Tuesday, February 7, 2023
বাড়িরাজ্যপূর্বতন সরকার ছিল সন্ত্রাসের সরকার : মুখ্যমন্ত্রী

পূর্বতন সরকার ছিল সন্ত্রাসের সরকার : মুখ্যমন্ত্রী

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২ ডিসেম্বর : শুক্রবার উত্তর ত্রিপুরা জেলা সফরে যান মুখ্যমন্ত্রী ডাক্তার মানিক সাহা। উত্তর ত্রিপুরা জেলা সফরকালে মুখ্যমন্ত্রী এইদিন একাধিক সরকারি প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। মুখ্যমন্ত্রী এইদিন প্রথমে চলে যান উত্তর জেলার ইচাইলালছড়া এলাকায়।

সেখানে এক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে মুখ্যমন্ত্রী উত্তর ত্রিপুরা জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের কার্যালয়ের শিলান্যাস করেন। পরে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন স্বাস্থ্যই সম্পদ।

স্বাস্থ্য ঠিক না থাকলে কোন কাজ ঠিক ভাবে করা যায় না। তাই স্বাস্থ্য ব্যবস্থার উন্নয়নে বিভিন্ন স্থানে পরিকাঠামোগত উন্নয়ন করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর লক্ষ্য প্রতিটি ঘরে সকল ধরনের পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া। সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখে কৃষি দপ্তর থেকে শুরু করে বিভিন্ন দপ্তর কাজ করছে। মুখ্যমন্ত্রী এইদিন আরও বলেন কিছুদিন পূর্বে তিনি উত্তর জেলা হাসপাতাল পরিদর্শন করেছেন। সেখানে কিছু অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ ওনার নজরে এসেছে। তিনি আরও বলেন যা আছে, তার মধ্যে থেকে কাজ করতে হবে।

 সরকারেরও দায়িত্ব রয়েছে। সরকার তার দায়িত্ব পালন করবে। সরকার ও মানুষের মধ্যে যেন দূরত্ব না থাকে সেই দিশাতে সরকার কাজ করছে বলে জানান তিনি। জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের কার্যালয়ের শিলান্যাস করার পর মুখ্যমন্ত্রী চলে যান নব নির্মিত ব্রজেন্দ্রনগর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে। ফিতা কেটে এবং ফলক উন্মোচন করে নব নির্মিত ব্রজেন্দ্রনগর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী ডাক্তার মানিক সাহা। সেখান থেকে মুখ্যমন্ত্রী চলে যান ব্রজেন্দ্রনগর উচ্চতর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে। সেখানে আয়োজন করা হয় ব্লক ভিত্তিক কৌশল মেলার। প্রদীপ প্রজ্জলন করে ব্লক ভিত্তিক কৌশল মেলার উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী নাম না করে সিপিআইএম, কংগ্রেস ও তৃনমূল কংগ্রেসের তীব্র সমালোচনা করেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন রাজ্যে আগে একটি সন্ত্রাসের সরকার ক্ষমতায় ছিল। তার আগে ছিল উশৃঙ্খলতার সরকার।

পশ্চিম বঙ্গের মানুষ অনেক আশা নিয়ে সেখানে তৃনমূল কংগ্রেসের সরকার প্রতিষ্ঠা করেছিল। কিন্তু বর্তমানে দেখা যাচ্ছে সেখানে সন্ত্রাস ও উশৃঙ্খলতার সরকার চলছে। রাজ্যের মানুষ উশৃঙ্খলতার সরকার চায়না বলেও দাবি করেন মুখ্যমন্ত্রী। বিরোধীরা ইচ্ছাকৃত ভাবে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার অবনতি করার চেষ্টা করছে। এবং তার দায়ভার বর্তমান সরকারের উপর চাপানো চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী। কোন অবস্থায় সরকার উশৃঙ্খলতাকে বরদাস্ত করবে না বলে হুশিয়ারি দেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি আরও বলেন বর্তমান সরকার উন্নয়ন চায়। মানুষের মৌলিক অধিকার গুলি মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে চায় বর্তমান সরকার। প্রতিটি অনুষ্ঠানে এইদিন মুখ্যমন্ত্রী সাথে ছিলেন বিধায়ক বিনয় ভূষণ দাস, বিধায়িকা মলিনা দেবনাথ, ত্রিপুরা শিল্প উন্নয়ন নিগমের চেয়ারম্যান টিঙ্কু রায় সহ অন্যান্যরা। ব্লক ভিত্তিক কৌশল মেলায় এইদিন প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় ঘর প্রাপক বেশ কয়েকজন সুবিধাভোগীর হাতে ঘরের টাকার চেক তুলে দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে এইদিন এলাকার সাধারন মানুষের উপস্থিতি ছিল লক্ষ্যনীয়।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য