Tuesday, June 28, 2022
বাড়িরাজ্যবিজেপি'কে ত্রিপুরা থেকে উৎখাত করে ছাড়বে তৃণমূল কংগ্রেস : অভিষেক

বিজেপি’কে ত্রিপুরা থেকে উৎখাত করে ছাড়বে তৃণমূল কংগ্রেস : অভিষেক

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৪ জুন : ধমকে চমকে তৃণমূল কংগ্রেসকে রাজ্য ছাড়া করা যাবে না। যেহেতু ত্রিপুরায় তৃণমূল কংগ্রেস প্রবেশ করেছে, বিজেপিকে ত্রিপুরা থেকে উৎখাত করে ছাড়বে। ত্রিপুরার মানুষ আর দিল্লির রিমোট কন্ট্রোলে চলবে না। বিজেপির সাথে ই ডি এবং সি বি আই থাকতে পারে। কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসের সাথে আমজনতা রয়েছে। তাই ত্রিপুরায় গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে তৃণমূল কংগ্রেস বিজেপি’র কাছে মাথা নত করবে না। বিজেপির জেনে রাখা ভালো বিজেপি যদি কোভিড হয়, তাহলে ভ্যাকসিন তৃণমূল কংগ্রেস। তাই ত্রিপুরায় গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করবে তৃণমূল কংগ্রেস। সোমবার রাজধানীর গান্ধীঘাট এলাকা থেকে জিবি বাজার পর্যন্ত রোড শো করার পর বক্তব্য রাখতে গিয়ে একথা বললেন সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

জিবি বাজার সভা থেকে তিনি আরো বলেন, আগামী দিনে লড়াই হবে বিজেপি বনাম রাজ্যবাসীর। কারণ গণতন্ত্রের শেষ কথা শাসক বলে না। গণতন্ত্রের শেষ কথা বলে মানুষ। রাজ্যে কংগ্রেস, সি.পি.আই.এম এবং বি.জে.পি’কে মানুষ দেখে নিয়েছে। ত্রিপুরার মানুষ এখন তৃণমূল কংগ্রেসকে চাইছে। ঘরের দুয়ারে গুন্ডা নয়। ঘরের দুয়ারে সরকার চাইছে মানুষ। আর এর জন্য মানুষ প্রস্তুতি নিয়ে নিচ্ছে। আগামী সাত মাস পর রাজ্যে প্রতিষ্ঠিত হবে ঘরের দুয়ারে সরকার। কংগ্রেসের যে দুরবস্থা তাদের ভোট দিয়ে আর লাভ নেই। ভোট নষ্ট হবে। আর সি.পি.আই.এম রাজ্যকে ২৫ বছরে শেষ করে দিয়েছে। রাজ্যের মানুষ বহু প্রত্যাশা নিয়ে বিজিপি’কে প্রতিষ্ঠিত করেছিল। কিন্তু কোন প্রতিশ্রুতি পালন করছে না বর্তমান বিজেপি সরকারও। রাজ্য প্রতিষ্ঠিত হয়ে শুধু সন্ত্রাস করছে। বিজেপি হলো এমন একটি দল যারা ভাঙ্গা ডিভিডি মতো। মানুষ প্রতিশ্রুতি কানে শুনতে পায়, কিন্তু চোখে দেখতে পায় না। কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেস হল হাই পাওয়ার ডিভিডি।

 যেমন প্রতিশ্রুতি কানে শোনা যায়, তেমনি প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন চোখে দেখা যায়। পশ্চিমবঙ্গের যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়ে সরকারে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, সমস্ত প্রতিশ্রুতি পালন করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। দুয়ারের সরকার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে, তা পালন করবে তৃণমূল কংগ্রেস বলে জানান অভিষেক। আরো বলেন, রাজ্যের চিকিৎসা শিক্ষা সহ সার্বিক উন্নয়ন করা হবে। বর্তমান ডবল ইঞ্জিনের সরকারের আমলে চিকিৎসকেরা হাসপাতাল যেতে পারছেন না, আইনজীবী আদালতের যেতে পারছে না, পুলিশ আক্রান্ত হচ্ছে। আর ডাবল ইঞ্জিনের সরকারের আমলে এইগুলি কোন অসম্ভব বিষয় নয়। গোয়া, ত্রিপুরা, গুজরাট, রাজস্থান সহ ডাবল ইঞ্জিন প্রতিষ্ঠিত রাজ্যগুলিতে এ ধরনের বিষয় প্রত্যক্ষ করা যায়। কারণ দিল্লিতে এক চোর বসে আছে, অপর চোর বসে আছে রাজ্যে বলেন অভিষেক। আসন্ন উপনির্বাচনের প্রার্থীদের ভোট দিয়ে সরাসরি তৃণমূল কংগ্রেসের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সমর্থন করার জন্য আহ্বান জানান অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। কারণ ২৩ জুনের নির্বাচন আগামী ২৩ -এর রাস্তা পরিষ্কার করবে। নতুন সূর্য উদয় হবে। যত দিন যাচ্ছে বিজেপি তত ভয়-ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে পড়ছে। তাই মাঠে ময়দানে থাকতে কর্মীদের বলেন। তৃণমূল কংগ্রেস রাজ্যের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও লড়বে বলে মঞ্চ থেকে জানান অভিষেক। এদিন কার্যত ভোট ময়দান গরম করতে তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় নেতৃত্ব অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যে এসেছেন। কিন্তু উপনির্বাচন ঘোষণা হওয়ার পর তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃত্বরা বলেছিলেন আসন্ন উপনির্বাচনে দলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় না আসলেও শীর্ষস্তরের নেতৃত্বরা রাজ্যে আসবেন। কিন্তু নির্বাচনের আর মাত্র এক সপ্তাহ রয়েছে। কবে আসবেন বাকী শীর্ষ নেতৃত্বরা, সেটা বড় প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে এদিন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলে গেছেন আগামী ২০ জুন তিনি রাজ্যের বাকি দুটি বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনের প্রচারে আসবেন। এদিন কয়েক শতাধিক কর্মী সমর্থক রোড শো -তে অংশ গ্রহণ করেন।

উপনির্বাচনের জন্য প্রচারে এসে ২০২৩ -এর বিধানসভা নির্বাচনের দামামা বাজালেন সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্য থেকে বিজেপি উৎখাত করার করার আওয়াজ তোলেন তিনি। দীর্ঘ পাঁচ মাস পর রাজ্যে ভোট প্রচারে এসেছেন তিনি। কিন্তু পাঁচ মাস আগে পুর নির্বাচনে সময় ভোট প্রচারে এসে বলেছিলেন ২০২৩ -এর নির্বাচনের আগে ত্রিপুরায় ঘাটি করে বসে থাকবেন। কিন্তু দেখা গেল দীর্ঘ পাঁচ মাস পর উপনির্বাচনের প্রাক-মুহূর্তের রাজ্যে এসেছেন তিনি। এদিন আয়োজিত জনসভায় এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সুস্মিতা দেব, প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি সুবল ভৌমিক, রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতৃত্ব রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অন্যান্য নেতৃত্ব।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য