Wednesday, May 29, 2024
বাড়িরাজ্যভোটের দিন সকালে ঘর তালা দিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে ভোট দিতে যাওয়ার আহ্বান সুদীপের

ভোটের দিন সকালে ঘর তালা দিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে ভোট দিতে যাওয়ার আহ্বান সুদীপের

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১৭ এপ্রিল : সমাজ গঠনে ও রাজনীতিতে ভারতীয় জনতা পার্টির কোন অবদান নেই। আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে তারা যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তার মধ্যে কৃষক, বেকার, যুবকের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট কোন বিষয় নেই। তাই আগামী ১৯ ও ২৬ এপ্রিল সকাল-সকাল ঘরের দরজায় তালা ঝুলিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে বের হয়ে পড়ুন নিজের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে।

বুধবার প্রদেশ কংগ্রেস ভবনে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে এ কথা বলেন ইন্ডিয়া জোটের নেতৃত্ব তথা বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মন। তিনি বলেন বিজেপি -র প্রতিশ্রুতিতে বেকার সমস্যার সমাধানের বিষয়ে, মুদ্রাস্ফীতি সম্পর্কে উল্লেখ নেই, সবচেয়ে বড় বিষয় হলো কৃষকদের সম্পর্কে কোন শব্দের উল্লেখ নেই, শিক্ষা ব্যবস্থা উন্নয়ন নিয়েও কোন শব্দের উল্লেখ নেই, নেই দ্রব্য মূল্য হ্রাস করার বিষয়ে কোন প্রতিশ্রুতি। বিজেপি যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তা নিয়ে হতাশা প্রকাশ করে এমনটাই বললেন সুদীপ রায় বর্মন। তিনি বলেন ভারতীয় জনতা পার্টি সত্য বলতে ভয় পায়। কিন্তু এই সত্যের উপর দাঁড়িয়ে ইন্ডিয়া জোট লড়াই করে চলেছে। তাই এই পরিস্থিতিতে আগামী ১৯ এবং ২৬ এপ্রিল রাজ্যবাসীর সকাল সকাল বাড়ি থেকে বের হয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে ভোট দিতে যাওয়ার জন্য আহবান করা হচ্ছে। কোন সমস্যা হলে সেক্টর অফিসার এবং স্থানীয় ইন্ডিয়ার জোটের নেতৃত্বের সাথে যোগাযোগ করার জন্য জানান সুদীপ রায় বর্মন। তিনি আরো জানান সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সংঘটিত হলে রাজ্যের দুটি আসনে বিপুল ভোটে জয়ী হবে ইন্ডিয়া জোটের দুই প্রার্থী। এভাবেই সমালোচনার ঝড় তুললেন নির্বাচনে প্রচারের শেষ মুহূর্তে বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মন। এদিন পূর্ব ত্রিপুরা আসনের বিজেপি প্রার্থী কৃতি সিং দেববর্মার বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে বলেন, যে ত্রিপুরার ভাষা জানে না এবং ত্রিপুরায় কোন ভূমিকা নেই তাকে প্রার্থী করেছে বিজেপি। তাকে মানুষ ভোট দেবে? প্রশ্ন তুললেন সুদীপ রায় বর্মন।

তিনি আরো বলেন, মঙ্গলবার রাজ্যে নির্বাচনী প্রচারে এসেছিলেন সর্বভারতীয় কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদিকা প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। তিনি ভোট প্রচারে এসে মানুষের কাছ থেকে অভূতপূর্ব সাড়া পেয়ে লড়াই করার আরো বেশি সাহস পেয়েছেন। আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন প্রার্থী আশীষ কুমার সাহা, সর্বভারতীয় কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদিকা জারিতা লাইটপ্ল্যাঙ সহ অন্যান্য নেতৃত্ব। পাশাপাশি এই দিন বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ছেড়ে প্রদেশ কংগ্রেসের সামিল হয় ৩৫ জন ভোটার। তাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দিয়ে দলে স্বাগত জানান বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মন সহ অন্যান্য নেতৃত্ব।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য