Sunday, June 23, 2024
বাড়িরাজ্যঘূর্ণিঝড় পরবর্তী বিদ্যুৎ পরিষেবা অক্ষুন্ন রাখতে জরুরী বৈঠক করলেন বিদ্যুৎ সচিব

ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী বিদ্যুৎ পরিষেবা অক্ষুন্ন রাখতে জরুরী বৈঠক করলেন বিদ্যুৎ সচিব

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৬ মে : আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী ঘূর্ণিঝড় রেমাল রবিবার রাত থেকেই তাণ্ডব চালাতে পারে। ত্রিপুরায় এই পরিস্থিতিতে রাজ্যের বিদ্যুৎ ব্যবস্থায় যাতে বড় বেশি বিপর্যয় নেমে না আসে এবং সোমবার সকালের মধ্যেই যেন তা মেরামত করে ফেলা যায় এজন্য রবিবার ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে জরুরী বৈঠক করেছেন বিদ্যুৎ সচিব অভিষেক সিং (আইএএস)। আজ বিকালে ত্রিপুরা রাজ্য বিদ্যুৎ নিগম লিমিটেডের সমস্ত এডিশনাল জেনারেল ম্যানেজার এবং ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজারদের ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সচিব নির্দেশ দিয়েছেন, প্রত্যেকেই যেন নিজ নিজ জেলা, মহকুমা কিংবা বিভাগীয় দপ্তরে হাজির থাকেন।

ঝড়ের তান্ডবে বিদ্যুতের তার কিংবা অন্যান্য কোন ক্ষেত্র বিপর্যস্ত হলে এতে যেন মানুষের কোন ক্ষতি না হয়, সেদিকে নজর রাখার জন্যও তিনি নির্দেশ দিয়েছেন। পাশাপাশি বিদ্যুৎ নিগমের টোল ফ্রি কল সেন্টার কে আরো বেশি সক্রিয় হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। এদিন বিদ্যুৎ নিগম এ উপস্থিত ছিলেন টিএসইসিএল এর ব্যবস্থাপক অধিকর্তা দেবাশীষ সরকার, জেনারেল ম্যানেজার স্বপন দেববর্মা, এডিশনাল জেনারেল ম্যানেজার  কনক  লাল দাস সমেত উচ্চ পদস্থ আধিকারিকেরা। পাশাপাশি বিভিন্ন সার্কেল এবং ডিভিশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিকরা এবং প্রকৌশলীরা এই ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দিয়েছেন। প্রত্যেকেই বিদ্যুৎ সচিব কে কথা দিয়েছেন, তারা বিদ্যুৎ পরিষেবা অক্ষুন্ন রাখার সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাবেন। পাশাপাশি কোথাও বিদ্যুৎ পরিষেবা বিপর্যস্ত হলে তার দ্রুত মেরামতের জন্য সমস্ত রকম প্রস্তুতি রাখার কথাও জানিয়েছেন তারা। এক্ষেত্রে রাজ্যের জনসাধারণকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য বিদ্যুৎ সচিব অনুরোধ জানিয়েছেন। উল্লেখ্য , আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় রেমাল রবিবার রাত ১১ টা থেকে ১টার মধ্যে ভারতের সাগরদ্বীপ এবং বাংলাদেশের খেপুপাড়া হয়ে মংলায় আছড়ে পড়তে পারে। এর প্রভাব পড়তে পারে ত্রিপুরায়। ঐ সময়ে ঝড়ের সর্বোচ্চ গতিবেগ হতে পারে ঘণ্টায় ১৩৫ কিলোমিটার।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য