Friday, May 31, 2024
বাড়িখেলামেসির বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ, মায়ামি কোচ বললেন, ‘গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার ঘটেছে মাঠেই’

মেসির বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ, মায়ামি কোচ বললেন, ‘গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার ঘটেছে মাঠেই’

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক,৬ এপ্রিল: গত বুধবার কনক্যাকাফ চ্যাম্পিয়ন্স কাপে সিএফ মন্তেরেইয়ের বিপক্ষে ম্যাচটিতে না খেললেও মাঠে ছিলেন মেসি। সূত্রের বরাত দিয়ে ইএসপিএন জানায়, ম্যাচ শেষে মন্তেরেইরে ড্রেসিং রুমের দিকে ক্ষুব্ধ হয়ে তেড়ে গিয়ে এক পর্যায়ে চিৎকার করতে দেখা গেছে মেসিকে। ম্যাচটিতে ২-১ গোলে হেরে যায় মায়ামি। পরে এটা নিয়ে মন্তেরেই ক্লাবের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক অভিযোগও করা হয়েছে বলে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে উঠে এসেছে। মেক্সিকোর ক্লাবটির অভিযোগপত্রে মেসির পাশাপাশি জর্দি আলবা ও লুইস সুয়ারেসের নাম থাকার খবরও এসেছে সংবাদমাধ্যমে। ঘটনার পেছনের কারণ অস্পষ্ট বলে জানায় ইএসপিএন।

 তবে তাদের প্রতিবেদনেই বলা হয়েছে, ম্যাচের আগে মন্তেরেই কোচের একটি মন্তব্যের সঙ্গে ঘটনার যোগসূত্র থাকতে পারে। মন্তেরেইয়ের আর্জেন্টাইন কোচ ফের্নান্তো ওর্তিস ম্যাচের আগে তার দলকে উদ্বুদ্ধ করার জন্য বলেছিলেন যে, মায়ামি আর দশটি ক্লাবের মতোই এবং মেসিও সবার মতোই একজন খেলোয়াড়। পাশাপাশি তিনি এটিও বলেছিলেন, মেসির মতো বড় তারকাদের ক্ষেত্রে রেফারির সিদ্ধান্ত তার ও ওই ক্লাবের পক্ষে প্রভাবিত হয়। ম্যাচ শেষে মেসি ও তার কয়েকজন সতীর্থ মূলত মন্তেরেই কোচের দিকে তেড়ে গিয়েছিলেন বলে খবর এসেছে কিছু সংবাদমাধ্যমে। কলোরোডোর বিপক্ষে ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে শুক্রবার মায়ামির সহকারী কোচ হাভিয়ের মোরালেস অবশ্য সেই অভিযোগ পাত্তা দিলেন না খুব একটা। 

“সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার মাঠেই ঘটেছে। কাপ ম্যাচ ছিল এটি, আমরা জানি যে এসব ম্যাচ কেমন হয়, কতটা তীব্র তাড়না নিয়ে খেলা হয়… তবে সত্যি বলতে, সেদিনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশগুলো ছিল মাঠেই।” “প্রবল এক প্রতিপক্ষের সঙ্গে লড়েছি আমরা, দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমরা ১০ জনের দলে পরিণত হই এবং প্রত্যাশিত ফল পাইনি। এখন আমাদের মন্তেরেইয়ে (পরের লেগে) যেতে হবে এবং পরের ধাপে যাওয়ার জন্য সম্ভাব্য সেরা ফল আদায় করতে হবে।” মন্তেরেই কোচের মন্তব্যকে ঘিরে ওই ঘটনা ঘটেছে কি না, এরকম প্রশ্নে মায়ামি সহকারী কোচের উত্তর, “আমরা জানি যে ফুটবলবিশ্বে ব্যাপারটি এরকমই। সব ধরনের মতামত এখানে দেখা যায়। যে যা বলছে, সেসবের দায় তাদেরই।” মেসি কবে মাঠে ফিরবেন, এ নিয়েও কৌতূহলের শেষ নেই। গত ১৩ মার্চ ন্যাশভিলের বিপক্ষে ম্যাচে ৫০ মিনিট খেলে তিনি মাঠ ছাড়েন হ্যামস্ট্রিংয়ে টান লাগায়। তাকে ছাড়া খেলতে নেমে গত তিন সপ্তাহে চার ম্যাচের তিনটিতেই জিততে পারেনি মায়ামি। কলোরাডো র‌্যাপিডের বিপক্ষে শনিবার তাকে পাওয়া যাবে কি না, তা নিশ্চিত করে জানাননি সহকারী কোচ। 

“প্রতি দিনই সে একটু একটু করে ভালো হচ্ছে। প্রতিটি দিনই তার অবস্থা পর্যালোচনা করা হচ্ছে। আমরা আজকে তার অবস্থা দেখব, এরপর শনিবার আবার দেখে সিদ্ধান্ত নেব।” “মাঠে ফিজিওর সঙ্গে প্রতিদিনই কাজ করছে সে। কখনও কখনও তার অবস্থা বুজে সেটা অনুযায়ী কাজ করা হচ্ছে। সম্প্রতি যে অনুশীলন সেশনগুলোতে অংশ নিয়েছে এবং ভালো অনুভব করছে।” শনিবার কলোরাডোর বিপক্ষে ম্যাচের পর বুধবার চ্যাম্পিয়ন্স কাপের পরের লেগে মন্তেরেইয়ের মুখোমুখি হবে মায়ামি। মোরালেস জানালেন, কলোরাডোর বিপক্ষে মেসিকে কিছুটা সময় হলেও খেলাতে চান তারা। “আমরা দেখব ট্রেনিংয়ে সে কেমন অনুভব করে। সে যদি ভালো বোধ করে, আমি নিশ্চিত তাতা (কোচ জেরার্দো মার্তিনো) ভরসা রাখবে তার ওপর, সেটা ১০ মিনিট হোক বা ১৫ মিনিট কিংবা ৪৫ মিনিট। আমরা তাকে পেতে চাই।” “তার জন্য যেটা সবচেয়ে ভালো, সেটাই করব আমরা। এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। কালকের (শনিবার) ম্যাচের অবস্থা বুঝে আমরা একটা সিদ্ধান্ত নেব, এরপর দেখব বুধবার কী হয়।”

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য