Friday, August 19, 2022
বাড়িরাজ্যপ্রকাশিত হলো মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফল

প্রকাশিত হলো মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফল

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৬ জুলাই : ত্রিপুরা মধ্যশিক্ষা পর্ষদ পরিচালিত মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিকের ফলাফল ঘোষণা হয় বুধবার। মাধ্যমিকে পাশের হার ৮৬.১৮ শতাংশ এবং উচ্চমাধ্যমিকে পাশের হার ৯৪.৪৬ শতাংশ। এদিন ত্রিপুরা মধ্য শিক্ষা পর্ষদের কনফারেন্স হলে সাংবাদিক সম্মেলন করে ফলাফল ঘোষণা করেন পর্ষদ সভাপতি ডঃ ভবতোষ সাহা। করোনা অতি মারির কারণে এ বছর দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণী বোর্ডের দুটি ভাগে পরীক্ষা সংঘটিত হয়েছিল। টার্ম ওয়ান এবং টার্ম টু পরীক্ষা হয়। মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৪৩২৯৪ জন।

 উচ্চমাধ্যমিকের পরীক্ষার ছিল ২৮৯৩১ জন। এ বছর টি টি এ এ ডি সি ভুক্ত বিদ্যালয় গুলি থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী ছিল ১২,৫৭৮ জন। এর মধ্যে ১৮৯ জন পরীক্ষা দেয়নি। ফেল করেছে ২১৮৬ জন । পাশ করেছে ১০,২০৩ জন। অর্থাৎ পাশের হার ৮২.৩৬ শতাংশ। তাদের মধ্যে এ-১ পেয়েছে ৬১ জন এবং এ-টু পেয়েছে ৩৩২ জন। এছাড়া টি টি এ এ ডি সি ভুক্ত বিদ্যালয় গুলি থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় নথিভুক্ত পরীক্ষার্থী ছিল ৫,৯৭০ জন। এদের মধ্যে ৫৬ জন পরীক্ষা দেয়নি। ফেল করেছে ২৭০ জন। পাশ করেছে ৫,৬৪৪ জন। পাশের হার ৯৫.৪৩ শতাংশ। তাদের মধ্যে এ ওয়ান পেয়েছে ৩৪ জন এবং এ টু ১৮১ জন। ১০০ শতাংশ পাশ মাধ্যমিক স্কুলের সংখ্যা ১৯৭ টি এবং উচ্চমাধ্যমিকে ৮৫ টি। মাধ্যমিকে জেলাস্তরের সর্বচ্চ স্থানে রয়েছে পশ্চিম জেলা। পশ্চিম জেলায় পাশের হার ৯০.৭৫। সবচেয়ে সর্বনিম্ন পাশের হার ধোলাই জেলায়। ধলাই জেলায় পাশের হার ৮১.৮৭ শতাংশ। উচ্চ মাধ্যমিকে জেলা স্তরে সর্বোচ্চ পাশের হার দক্ষিণ ত্রিপুরা জেলায়। দক্ষিণ জেলা পাশ করেছে ৯৭.১৩ শতাংশ। আর উচ্চমাধ্যমিকে সর্বনিম্ন পাশের হার পশ্চিম জেলা। পশ্চিম জেলা পাশের হার ৯৪.৯২ শতাংশ। এবছর মাধ্যমিকে মোট ৩২ জন দিব্যাঙ্গন ছাত্র-ছাত্রী ও উচ্চ মাধ্যমিকে চব্বিশ জন দিব্যাঙ্গন ছাত্র-ছাত্রী নাম নথিভুক্ত করেছেন। আর সংশোধনাগার থেকে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিকে কোন পরীক্ষার্থী ছিল না বলে জানান তিনি।

এবছর মাধ্যমিকে ও উচ্চ মাধ্যমিকের মেধা তালিকা প্রকাশ করা হয়নি পর্ষদের পক্ষ থেকে। টার্ম টু পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের ফলাফল ভালো হয়েছে বলে জানান ত্রিপুরা মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সচিব দুলাল দে। পর্ষদ কার্যালয়ে ফলাফল প্রকাশের পর এই ফলাফল জানা যাবে ওয়েবসাইটের  মাধ্যমে। আগামী এক  সপ্তাহের  মধ্যে মার্কশিট প্রদান করা হবে বলে জানান তিনি। এছাড়া  আগামী বছর টার্ম ওয়ান  ও টার্ম  টু পরীক্ষা নেওয়া হবে না। চূড়ান্ত পরীক্ষা হবে এক সঙ্গে একবার। সি বি এস সি-র ধাঁচে সিলেবাস আগামী দুই এক দিনের মধ্যে পর্ষদের  ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে বলে জানান  সচিব দুলাল দে। তিনি আরো জানা আগামী বছর দুটি ভাগে পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে না। যেহেতু করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে , তাই একটি ভাগেই পরীক্ষা গ্রহণ করে ফলাফল অন্যান্য বছরের মত প্রকাশিত করা হবে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য