Sunday, June 23, 2024
বাড়িবিশ্ব সংবাদশিশু অধিকার লঙ্ঘন: অভিযুক্তদের তালিকায় ইসরায়েলি বাহিনী, যুক্ত হবে হামাসও

শিশু অধিকার লঙ্ঘন: অভিযুক্তদের তালিকায় ইসরায়েলি বাহিনী, যুক্ত হবে হামাসও

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ৮ জুন: বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে শিশুদের বিরুদ্ধে যারা সহিংসতা ঘটানোর জন্য দায়ী, তার তালিকায় ইসরায়েলি সশস্ত্র বাহিনীকে যুক্ত করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস।তবে মহাসচিবের এই সিদ্ধান্তকে ‘লজ্জাজনক’ বলে নিন্দা জানিয়েছেন জাতিসংঘে ইসরায়েলের রাষ্ট্রদূত গিলাদ এরদান।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি কূটনৈতিক সূত্র জানিয়েছে, হামাস ও ফিলিস্তিনি ইসলামিক জিহাদকেও এই তালিকাভুক্ত করা হবে।

এরদান বলেন, শুক্রবার তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে। শিশু ও সশস্ত্র সংঘাত নিয়ে গুতেরেসের ১৪ জুন জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে যে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার কথা রয়েছে, তাতে এই বৈশ্বিক তালিকা অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।তালিকাটিতে ছয় ধরনের কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে শিশু অধিকার লঙ্ঘনের কথা হয়েছে। এগুলো হল- হত্যা, পঙ্গুত্ব, যৌন সহিংসতা, অপহরণ, শিশুশ্রমিক নিয়োগ ও ব্যবহার, ত্রাণ সরবরাহে বাধা, এবং স্কুল ও হাসপাতালে হামলা।তবে ইসরায়েল, হামাস বা ফিলিস্তিনি ইসলামিক জিহাদের বিরুদ্ধে ঠিক কী ধরনের অভিযোগ রয়েছে তা এখনো পরিষ্কার না।ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েল কাটজ বলেছেন, এই সিদ্ধান্ত জাতিসংঘের সঙ্গে ইসরায়েলের সম্পর্কের ওপর প্রভাব ফেলবে।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যের বরাতে জাতিসংঘ জানায়, আট মাস ধরে চলা যুদ্ধে হামাসশাসিত এই ভূখণ্ডে কমপক্ষে ৭ হাজার ৭৯৭ শিশু নিহত হয়েছে। তবে গাজার সরকারি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, সব মিলিয়ে প্রায় সাড়ে ১৫ হাজার শিশু নিহত হয়েছে।অন্যদিকে ইসরায়েলের ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর দ্য চাইল্ডের মতে, ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে হামাসের হামলায় ৩৮ শিশু নিহত হয়েছে এবং জিম্মি হওয়া ২৫০ জনের মধ্যে ৪২ জন শিশু।জাতিসংঘের মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক বলেছেন, মহাসচিব গুতেরেসের চিফ অব স্টাফ শুক্রবার ইসরায়েলের দূত এরদানকে নতুন তালিকাভুক্ত দেশগুলোর বিষয়টি ফোন করে জানান।পরে এরদান সোশাল মিডিয়ায় এক ভিডিও বার্তায় তার প্রতিক্রিয়া জানান।

তিনি বলেন, “মহাসচিবের এই সিদ্ধান্তে আমি অত্যন্ত লজ্জিত ও মর্মাহত। ইসরায়েলের সেনাবাহিনী বিশ্বের সবচেয়ে নৈতিক সেনাবাহিনী, তাই এই অনৈতিক সিদ্ধান্ত কেবল সন্ত্রাসীদের সহায়তা করবে এবং হামাসকে উৎসাহিত করবে।”দুজারিক ভিডিওটির আংশিক প্রকাশকে ‘অগ্রহণযোগ্য’ বলেছেন।তিনি বলেছেন, “সত্যিই জাতিসংঘে আমার ২৪ বছরের অভিজ্ঞতায় এমন কিছু কখনও দেখিনি।”প্রতিবেদনটি তৈরি করেছেন গুতেরেসের শিশু ও সশস্ত্র সংঘাত বিষয়ক বিশেষ প্রতিনিধি ভার্জিনিয়া গাম্বা। প্রতিবেদনে অভিযুক্তদের তালিকা যুক্ত করার লক্ষ্য হল, শিশুদের সুরক্ষা ব্যবস্থা বাস্তবায়ন।

যারা শিশুদের সুরক্ষার জন্য ব্যবস্থা নিয়েছে এবং যারা ব্যবস্থা নেয়নি- এই দুই ভাগে তালিকাটি বিভক্ত।ইসরায়েলি রাষ্ট্রদূত গিলাদ এরদান বলেছেন, যারা শিশুদের সুরক্ষায় পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেয়নি, সেই তালিকায় ইসরাইলকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।জাতিসংঘের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, হামাসের সমর্থনকারীদের সঙ্গে যোগ দিয়ে জাতিসংঘ নিজেদের ইতিহাসে একটি কালো তালিকায় যুক্ত করেছে।গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে হামাসের হামলায় ১২০০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়। তারা ২৫০ জনেরও বেশি জনকে জিম্মিও করে নিয়ে যায়।

এরপর থেকে গাজায় ইসরায়েলের বোমা হামলায় অন্তত ৩৬ হাজার ৭৩১ জন নিহত হয়েছে বলে গত শুক্রবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। আরও হাজার হাজার মানুষ ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়ে মারা গেছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এছাড়া ২৩ লাখ জনসংখ্যার অধিকাংশই বাস্তুচ্যুত হয়েছে।শিশু ও সশস্ত্র সংঘাত বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ দূত ২০১৪ সালে গাজায় সংঘটিত যুদ্ধের সময় ইসরায়েল ও হামাসকে আইন লঙ্ঘনের তালিকায় যুক্ত করার সুপারিশ করেন।ইউক্রেনে শিশুদের হত্যা ও পঙ্গু করা, স্কুল ও হাসপাতালে হামলা এবং শিশুদের মানবঢাল হিসেবে ব্যবহারের অভিযোগে গত বছর তালিকায় যুক্ত করা হয় রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনীকে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য