Wednesday, June 29, 2022
বাড়িরাজ্যউপনির্বাচনের ঝড় তুলেছে সবকটি রাজনৈতিক দল

উপনির্বাচনের ঝড় তুলেছে সবকটি রাজনৈতিক দল

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১০ জুন : আর ১২ দিন পর রাজ্যের চারটি আসনে উপনির্বাচন। সবকটি রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা ইতিমধ্যে প্রচার চালাচ্ছেন। শুক্রবার ৮ টাউন বড়দোয়ালী বিধানসভা কেন্দ্রের সমস্ত রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা প্রচার চালান। এদিন সেন্ট্রাল রোডে বাড়ি বাড়ি প্রচার চালান বিজেপি প্রার্থী ডাঃ মানিক সাহা। দলীয় কর্মীদের নিয়ে এই প্রচার চালান তিনি। সঙ্গে ছিলেন মন্ত্রী রাম প্রসাদ পাল, বিধায়িকা কল্যাণী রায় সহ অন্যান্যরা।

 সব বয়সের ভোটাদের সঙ্গে কথা বলেন বিজেপি প্রার্থী। তাদের হাতে তুলে দেন রাজ্য সরকারের উন্নয়ন মূলক কাজের লিফলেট। বিজেপি –র বাড়ি বাড়ি প্রচারে মহিলা কার্যকরতাদের উপস্থিতি ছিল নজর কাড়া। বিজেপি প্রার্থী ডাঃ মানিক সাহা বলেন জন্ম থেকেই আগরতলায় বেড়ে ওঠা। নতুন পুরান সকল মানুষের সঙ্গে কথা হচ্ছে। পুরনো মানুষদের সঙ্গে ফের একবার দেখা করার সুজোগ মিলছে।  নষ্টালজিক অনুভব করছেন বলে জানান। ভোটকে কেন্দ্র করে পরিচয় হওয়ার সুবাদে ভাল লাগছে বলে জানান তিনি। কোন মানুষ অভিযোগ জানায় নি বলে জানায় নি বলে জানান। তবে জলের সমস্যা নিয়ে কিছু বক্তব্য জানিয়েছেন। তা দেখবেন বলে জানান বিজেপি প্রার্থী ডাঃ মানিক সাহা। এদিকে ৬ আগরতলা বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ডাঃ অশোক সিনহা ৮ নং ওয়ার্ডের ৪৯ নাম্বার বুথের লাড্ডু চৌমুহনী বাজার এলাকায় বাড়ি বাড়ি প্রচার চালান। দলীয় কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে প্রচার চালান তিনি।

ছিলেন বিধায়ক সুধাংশু দাস সহ অন্যান্যরা। বিজেপি প্রার্থী ডাঃ অশোক সিনহা জানান ১০০ শতাংশ সাড়া পাচ্ছেন। মুল এজেন্ডা হচ্ছে উন্নয়ন। আর তার সাথে একসাথে কাজ করতে চায় জনগণ। নিজের জন্য নয়, অন্যের উন্নয়ন চাইছে মানুষ। আর্থিক উন্নয়ন ঘটলে বাকী উন্নয়ন নিজে থেকেই ঘটবে বলে জানান তিনি। বামফ্রন্ট মনোনীত ফরওয়ার্ড ব্লক প্রার্থী রঘুনাথ সরকার ৮ টাউন বড়দোয়ালী কেন্দ্রে প্রচার চালান । তিনি জানান সাড়া মিলছে। মানুষ চাইছে যাতে ভোট কেন্দ্র পর্যন্ত জেতে পারেন তা নিশ্চিত করতে। ২৯৯ টি প্রতিস্রুতি পূরণ না হওয়ায় মানুষ ক্ষুব্ধ। তাই মানুষ ভোটের মাধ্যমে তার জবাব দেবে বলে আশাবাদী তিনি। ৮ টাউন বড়দোয়ালী কেন্দ্রের কংগ্রেস প্রার্থী আশিস সাহা খোশ বাগান এলাকায় শুক্রবার বাড়ি বাড়ি প্রচার করেন। খোশ বাগান ও স্মৃতি মন্দির এলাকা কংগ্রেসি এলাকা হিসাবে চিহ্নিত। তাদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া রয়েছে। রয়েছে তাদের মধ্যে ক্ষোভও। বিশেষ করে ব্যবসায়ীদের স্বার্থ রক্ষা হচ্ছে না। ব্যবসা পরিচালনা করার ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতা দেখা দিয়েছে। সাধারন মানুষের জন্য নেই কোন উদ্যোগ বলে জানান কংগ্রেস প্রার্থী আশিস সাহা। ক্ষোভের প্রতিফলন এই উপ নির্বাচনের মাধ্যমে ঘটবে বলে আশাবাদী তিনি। চারটি আসনের উপ নির্বাচনের মোট ২২ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ ২৩ জুন।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য