Friday, May 20, 2022
বাড়িরাজ্যপ্রজাপিতা ব্রহ্মকুমারী বিশ্ব বিদ্যালয়ের ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে রজত জয়ন্তী উৎসব

প্রজাপিতা ব্রহ্মকুমারী বিশ্ব বিদ্যালয়ের ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে রজত জয়ন্তী উৎসব

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৭ মে : মানুষকে সঠিক দিশায় নিয়ে যেতে আগে নিজেকে চিনতে হয়, জানতে হয়। এটা সবচেয়ে বড় কঠিন কাজ। আর এটা প্রজাপিতা ব্রহ্মকুমারীতে থাকা বোনেরা সেই কাজটা সঠিক ভাবে পালন করতে পারেন। তাদের সঠিক দিশায় বহু মানুষ নিজেকে সঠিক দিশায় নিয়ে আসতে সফল হয়েছে।

শনিবার প্রজাপিতা ব্রহ্মাকুমারী ঈশ্বরীয় বিশ্ব বিদ্যালয়ের ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে দুইদিন ব্যাপী রজত জয়ন্তী উৎসবে বক্তব্য রেখে এমনটাই বলেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। ত্রিপুরা রাজ্যের প্রতিটি মানুষকে আগে বিদেশি মানসিকতার দিকে ঠেলে দেওয়া হয়েছিল। বর্তমানে রাজ্যের মানুষের চাল চরিত্র ও মানসিকতার ৬৫ শতাংশ পরিবর্তন হয়েছে। বর্তমানে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্যোগে একজন মানুষের জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত প্রকল্প চালু করা হয়েছে। রাজ্য সরকার আরও কিছু প্রকল্প চালু করেছে। ত্রিপুরা ছোট্ট রাজ্য। একটা সময় ত্রিপুরাকে কেউই চিনত না। বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কারনে ত্রিপুরাকে সকলে চিনে।

উত্তর-পূর্বাঞ্চলকে নতুন ইঞ্জিন বলা হয় বর্তমানে। নরেন্দ্র মোদী গুজরাটকে যে সম্মান করেন ত্রিপুরা রাজ্যকেও সেই সম্মান করেন। মুখ্যমন্ত্রী এইদিন আরও বলেন কাজ সকলে করতে জানে। কিন্তু সময়ের সাথে কাজ করতে অনেকে জানে না। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সময়ের কাজ সময়ে শেষ করেন। যেই কাজ নরেন্দ্র মোদী হাতে নেন সেই কাজ তিনি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করেন। ভারত আগে এই ভাবে কাজ হতে দেখেনি  আগে থেকে এই ভাবে কাজ হতে দেখলে এতদিনে ভারত বিশ্ব গুরু হয়ে যেত। আগে নির্বাচন আসতো নির্বাচন যেত। কোন একটা কাজ শুরু হলে সেই কাজ চলতেই থাকে। ধীরে ধীরে মানুষ সেই কাজের কথা ভুলে যেত। বর্তমানে মানুষের মধ্যে বিশ্বাস ফিরে এসেছে। প্রধানমন্ত্রী ২০২৪ সালের ডিসেম্বর মাসের মধ্যে দেশের প্রতিটি বাড়িতে বিশুদ্ধ পানীয় জল পৌঁছে দেওয়ার কথা বলেছেন। সেই লক্ষ্যে কাজ শুরু হয়ে গেছে। ত্রিপুরা রাজ্যেও সেই কাজ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। পজেটিভিটি মানসিকতার সাথে কাজ করলে সফলতা নিশ্চিত বলেও অভিমত ব্যক্ত করেন মুখ্যমন্ত্রী। এইদিনের অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন উপাধ্যক্ষ বিশ্ববন্ধু সেন, বিধায়ক রেবতী মোহন দাস, বিধায়ক ডাঃ দিলীপ দাস, আগরতলা পুর নিগমের মেয়র দীপক মজুমদার সহ অন্যান্যরা।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য