Wednesday, May 29, 2024
বাড়িখেলাপাঁচ গোল হজমের পর মারাদোনা-রোনালদিনিয়োর উদাহরণ দিলেন চেলসি কোচ

পাঁচ গোল হজমের পর মারাদোনা-রোনালদিনিয়োর উদাহরণ দিলেন চেলসি কোচ

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ২৪ এপ্রিল: ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে মঙ্গলবার আর্সেনারের মাঠে ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত হয় চেলসি। এমনিতেই চরম হতাশার মৌসুম কাটছে তাদের, পয়েন্ট তালিকায় অবস্থানও নাজুক। এই বড় পরাজয় দুঃসময়কেই দীর্ঘায়িত করল আরেকটু। ম্যাচের চতুর্থ মিনিটেই পিছিয়ে পড়ে চেলসি। প্রথমার্ধে গোল ছিল ওই একটিই। দ্বিতীয়ার্ধে প্রথম ১২ মিনিটের মধ্যে তার গোল হজম করে আরও দুটি। এরপরই চেলসি রণে ভঙ্গ দিয়ে ফেলে, ম্যাচ শেষে বললেন কোচ পচেত্তিনো।“মাঝবিরতিতে আমরা কথা বলেছি যে, কীভাবে একটি ম্যাচ এভাবে শুরু করা উচিত নয়। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে আবার আমরা একইরকম বাজেভাবে শুরু করি। আমরা দুই গোল হজম করে ফেলি এবং এই পর্যায়ে দল হাল ছেড়ে দেয়। আমরা আর ম্যাচেই ছিলাম না।” 

তিন গোল হজমের পর যদি হাল ছেড়ে দেয় কোনো দল, তাদের মানসিকতাও তখন প্রশ্নবিদ্ধ হয়। তবে দলকে সেই অপবাদও দিচ্ছেন না পচেত্তিনো। চেলসি কোচ এটিকে বলছেন ফুটবলের স্বাভাবিক ঘটনা, যা অনেক বড় ফুটবলারদের ক্ষেত্রেও হয়েছে।  “নাহ, এটা মানসিকতার ব্যাপার নয়। আমিও ফুটবল খেলেছি এবং এরক পরিস্থিতিতে অনেক বড় ফুটবলার ও অভিজ্ঞ ফুটবলারদের দেখেছি। মারাদোনা, রোনালদিনিয়ো, বাতিস্তুতার সঙ্গে খেলেছি। মৌসুমের কোনো একটা পর্যায়ে এই ধরনের ব্যাপার ঘটতে পারে এবং মনে হতে পারে, ‘হ্যাঁ, ওরা পারফরম্যান্সের চূড়ায় আছ, কিছু করার নেই।” “কখনও কখনও প্রতিপক্ষের পারফরম্যান্সের মাত্রা, নিজেদের প্রাণশক্তির ঘাটতি, কোনো কিছুই পক্ষে না পাওয়া, এসব কারণে ম্যাচে ইতিবাচক কোনোকিছুই খুঁজে পাওয়া যায় না এবং তখন এই ধরনের ফলাফল হয়ে থাকে। অন্য দলগুলির ক্ষেত্রেও এরকম হয় এবং সামনেও হবে।”

দলবদলের বাজারে কোটি কোটি ডলার খরচ করলেও বয়স ও অভিজ্ঞতার দিক থেকে চেলসি এখনও বেশ তরুণ। প্রিমিয়ার লিগের এবার দ্বিতীয় সর্বকনিষ্ঠ স্কোয়াড তাদের। সেটিও আরও একবার মনে করিয়ে দিলেন পচেত্তিনো। “ফুটবলারদের দোষ দিতে পারি না আমরা, ওদেরকে দায় দেব না আমি। প্রিমিয়ার লিগ জয়ের লড়াইয়ে থাকা দলের বিপক্ষে মাঠে নেমে এরকম পরিস্থিতির শিকার হওয়ার জন্য তরুণ এক দলকে কাঠগড়ায় দাঁড় করাব না আমি।” “অবশ্যই আমরা হতাশ নিজেদের পারফরম্যান্সে। তবে এমন কিছু বলব না, আমাদের দল, ফুটবলার ও স্কোয়াডের জন্য যা অন্যায্য।” এই মৌসুমে কখনও কখনও দু-এক ম্যাচে জ্বলে উঠতে পেরেছে চেলসি। তবে সেই ধারাবাহিকতা তারা ধরে রাখতে পারেনি। সেটি তুলে ধরেই উন্নতির তাগিদ জানালেন পচেত্তিনোও। “অসাধারণ পারফরম্যান্স করার সামর্থ্য আমাদের আছে, তিন দিন পর আবার উল্টোটা দেখাই আমরা। যখন আমাদের বাজে দিন যায়, তা খুবই বাজে হয়। যখন আমরা ভালো খেলি, যে কোনো কিছুই করতে পারি। এটা অন্য ব্যাপার যে, ভবিষ্যতের জন্য নিজেদের ধারাবাহিকতা বাড়াতে হবে আমাদের।”

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য