Wednesday, August 10, 2022
বাড়িরাজ্যবিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের শূন্যপদ পূরণ করতে সরকার আন্তরিক : মুখ্যমন্ত্রী

বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের শূন্যপদ পূরণ করতে সরকার আন্তরিক : মুখ্যমন্ত্রী

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৩ আগস্ট : প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকে হাসপাতাল পর্যন্ত মানুষকে নিরলস ভাবে স্বাস্থ্য পরিষেবা পৌঁছে দিতে চেষ্টা করছে রাজ্য সরকার। বুধবার তেলিয়ামুড়া মহকুমা হাসপাতালে নব নির্মিত ব্লাড সেন্টারের সূচনা করে বলেন মুখ্যমন্ত্রী ডাঃ মানিক সাহা। তিনি বলেন রাজ্যে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের একটা ঘাটতি আছে।

এর মধ্যে অনেকে অবসরে গেছেন। এই বিষয় গুলি নিরসন করার জন্য রাজ্য সরকার আন্তরিক বলে জানান তিনি। সমস্যা আছে, তবে সেই সমস্ত সমস্যা নিরসন করে প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকে হাসপাতাল পর্যন্ত যাতে মানুষকে সঠিক ভাবে স্বাস্থ্য পরিষেবা প্রদান করা যায় তা চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। পর্যাপ্ত কর্মীর স্বল্পতা থাকায় ওটি চালু করা যায়নি। এই ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। পরে তেলিয়ামুড়া টাউন হলে হয় মূল অনুষ্ঠানটি।

সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন তেলিয়ামুড়া মহকুমা হাসপাতালে আগামী দিনে যাতে আরও পরিষেবা বৃদ্ধি করা যায় সে বিষয়ে চিন্তা ভাবনা করবে রাজ্য সরকার। মানুষ মানুষের জন্য তা একমাত্র প্রমান করা যায় স্বেচ্ছায় রক্তদানের মাধ্যমে। একজন মহিলা একজন পুরুষকে রক্ত দিতে পারেন। এখানে লিঙ্গের কোন তারতম্য নেই বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী ডাঃ মানিক সাহা। রক্তদান মানুষকে এক করে দেয় বলেও জানান তিনি। এদিনের তেলিয়ামুড়া মহকুমা হাসপাতালের ব্লাড সেন্টারের উদ্বোধনের অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে ব্যাপক সারা পরিলক্ষিত হয় মহকুমাবাসীর মধ্যে।

তেলিয়ামুড়া বাসীর দীর্ঘদিনের  দাবিকে মান্যতা দিয়ে অবশেষে মুখ্যমন্ত্রী ডাঃ মানিক সাহার হাত ধরে বুধবার সূচনা হয়  তেলিয়ামুড়া মহকুমা হাসপাতালের ব্লাড সেন্টারের। অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন  বিধানসভার মুখ্য সচেতক কল্যাণী রায়, কৃষ্ণপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক ডক্টর অতুল দেববর্মা, স্বাস্থ্য সচিব ডাঃ দেবাশীষ বসু, খোয়াই জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ নির্মল বিশ্বাস, খোয়াই জেলা পুলিশ আধিকারিক ভানু পদ চক্রবর্তী, মহকুমা স্বাস্থ্য আধিকারিক  ড. চন্দন দেববর্মা সহ অন্যান্য আধিকারিকরা। হাসপাতালের বিভিন্ন সমস্যার কথা শুনে মুখ্যমন্ত্রী অতিসত্বর সমস্যা গুলো নিরসনের আশ্বাস প্রদান করেন। ২৬ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৫০ ইউনিট রক্ত সংরক্ষণ রাখার ক্ষমতা বিশিষ্ট এই ব্লাড সেন্টারের উদ্বোধনের ফলে উপকৃত হবেন এলাকার ১ লক্ষ ৭০ হাজার মানুষ।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য