Friday, May 31, 2024
বাড়িরাজ্য২০ ঘণ্টা ধরে অন্ধকার ঊনকোটি জেলা হাসপাতাল, মুখ থুবড়ে পড়েছে সিটি স্ক্যান...

২০ ঘণ্টা ধরে অন্ধকার ঊনকোটি জেলা হাসপাতাল, মুখ থুবড়ে পড়েছে সিটি স্ক্যান এবং ডায়ালাইসিস পরিষেবার

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৮ এপ্রিল : বেসরকারি বিদ্যুৎ পরিষেবা প্রদানকারী সাই কম্পিউটার সংস্থার উদাসীনতার কারণে ২০ ঘণ্টা ধরে কৈলাসহরের ঊনকোটি জেলা হাসপাতাল অন্ধকার। বিদ্যুৎ না থাকার ফলে বুধবার সন্ধ্যা থেকে ঊনকোটি জেলা হাসপাতালে সিটি স্ক্যান পরিষেবা ও ডায়ালাইসিস পরিষেবা সম্পূর্ণরূপে বন্ধ।

 জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যা ছয়টা নাগাদ হালকা বাতাসের ফলেই ঊনকোটি জেলা হাসপাতালে বিদ্যুৎ চলে যায়। বিদ্যুৎ চলে যাবার পর হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য কর্মীরা সাই কম্পিউটার সংস্থার সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও ব্যর্থ হয়। পরবর্তী সময় সাই কম্পিউটার সংস্থাকে বিষয়টি জানালে তারা রাত দুইটার সময় এসে জেলা হাসপাতালে বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে সক্ষম হয়নি। পরে বৃহস্পতিবার বেলা ১২টা পর্যন্ত সাই কম্পিউটার সংস্থার তরফ থেকে হাসপাতালে কেউ আসেনি। বর্তমানে হাসপাতালে বিদ্যুৎ না থাকার ফলে সম্পূর্ণরূপে সিটি স্ক্যান ও ডায়ালাইসিস পরিষেবা বন্ধ। এদিন দুপুরে হাসপাতালে দেখা যায় দুজন রোগী ডায়ালাসিস রুমে দুটি বিছানায় শুয়ে আছেন। তারা শ্বাসকষ্টে কথা বলতে পারছেন না।

 কিছুক্ষণের মধ্যে যদি তাদের ডায়ালাসিস পরিষেবা না দেওয়া যায় তাহলে তাদের অবস্থা আরো সংকটাপন্ন হতে পারে। জানা গেছে জেলা হাসপাতালে জেনারেটর পরিষেবা থাকলেও সমস্ত হাসপাতালে জেনারেটরের মাধ্যমে বিদ্যুৎ পরিষেবা দেওয়া সম্ভব নয়। বুধবার রাতে বিদ্যুৎ চলে যাবার পর ঊনকোটি জেলা হাসপাতালের মেডিকেল সুপার ড: পূর্ণক্রিত দেববর্মা জরুরী ভিত্তিতে জেনারেটর চালানোর জন্য একশ লিটার ডিজেল এনেছেন বলে জানা গেছে। বৃহস্পতিবার হাসপাতালে গেলে রোগী ও রোগীর আত্মীয় স্বজনরা জানান, বুধবার রাত থেকে বিদ্যুৎ না থাকার ফলে প্রচন্ড গরমে তারা হাঁসফাঁস করছেন। গরমে অসুস্থ হয়ে পড়ছে বহু রোগী। আশ্চর্যের বিষয় জেলা হাসপাতালের মত একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বিদ্যুৎ ছিন্ন থাকার পরও বেসরকারি বিদ্যুৎ সংস্থার কর্মকর্তারা উদাসীন।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য