Tuesday, June 28, 2022
বাড়িরাজ্যআগরতলা থেকে মনিপুর চালু হলো জন শতাব্দি এক্সপ্রেস

আগরতলা থেকে মনিপুর চালু হলো জন শতাব্দি এক্সপ্রেস

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৮ জানুয়ারি : উত্তর-পূর্বাঞ্চলে এক্সপ্রেস ট্রেনের অভাবের কারণে রাজ্যবাসীর কাছে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সৌন্দর্য উপভোগ করার অসাধ্যকর ছিল। তাই রাজ্যবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ছিল উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলির সাথে ত্রিপুরার এক্সপ্রেস ট্রেন চালু করার। শনিবার আগরতলা রেলস্টেশন থেকে জন শতাব্দি এক্সপ্রেস যাত্রা শুরু করে। আগরতলা রেলস্টেশন থেকে ট্রেনটি মনিপুরের জিরিবাম স্টেশন যাবে। নয়া দিল্লি রেল ভবন থেকে ভিডিও সম্মেলন করে জন শতাব্দি এক্সপ্রেসের উদ্বোধন করেন রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব।

এদিন দুপুরে আগরতলা বাধারঘাট রেল স্টেশনে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। পরে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, জন শতাব্দি এক্সপ্রেস চালু হওয়ার ফলে দুই রাজ্যের মানুষ যখন একে অপরের সাথে বসে যাতায়াত করবে তখন দুই রাজ্যের সংস্কৃতি আদান-প্রদান হবে। এবং ত্রিপুরা মনিপুরের মধ্যে আরো বেশি সুদীঢ় সুসম্পর্ক গড়ে উঠবে। দীর্ঘদিনের দাবি ছিল দুই রাজ্যের মধ্যে রেল পরিষেবা চালু করার জন্য। অবশেষে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দুই রাজ্যের মধ্যে এক্সপ্রেস ট্রেন চালু করেছে। এটা ইংরেজি নববর্ষে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি রাজ্যবাসীর জন্য আরো এক বড় উপহার। 

এর জন্য রাজ্যবাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। আগে আগরতলা থেকে ধর্মনগর যেতে সময় লাগত সাড়ে চার ঘন্টা থেকে ৫ ঘন্টা। এখন মাত্র সাড়ে চার ঘন্টায় আগরতলা থেকে শিলচর যাওয়া যাবে জন শতাব্দি এক্সপ্রেসে। আর এটাই ডাবল ইঞ্জিনের সরকার বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। শ্রীদেব এদিন আরো বলেন, আখাউড়া রেলের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার জন্য বলেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব। রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব রাজ্যে এসে আখাউড়া সীমান্তে রেলের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার বিষয়ে বৈঠক করবেন বলে জানান। কারণ আখাউড়া রেল পরিষেবা বাংলাদেশ দিয়ে চালু হলে ৬০০ কিলোমিটার দূরত্ব কলকাতার সাথে ত্রিপুরার কমে যাবে। এতে উত্তর-পূর্বাঞ্চল লাভান্বিত হবে। বড় মাত্রায় উপকৃত হবে ত্রিপুরার মানুষ। আরো বলেন ধর্মনগর থেকে সাব্রুম পর্যন্ত বিকল্প রেল লাইনের সার্ভের কাজ ইতিমধ্যে প্রায় সম্পন্ন হয়ে যাবে। তাহলে আগামী দিনে এক্সপ্রেস ট্রেন আরো বেশি যাতায়াত করতে পারবে বলে আশা ব্যক্ত করেন মুখ্যমন্ত্রী। জন শতাব্দি এক্সপ্রেস সপ্তাহে তিন দিন অর্থাৎ সোম, বুধ, শুক্রবার ট্রেনটি আগরতলা থেকে মনিপুরের উদ্দেশ্যে যাতায়াত করবে। রাজ্যে আমবাসা এবং ধর্মনগর স্টেশনে বিরতির জন্য দাঁড়াবে। ট্রেনে কোচ ১০ টি। এদিন অনুষ্ঠানে ভিডিও সম্মেলনে এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী প্রদীপ কুমার সিংহ। এদিকে মুখ্যমন্ত্রী ছাড়াও ত্রিপুরার পরিবহন মন্ত্রী প্রসেনজিৎ সিংহ রায় সহ স্থানীয় বিধায়িকা ও রেল দপ্তরের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা আগরতলা বাধার ঘাট রেলস্টেশনে উপস্থিত ছিলেন।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য