়েছে সে তো দেখতে হবে বলে অভিমত অভিজ্ঞ মহলের। তবে যতদূর জানা যায় হোস্টেলটি এস এস সি ওয়েলফেয়ারের অধীনে রয়েছে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য