Tuesday, October 4, 2022
বাড়িরাজ্যসাত দিনের সময় বেঁধে দিল ১০,৩২৩

সাত দিনের সময় বেঁধে দিল ১০,৩২৩

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৩ আগস্ট : শুক্রবার ১০,৩২৩ -এর বহু শিক্ষক-শিক্ষিকা পুরনো কর্মস্থলে গিয়ে চাকুরিতে যোগদান করতে না পারায় দপ্তরের আধিকারিকদের সাতদিনের সময় বেঁধে দিল ১০,৩২৩ -এর শিক্ষক-শিক্ষিকারা। সাত দিন অপেক্ষা করে সেই আধিকারিকদের বাড়িতে আইনি নোটিশ পাঠিয়ে আদালতে ডাকা হবে কেন শীর্ষ আদালতের আর টি আই মানছেন না তারা। শনিবার আগরতলা প্রেস ক্লাবের সাংবাদিক সম্মেলন করে এ কথা জানান ১০,৩২৩ -এর শিক্ষক বিশ্বজিৎ বণিক।

তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্টের আর টি আই -এর মান্যতা দিয়ে ১০,৩২৩ শিক্ষক-শিক্ষিকাদের মধ্যে এদিন ১০,৩২৩ -এর কিছু শিক্ষক শিক্ষিকাকে বহু স্কুলে প্রধান শিক্ষক চাকুরিতে যোগদান করার সুযোগ দিয়েছেন। সেই সব প্রধান শিক্ষকদের ধন্যবাদ জানান ১০,৩২৩ -এর শিক্ষক শিক্ষিকারা। আবার কিছু কিছু বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিক্ষিকা ১০,৩২৩ এর শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সাথে দুব্যবহার করেছেন বলে অভিযোগ। সেই বিষয়ে তিনি তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন কোন গুষ্টি পরিচালিত হয়ে রাজ্য সরকারকে কালিমা লিপ্ত করার জন্য এ ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। আবার কিছু কিছু বিদ্যালয় দেখা গেছে প্রধান শিক্ষকরা ১০,৩২৩ -এর শিক্ষক-শিক্ষিকারা চাকরিতে যোগদানের যে কাগজটি জমা দিতে চেয়েছিলেন তা রাখেননি। তারা বলেছেন হোয়াট অ্যাপে মাধ্যমে শিক্ষা দপ্তর থেকে তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সে বিষয়ে হোয়াট অ্যাপ ম্যাসেজের বৈধতা জানতে চাওয়া হলে তারা সন্তোষজনক জবাব দিতে পারেন নি। এবং এ বিষয়ে আই এস -এর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানিয়েছেন উপরের নির্দেশ রয়েছে। তিনিও বলেছেন ওয়াট অ্যাপে মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের পক্ষ থেকে নির্দেশ রয়েছে। পাশাপাশি আই এস -এর কাছ থেকে দপ্তরের কোন নির্দেশ পাওয়া যায়নি।

 আই এস -এর শেষ পর্যন্ত উত্তর ছিল সবকিছুই তো বুঝতে পারছেন, উপর থেকে নির্দেশ রয়েছে। এর দ্বারা স্পষ্ট দপ্তরের কিছু কর্মী চক্রান্ত করে বিদ্যালয় থেকে ১০,৩২৩ -এর শিক্ষক-শিক্ষিকাদের দূরে সরিয়ে রেখেছে। তাই বিষয়টি মুখ্যমন্ত্রী দৃষ্টি আকর্ষণ করে সমস্যার সমাধান চাইলেন বিশ্বজিৎ বণিক। তাদের আরো অভিযোগ শুক্রবার নবগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষিকা এবং বহিরাগতরা ১০,৩২৩ এর শিক্ষিকাদের সাথে প্রচন্ডভাবে দুর্ব্যবহার করেছেন। তাই সেই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে শুক্রবার যেসব প্রধান শিক্ষক শিক্ষিকারা ১০,৩২৩ এর শিক্ষক-শিক্ষিকাদের চাকরিতে যোগদান করার সুযোগ দেয়নি তাদের সাত দিন সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে, তারা যদি সাত দিনের মধ্যে চাকরিতে যোগদান করার ব্যবস্থা না করে তাহলে সংশ্লিষ্ট আই এস থেকে শুরু করে যারা আধিকারিক থাকবেন তাদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে বাধ্য হবে ১০,৩২৩ এর শিক্ষক শিক্ষিকারা বলে জানান তিনি। তাদের কাছ থেকে আরও জানা যায় রাজ্যের ৩০ থেকে ৪০টি স্কুলে প্রধান শিক্ষক স্কুলে যাওয়ার জন্য অনুমতি দিয়েছে। এবং নিয়মিত স্কুলে যাওয়ার জন্যও বলেছেন ১০,৩২৩ -এর শিক্ষক শিক্ষিকাদের। কিন্তু অধিকাংশ স্কুলেই তারা প্রধান শিক্ষকের কাছ থেকে স্কুলে যাওয়ার অনুমতি পায়নি বলে জানান।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য