Saturday, June 15, 2024
বাড়িজাতীয়ভারী বৃষ্টি ও তুষারপাতের জেরে বেহাল অবস্থা জম্মু ও কাশ্মীরের

ভারী বৃষ্টি ও তুষারপাতের জেরে বেহাল অবস্থা জম্মু ও কাশ্মীরের

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ৩০ এপ্রিল : ভারী বৃষ্টি ও তুষারপাতের জেরে বেহাল অবস্থা জম্মু ও কাশ্মীরের । টানা বৃষ্টির জেরে উপত্যকার একাধিক জায়গায় ভূমিধসের খবর পাওয়া গিয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অসংখ্য বাড়ি। প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা বারামুলা, কিশতওয়াড় এবং রিয়াসি জেলার। ভারী বর্ষণে কিশতওয়াড় জেলায় ১২টি বাড়ি ভেঙে পড়েছে। কুপওয়াড়ার কিছু অংশে হড়পা বান দেখা দিয়েছে। ভেসে গিয়েছে বহু ঘর-বাড়ি-রাস্তা। প্রাকৃতিক দুর্যোগের জেরে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে স্কুলগুলিতে।


প্রশাসন সূত্রে জানা যাচ্ছে, টানা বৃষ্টির জেরে জলস্তর ব্যাপক বেড়েছে নদীগুলির। মঙ্গলবারও ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি রয়েছে কাশ্মীরে। এরই মাঝে উপত্যকার একাধিক জায়গায় ভূমিধসের খবর পাওয়া গিয়েছে। বহু জায়গায় বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা। কিশতওয়াড় জেলায় জারি করে হয়েছে লাল সতর্কতা। এছাড়া ডোডা, রামবন ও রিয়াসির গুলাবগড়ে হড়পা বানে ৪ জন ভেসে গিয়েছেন বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। যার মধ্যে ২ জনের দেহ উদ্ধার হয়েছে। পাশাপাশি ভূমিধসের জেরে বাড়ি ভেঙে ও বাস খাদে পড়ে গত ২ দিনে ১২ শিশু-সহ ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।


রামবান জেলার জম্মু-শ্রীনগর জাতীয় সড়কের প্রায় ডজনখানেক জায়গায় ভূমিধসের ঘটনা ঘটেছে। যার জেরে বন্ধ হয়ে গিয়েছে যান চলাচল। ধসের জেরে বন্ধ হয়েছে পুঞ্চ হয়ে কাশ্মীরের সাথে সংযোগকারী মুঘল রোড। পুঞ্চের মান্ডি এলাকাতেই ধসের জেরে ভেঙে পড়েছে বহু বাড়ি। একই সঙ্গে গুলমার্গসহ কাশ্মীরের অধিকাংশ পাহাড় বরফে ঢাকা পড়েছে। উত্তর ও মধ্য কাশ্মীরে তুষার ধসের আশঙ্কা বেড়েছে। সোমবার বিকেলে সোনমার্গে তুষারধসের ঘটনা ঘটে। তবে ওই জঙ্গল বেষ্টিত হওয়ায় কোনও প্রাণহানি হয়নি। এদিকে হাওয়া অফিস জানিয়েছে, কাশ্মীর, হিমাচল প্রদেশ ও উত্তরাখণ্ডে মঙ্গলবার বজ্রপাতের সঙ্গে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত ও তুষারপাত হবে।


তবে উত্তরে যখন প্রবল বৃষ্টি ও তুষারপাতে জনজীবন বিপর্যস্ত তখন মধ্য ও পূর্ব ভারতে গরমের তীব্রতা আরও বাড়বে বলে জানিয়েছে আইএমডি। গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে ৩ দিন, ওড়িশায় এবং বিহারে আগামী ২ দিন জন্য তাপপ্রবাহের লাল সতর্কতা জারি হয়েছে। এছাড়া ঝাড়খণ্ড, তেলেঙ্গানা, কর্নাটকের একাংশ এবং উপকূলীয় অন্ধ্রপ্রদেশে ৩-৪ দিনের জন্য কমলা সতর্কতা জারি হয়েছে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য