Tuesday, August 9, 2022
বাড়িরাজ্য১৫ দিন ধরে বিদ্যুৎ নেই,ক্ষুব্ধ নাগরিকরা নামলেন রাস্তায়, জনতার অবরোধ

১৫ দিন ধরে বিদ্যুৎ নেই,ক্ষুব্ধ নাগরিকরা নামলেন রাস্তায়, জনতার অবরোধ

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৪ আগস্ট :  ১৫ দিন ধরে বিদ্যুৎ না থাকার জেরে ক্ষুব্ধ জনতা রাস্তা অবরোধে বাধ্য হয়।সোনামুড়া দাওধারানী মাদ্রাসা সংলগ্ন ও কুলুবাড়ি দ্বাদশ শ্রেণী বিদ্যালয়ে গেটের সামনে সোনামুড়া-বক্সনগর সড়ক অবরোধ করা হয়।অবরোধ জেরে ভোগান্তি শিকার পথচারী ও যাত্রীরা।আড়ালিয়া পঞ্চায়েত এলাকার ৬ নং ওয়ার্ড এলাকার জনগণ দীর্ঘ ১৫ দিন ধরে বিদ্যুৎ সমস্যা ভোগছেন।কিন্তু সমস্যা সমাধানে কোনও ব্যবস্থা নেই কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে।ক্ষুব্ধ নাগরিকরা শেষপর্যন্ত পথ অবরোধ বসে।আড়ালিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের এলাকার নাগরিকরা অভিযোগ করেছেন গত ১৫ দিন ধরে তারা খুবই দুর্ভোগের শিকার। কারণ বারবার করে বিদ্যুৎ নিগম দপ্তরে অভিযোগ জানিয়েও বিদ্যুৎ পরিষেবা স্বাভাবিক হয়নি।

জানা যায় আড়ালিয়া ও কুলুবারি এই দুইটি পঞ্চায়েত এলাকার যে ট্রান্সফরমার্টটি রয়েছে তা সম্পূর্ণ বিকল।দুটি গ্রামের জনসাধারণের পরিষেবা দিতে হিমশিম।কারণ একটি ট্রান্সফরমা দিয়ে দুটি গ্রাম চলা অসম্ভব।গত ১৫ দিন আগেও কুলুবারি বাজারের সামনে এলাকার লোকজন বিদ্যুতের দাবিতে রাস্তা অবরোধ করে বসেন।অবশেষে বিদ্যুৎ দপ্তরের কর্মীরা এসে বিদ্যুৎ সারাইয়ের পর অবরোধকারীরা রাস্তা অবরোধ তুলে নেন।ঠিক এর ১৫ দিন মাথায় আবার সেই কুলুবাড়ি স্কুলের ও দাও ধারানি মাদ্রাসার সামনে রাস্তা অবরোধ করে বসেন দুই এলাকাবাসীর জনসাধারণ।এই অবরোধের জন্য দুপাশের পথচারীদের দীর্ঘ সময় ধরে দুর্ভোগ পোহাতে হয়।খবর পেয়ে সোনামুড়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলেও অবরোধকারীদের কোনভাবেই আশ্বস্ত করা যায়নি।শেষ পর্যন্ত বিদ্যুৎ নিগমের কর্মীরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসে।তারা বিদ্যুৎ পরিষেবা স্বাভাবিক করার কাজ শুরু করতেই অবরোধ প্রত্যাহার করে।

তবে জানা যায় এই বিদ্যুৎ পরিষেবা এতো তাড়াতাড়ি সাড়াই করার মত নয়।তাদের গ্রামে থাকা ট্রান্সফরমারটি একেবারেই বিকল হয়ে পড়ে আছে।সারাই করতে কিংবা নতুন করে আরেকটি ট্রান্সফরমা বসাতে আরও দুদিন সময় লাগবে।তাই বিদ্যুৎ দপ্তর কর্মীরা অবরোধকারীদের কাছে দুদিনের সময় চেয়ে নেন।এই আশায় অবরোধকারীরা রাস্তা অবরোধ তুলে নেন।দীর্ঘ সময়ের আন্দোলনের জেরে রাস্তার দুদিকে প্রচুর যানবাহন আটকে যায়।এতে প্রচন্ড দুর্ভোগ পোহাতে হয় যান চালক থেকে যাত্রীদের।গত ১৫ দিন ধরে এলাকার ট্রান্সফরমারটি বিকল ছিল।এলাকাবাসীর অভিযোগ বারবার বিদ্যুৎ অফিসে জানানোর পরেও কোন কাজের কাজ হয়নি।এদিন অবরোধের ছেড়ে বিদ্যুৎ সংযোগ সারাইয়ের কাজ শুরু হলেও রাতে সংবাদ লেখা পর্যন্ত কাজ চলছে।পৌঁছে দেওয়ার সংকল্প নিয়ে বিদ্যুৎ দপ্তরের কর্মীরা কাজ করে যাচ্ছেন।তবে এদিনের অবরোধে কোন নেতা-নেত্রীদের পথচারীদের বা রাস্তা অবরোধকারীদের কোন আশ্বাস দিতে দেখা যায়নি।কিন্তু তারা ভোটের সময় হলে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়ে থাকলেও ভোট চলে গেলে তা আর মনে থাকে না।

গত ১৫ দিন ধরে এলাকায় বিদ্যুৎ না থাকলেও কোন শাসকদলের নেতা-নেত্রী তার কোন খোঁজ খবর নেননি। তা নিয়েও এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ।তাদের দাবি এবার যদি যেকোনো দলের নেতারা ভোট চাইতে গেলে এভাবে ছেড়ে দেওয়া যাবে না। অনেকের আবার দাবি রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী কি কিছুদিন পর পর বিদ্যুতের দাবিতে রাস্তা অবরোধ করার খবর নজরে আসছে না।তিনি কি নাকে তেল দিয়ে ঘুমান।অবশেষে এলাকাবাসী দাবি করেন দ্রুত যেন এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়।এলাকায় বিদ্যুৎ না পাওয়ায় জল থেকে শুরু করে এ কাঠফাটা রোদে গরমে হাহাকার হয়ে রয়েছেন পড়াশোনা একেবারে লাঠি উঠেছে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য