Wednesday, June 12, 2024
বাড়িরাজ্যমোকা নিয়ে সতর্ক রয়েছে রাজ্য প্রশাসন

মোকা নিয়ে সতর্ক রয়েছে রাজ্য প্রশাসন

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১২ মে :  বৃহস্পতিবার ভোরবেলা দক্ষিণ-পূর্ব সাগরে মোকার জন্ম হয়েছে। তারপর সাগর থেকে শক্তি সঞ্চয় করে মোকা নামে এই ঘূর্ণিঝড়। মোকার ঘূর্ণিঝড়ের গতিবিধির দিকে সর্বক্ষণ নজর রাখছে রাজ্য প্রশাসন। ঘূর্ণিঝড় এখনো রাজ্যে প্রবেশ না করলেও ইতিবাচক সমস্ত প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে। বৃহস্পতিবার প্রশাসনিক আধিকারিকদের মধ্যে বৈঠকের পর জেলা প্রশাসনকে সর্তক থাকতে বলা হয়েছে। বিশেষ করে ত্রিপুরায় গোমতি জেলা, দক্ষিণ জেলা এবং ধলাই জেলায় মোকার প্রভাব পড়বে বলে কমলার সংকেত জারি করেছে রাজ্য আবহাওয়া দপ্তর।

পাশাপাশি বাকি পাঁচটি জেলায় হলুদ সংকেত জারি করেছে আবহাওয়া দপ্তর। প্রস্তুত রাখা হয়েছে এন ডি আর এফ, এস ডি আর এফ, ফায়ার সার্ভিস সহ প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলার সাথে জড়িত সমস্ত দপ্তরকে। এই বিষয়ে শুক্রবার সংবাদ মাধ্যমকে অবগত করেছেন এস পি ও‌ ডা. এস কুমার দাস। তিনি জানান, শুক্রবার সকালের রিপোর্ট অনুযায়ী ঘূর্ণিঝড়টি উত্তর-পশ্চিমে অবস্থান করেছে। তারপর প্রতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে উত্তরে এগোচ্ছে। মাঝ সমুদ্রে বাক নিয়ে সে তার অভিমুখ পরিবর্তন করে উত্তর পূর্ব দিকে ঘুরে যাবে। ত্রিপুরার দিকে ধেয়ে আসছে। ত্রিপুরা, মিজোরাম, দক্ষিণ মনিপুর, মায়ানমার এবং বাংলাদেশের উপর আছড়ে পড়বে। ১৩ মে বৃষ্টির সাথে স্বল্প ঘূর্ণিঝড় হবে।

 কিন্তু ১৪ মে ঘন্টায় ৪০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে সাইক্লোন হবে। ভারত সরকারের পক্ষ থেকে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ করছে। যদি কোন সহযোগিতায় প্রয়োজন হয় তাহলে হাত বাড়িয়ে দেওয়া হবে। আরো জানান আগামী ১৫ মে ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাবনা না থাকলেও বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুরোপুরিভাবে পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে প্রস্তুত আছে বলে জানান তিনি। আবহাওয়াবিদেরা জানিয়েছেন, যেকোনো ঘূর্ণিঝড় যত বেশি সময় জলভাগের উপর অবস্থান করে, তত তার শক্তি ও ধ্বংস ক্ষমতা বেশি হয়। সমুদ্র থেকেই যাবতীয় শক্তি সঞ্চয় করে সে। মোকার ক্ষেত্রে তাই হচ্ছে। ৭২ ঘণ্টা জলে থাকার ফলে মোকার শক্তি বৃদ্ধি ও প্রভাব নিয়ে নানা আশঙ্কা জন্ম নিয়েছে। যদিও শনিবার ঘূর্ণিঝড়ের শক্তি কিছুটা ক্ষয় হতে পারে বলে মনে করছে আবহাওয়া দপ্তর। তা যদি না হতো তবে আরও বিধ্বংসী হতে পারতো মোকা।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য