Tuesday, June 28, 2022
বাড়িরাজ্যমেয়র সরজমিনে পরিদর্শন করে উচ্ছেদের নির্দেশ

মেয়র সরজমিনে পরিদর্শন করে উচ্ছেদের নির্দেশ

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১১ জানুয়ারি: পুর নির্বাচনের আগে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল আগরতলা শহরকে সুন্দর ও যানজট মুক্ত করার। নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর সেই প্রতিশ্রুতি রক্ষার কাজ শুরু করল আগরতলা পুর নিগম। মঙ্গলবার আগরতলা পুর নিগমের মেয়র দীপিক মজুমদার শহর পরিদর্শনে বের হন। সঙ্গে ছিলেন আগরতলা নিগমের  কমিশনার শৈলেশ কুমার যাদব সহ অন্যান্য আধিকারিক এবং টাস্ক ফোর্সের কর্মীরা।

যারা রাস্তা দখল করে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন তাদের সামগ্রী সরিয়ে নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বুধবার সকাল ১০ টার মধ্যে এই জায়গা থেকে সামগ্রী সরিয়ে নেওয়ার জন্য ব্যবসায়ীদের বলা হয়েছে। অন্যথায় ব্যবস্থা নেবে পুর নিগম। শহরবাসী যাতে স্বাচ্ছন্দ্যে চলাফেরা করতে পারে এবং যানজট মুক্ত রাখা যায় তার জন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানান মেয়র দীপক মজুমদার। হকার্সকর্নার এলাকা ঘুরে দেখে অসন্তোষ প্রকাশ করেন মেয়র। ব্যবসায়ীরা ব্যবসায়িক স্বার্থের জন্য নিজেদের নিরাপত্তাকে বিঘ্নিত করছেন বলে জানান তিনি।

অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটলে সমস্ত দোকান ক্ষতিগ্রস্থ হবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন। দমকল ঢোকার মত জায়গা নেই বলে জানান তিনি। নেই অ্যাম্বুলেন্স ঢোকার সুযোগ। তিন দিন নোটিশ দেওয়া হবে। এই তিন দিনের মধ্যে অবৈধ ভাবে যে সমস্ত দখল হয়েছে তা সরিয়ে নিতে হবে। অন্যথায় ভেঙ্গে দেবে আগরতলা পুর নিগম। এদিন শহরের অন্যান্য স্থানও ঘুরে দেখেন মেয়র সহ অন্যান্যরা। ফুটপাত দখল মুক্ত করে মানুষের চলাচলের সুযোগ করে দেওয়া হবে। এই উদ্যোগে সকলে সহযোগিতা করবে বলে আশা ব্যক্ত করেন মেয়র দীপক মজুমদার। তবে ব্যবসায়ীদের প্রশ্ন তাদের কেন স্থায়ী জায়গার ব্যবস্থা করে না দিয়ে এভাবে উচ্ছেদ করে দেওয়া কথা বলছে নিগম। এ দিন দেখতে তো ভোট দেয় কেউ। সরকারি জমি বেদখল করে ব্যবসা করা আইনত অপরাধ। তবে অপরদিকে কিন্তু ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের বিকল্প জমির ব্যবস্থা না করে দিয়ে উচ্ছেদ করাটা পেটে লাথি মারার মতো বলা চলে। কতটা মেনে নেবে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী পুর নিগমের দাম্ভিকতা সেটাই এখন বড় প্রশ্ন। কারণ বিগত দিনেও ক্ষুব্ধ ব্যবসায়ীরা উচ্ছেদের পর প্রতিরোধ করেছে। এবং তারা দাবি তুলেছিল তাদের জন্য স্থায়ী ব্যবস্থা করে উচ্ছেদ করা হয়। এভাবে জমি থেকে উচ্ছেদ হয়ে যাবে তা কতটা সফলতা অর্জন করতে পারবে নিগম কর্তৃপক্ষ সেটাই এখন বড় প্রশ্ন। যাইহোক এদিন মেয়র সহ পুর নিগমের অফিসাররা শহরের শকুন্তলার রোড, হকার্স কর্নার, কামান চৌমুহনী সহ বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য