Friday, May 31, 2024
বাড়িরাজ্যকালবৈশাখী ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি কৈলাশহরে

কালবৈশাখী ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি কৈলাশহরে

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৮ এপ্রিল : বুধবার রাতে কালবৈশাখী ঝড়ে কৈলাশহর মহকুমা বিভিন্ন অঞ্চলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এই ঝড় বৃষ্টির ফলে অনেকের বাড়ি ঘর ভেঙে যাওয়ার পাশাপাশি সব্জি ফসলেরও ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এ ব্যাপারে ঊনকোটি জেলার বরিস্ট আইনজীবী তথা বিজেপি নেতা সন্দীপ দেবরায় আঠারো এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকেলে কৈলাসহরে এক সাংবাদিক সম্মেলন করেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে আইনজীবী সন্দীপ দেবরায় জানান, বুধবারের হালকা ঝড় বৃষ্টিতে চন্ডীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের অধীনে বীরচন্দ্র নগর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় অনেক ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে। এখবর শোনার পর বৃহস্পতিবার দুপুরে সন্দীপ দেবরায়ের নেতৃত্বে এক প্রতিনিধি দল বীরচন্দ্র নগর এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের সাথে দেখা করে খোঁজ খবর নেন। সন্দীপ দেবরায় আরও বলেন যে, বীরচন্দ্র নগর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা ঠাকুর ধন রুদ্র পাল, অমর রুদ্র পাল, লব মালাকার, বিরজিত রুদ্র পাল, বিধান রুদ্র পাল, রুপ কান্ত রুদ্র পাল, বিজয় রুদ্র পাল, গোপাল দেব, সুভাষ সিনহা, অনিমেশ দেবনাথ সহ আরও অনেকেই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।

ঝড় বৃষ্টির ফলে বীরচন্দ্র নগর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার প্রায় কুড়িটি পরিবারের বাড়ি ঘর সম্পুর্ন রুপে নষ্ট হয়েছে। তাছাড়া বীরচন্দ্র নগর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় আরও নব্বই পরিবারের বাড়ি ঘর পুরোপুরি না নষ্ট হলেও বাড়ি ঘর অল্প বিস্তর নষ্ট হয়েছে। সব্জি ফসল সহ অন্যান্য আসবাবপত্র নষ্ট হয়েছে। প্রশাসনের সাথে কথা বলে খুব শীঘ্রই ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের একশো শতাংশ সাহায্য সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন সন্দীপ দেবরায়। এছাড়াও সন্দীপ বাবু জানান যে, চন্ডীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের অধীনে বীরচন্দ্র নগর গ্রাম পঞ্চায়েত ছাড়াও জলাই গ্রাম পঞ্চায়েত সহ আরও অন্যান্য এলাকায় ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বুধবার রাতে ঝড় বৃষ্টির ফলে ক্ষয়ক্ষতির ব্যাপারে কৈলাসহর মহকুমার মহকুমাশাসক প্রদীপ সরকারকে জিজ্ঞেস করলে মহকুমাশাসক প্রদীপ সরকারও স্বীকার করে জানান, কৈলাসহর মহকুমার চন্ডীপুর ব্লকের অধীনে বীরচন্দ্র নগর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় প্রায় ৭৭ পরিবারের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তাছাড়া গৌরনগর ব্লকের অধীনে জলাই গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় বাইশ পরিবারের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের সরকারি নিয়ম অনুযায়ী সহযোগিতা করা হবে বলে জানান মহকুমাশাসক প্রদীপ সরকার। এখন দেখার বিষয় কতটা সহযোগিতা করা হয়।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য