Saturday, June 15, 2024
বাড়িরাজ্যভাড়াটিয়া ঘর থেকে উদ্ধার মৃতদেহ

ভাড়াটিয়া ঘর থেকে উদ্ধার মৃতদেহ

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৩ জুন : স্বামী বাড়িতে ফিরতে দেরি হওয়ায় প্রতিদিন স্বামীকে মারধর করতো স্ত্রী। কিন্তু রবিবার রাতে স্বামী বাড়ি না ফেরায় আত্মহত্যার পথ বেছে নিল তরুণী গৃহবধূর। ঘটনা রাজধানীর শিবনগর এলাকায়। গৃহবধূর বাড়ি বাংলাদেশ।

 গৃহবধুর নাম পায়েল বনিক (২১)। এবং মৃত গৃহবধূর স্বামীর নাম অনিক বনিক। সে একটি জুয়েলারি দোকানে কর্মরত। মৃত গৃহবধূর স্বামী অনিক বণিকের কাছ থেকে জানা যায়, দীর্ঘ ১০ বছর ধরে সাহা বাড়ির বাড়িতে ভাড়া রয়েছেন । গত ছয় বছর আগে সে বিয়ে করেছিল পায়েলকে। তাদের দেড় বছরের একটি শিশু সন্তানও রয়েছে। প্রতিদিন বাড়িতে ফিরতে অনিকের দেরি হতো বলে স্ত্রী তাকে মারধর করতো। রবিবার অনিক বাড়িতে ফিরেনি। তার নিকটবর্তী এক আত্মীয়কে নিয়ে আই এল এস হাসপাতাল থেকে চিকিৎসার জন্য আইএলএস হাসপাতাল যায়। সোমবার সকালে বাড়ি ফিরে দেখে ঘরের দরজায় বসে তার শিশুটি কাঁদছে। ঘরে প্রবেশ করে দেখে স্ত্রীর ঝুলন্ত দেহ। তবে অনিকের বক্তব্য তার স্ত্রীর বাপের বাড়ি বিশালগড়ে।

 কিন্তু বাড়ির অন্য ভাড়াটিয়া জানান, গৃহবধূ পায়েলের বাড়ি বাংলাদেশে। তবে আত্মহত্যা নাকি খুন সেটা কেউ বুঝে উঠতে পারছে না। কারণ বাড়ির অন্যান্য ভাড়াটিয়ার সাথে তাদের তেমন মেলবন্ধন ছিল না। সোমবার সকালে অনিক যখন তার সন্তানকে নিয়ে ঘর থেকে বের হয়ে যায় তখনও সে বাড়ির মালিক এবং অন্যান্য ভাড়াটিয়াকে কিছু জানায় নি। তবে পারিবারিক ঝামেলা চলত সেটা স্বীকার করেছেন বাড়ির অন্যান্য ভাড়াটিয়া। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পূর্ব আগরতলা থানার পুলিশ। পুলিশ মৃত দেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য