Thursday, May 30, 2024
বাড়িখেলাটটেনহ্যামকে গুঁড়িয়ে ক্ষীণ আশা বাঁচিয়ে রাখল লিভারপুল

টটেনহ্যামকে গুঁড়িয়ে ক্ষীণ আশা বাঁচিয়ে রাখল লিভারপুল

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ৬ মে: অ্যানফিল্ডে রোববার প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে ৪-২ গোলে জিতেছে স্বাগতিকরা। এই জয়ে লিভারপুলের শিরোপা জয়ের আশা কাগজে-কলমে এখনও টিকে থাকল।মোহামেদ সালাহ ও অ্যান্ডি রবার্টসনের গোলে প্রথমার্ধেই নিয়ন্ত্রণ নেয় ‘অল রেড’ নামে পরিচিত দলটি। দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম ১৫ মিনিটে তাদের পরের দুটি গোল করেন কোডি হাকপো ও হার্ভি এলিয়ট। পরে টটেনহ্যামের গোল দুটি করেন রিশার্লিসন ও সন হিউং-মিন।   গত সেপ্টেম্বরে টটেনহ্যামের মাঠেই মৌসুমে প্রথম হারের স্বাদ পেয়েছিল লিভারপুল। শেষ মুহূর্তের গোলে সেদিন ২-১ ব্যবধানে জিতেছিল টটেনহ্যাম। দারুণ পারফরম্যান্স উপহার দিয়েই তার প্রতিশোধ নিল ক্লপের দল।৩৬ ম্যাচে ২৩ জয় ও ৯ ড্রয়ে ৭৮ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে লিভারপুল। এক ম্যাচ কম খেলা ম্যানচেস্টার সিটি ৮২ পয়েন্ট নিয়ে আছে দুইয়ে।

লিভারপুলের সমান ৩৬ ম্যাচে ৮৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আর্সেনাল।গত দুই রাউন্ডে একটি হার ও ড্রয়ের পর, জয়ের পথে ফিরতে মরিয়া লিভারপুল নবম মিনিটে মুহূর্তের ব্যবধানে নিশ্চিত দুটি সুযোগ পায়। তবে, সালাহর শট গোলরক্ষক রুখে দেওয়ার পর এলিয়টের প্রচেষ্টাও গোললাইনের সামনে থেকে ব্যর্থ করে দেন ডিফেন্ডার ক্রিস্তিয়ান রোমেরো।সালাহকে অবশ্য বেশিক্ষণ আটকে রাখতে পারেনি সফরকারীরা। ষোড়শ মিনিটে বাঁ দিক থেকে দূরের পোস্টে দারুণ মাপা ক্রস বাড়ান হাকপো, আর লাফিয়ে নেওয়া হেডে কাছের পোস্ট দিয়ে বল জালে পাঠান মিশরের তারকা স্ট্রাইকার।

এবারের লিগে সালাহার গোল হলো ৩০ ম্যাচে ১৮টি।প্রতিপক্ষের আক্রমণের তোড়ে একেবারেই সুবিধা করতে পারছিল না টটেনহ্যাম। শুরু থেকে দুর্দান্ত খেলা সালাহ ৩৪তম মিনিটে আবারও পরিষ্কার সুযোগ পান, কিন্তু চ্যালেঞ্জের মুখে বল পায়ে রাখতে পারেননি তিনি।ম্যাচের শুরুতে সেই যে একবার আক্রমণে উঠেছিল টটেনহ্যাম, তারপর আর কোনো শটই নিতে পারেনি তারা। সেখানে প্রথম ৪৫ মিনিটেই গোলের জন্য ১৪টি শট নিয়ে সাতটি লক্ষ্যে রাখে লিভারপুল।

লক্ষ্যে নেওয়া সপ্তম শটে দ্বিতীয় গোলের দেখাও পেয়ে যায় তারা। সালাহর প্রচেষ্টা গোলরক্ষক ঠেকিয়ে দিলেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি, ফিরতি বল পেয়ে কাছ থেকে জালে পাঠান রবার্টসন।দ্বিতীয়ার্ধের পঞ্চম মিনিটে ব্যবধান আরও বাড়িয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় লিভারপুল। এলিয়টের ক্রসে হেডে গোলটি করেন ডাচ ফরোয়ার্ড হাকপো।৯ মিনিট পর অসাধারণ নৈপুণ্যে এলিয়ট নিজেই গোলের দেখা পান। সালাহর পাস ধরে ডি-বক্সের বাইরে থেকে বাঁকানো শটে ঠিকানা খুঁজে নেন ২১ বছর বছর বয়সী ইংলিশ মিডফিল্ডার।

লড়াই থেকে একরকম ছিটকে পড়ার পরই যেন জেগে ওঠে টটেনহ্যাম। ৭২তম মিনিটে ব্যবধান কমানো গোলের দেখাও পায় তারা। ব্রেনান জনসনের ক্রস ডি-বক্সে পেয়ে ডান পায়ের শটে বল জালে পাঠান মিনিট দশে আগে বদলি নামা রিশার্লিসন।পাঁচ মিনিট পর আবারও লিভারপুলের জালে বল। এবার রিশার্লিসনের পাস থেকে গোলটি করেন সন হিউং-মিন। অ্যানফিল্ডে এতক্ষণের একতরফা আবহ একটু হলেও পাল্টাতে শুরু করে।

দ্বিতীয় গোল পেয়ে আরও আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠে টটেনহ্যাম। ৮৭তম মিনিটে প্রতিপক্ষের আক্রমণ রুখে দিয়ে পাল্টা আক্রমণ শাণায় তারা। ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রিশার্লিসনের শট রুখে দুই গোলের ব্যবধান ধরে রাখেন আলিসন।২০০৪ সালের পর এই প্রথম প্রিমিয়ার লিগে টানা চার ম্যাচে হারল টটেনহ্যাম। এতে দলটির শীর্ষ চারে থেকে আসর শেষ করার আশা আরও ফিকে হয়ে গেল।৩৫ ম্যাচে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম স্থানে আছে তারা। তাদের চেয়ে ৭ পয়েন্ট বেশি নিয়ে চার নম্বরে ৩৬ ম্যাচ খেলা অ্যাস্টন ভিলা।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য