Tuesday, February 7, 2023
বাড়িরাজ্যকংগ্রেসের সাথে সমঝোতা করে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করলো বামফ্রন্ট

কংগ্রেসের সাথে সমঝোতা করে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করলো বামফ্রন্ট

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৫ জানুয়ারি : আসন সমঝোতা করে ৪৩ টি আসনে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করল সিপিআইএম। কংগ্রেসের জন্য ১৩ টি আসন ছেড়ে দিয়েছে। বাকি চারটি আসনের মধ্যে একটি সিপিআই, একটি আরএসপি, একটি ফরওয়ার্ড ব্লক এবং একটি নির্দল প্রার্থীর( সাত রামনগর আসনের ত্রিপুরা হিউম্যান রাইটস অর্গানাইজেশনের মনোনীত প্রার্থী তথা বরিষ্ঠ আইনজীবী পুরুষোত্তম রায় বর্মন) জন্য রেখেছে বামফ্রন্ট। বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার সময় সিপিআইএম রাজ্য দপ্তরে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে এই ঘোষণাটি দেন বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান নারায়ণ কর। তিনি জানান এবার প্রার্থী তালিকায় নতুন মুখ রয়েছে ২৪ জন।

 এর মধ্যে রয়েছে দুজন ১০,৩২৩ চাকরিচ্যুত শিক্ষক। তারা হলেন তিনি বামুটিয়া বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী নয়ন সরকার, শান্তিরবাজার বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী সত্যজিৎ রিয়াং। এছাড়ো রয়েছে নতুন মুখের মধ্যে একজন বাম ছাত্র সংগঠন এস এফ আই-এর। তিনি হলেন কমলা সাগর আসনের প্রার্থী হিরন্ময় নারায়ন দেবনাথ। উপজাতি যুব সংগঠন অর্থাৎ টি ওয়াই এফ -এর পরীক্ষিত কলই, তিনি মনোনীত হয়েছেন অম্পিনগর বিধানসভা কেন্দ্রে থেকে। অপর টিওয়াইএফ এর নেতা দেবেন্দ্র ত্রিপুরা। তিনি জুলাইবাড়ি আসন থেকে সি পি আই এম মনোনীত প্রার্থী হয়েছেন। অপরদিকে এ ডি সি -র প্রাক্তন শিক্ষা দায়িত্বে থাকা নেতৃত্ব রাজেন্দ্র রিয়াং কাঞ্চনপুর থেকে লড়াই করবেন। এদিকে, আসন ভাগাভাগির মধ্যে ২ মোহনপুর, ৬ আগরতলা, ৮ বড়দোয়ালি, ৯ বনমালীপুর, ১৪ বাধারঘাট, ১৮ সূর্যমনি নগর, ১৯ চড়িলাম, ২৮ তেলিয়ামুড়া, ৪৫ কমলপুর, ৪৮ করমছড়া, ৫৩ কৈলাসহর, ৫৬ ধর্মনগর এবং ৫৯ পেচারথল বিধানসভা কেন্দ্রটি কংগ্রেসের জন্য সিপিআইএম এবং বামফ্রন্টের অন্যান্য সংগঠন গুলি প্রার্থী দেয় নি। এবং এবছর লড়াই ময়দান থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন বিরোধী দলীয় নেতা মানিক সরকার। তাঁর পরিবর্তে ধনপুর থেকে লড়াই করবেন কৌশিক চন্দ, বিশালগড় থেকে ভানুলাল সাহা লড়াই করবেন না। বিশালগড় থেকে লড়াই করবেন পার্থ প্রতিম মজুমদার।

 বক্সনগরের প্রাক্তন বিধায়ক সহীদ চৌধুরী পরিবর্তে এবার প্রার্থী হয়েছেন শামসুল হক, কমলা সাগর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে প্রাক্তন বিধায়ক নারায়ন চন্দ্র চৌধুরীর পরিবর্তে এবার লড়াই করবেন হিরন্ময় নারায়ণ দেবনাথ। ঋষ্যমুখ বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বাদল চৌধুরীর পরিবর্তে এবার লড়াই করবেন অশোক মিত্র, জুলাই বাড়ির প্রাক্তন বিধায়ক জোশভির ত্রিপুরার পরিবর্তে লড়াই করবেন দেবেন্দ্র ত্রিপুরা, চন্ডিপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে এবার প্রাক্তন বিধায়ক তপন চক্রবর্তীর পরিবর্তে লড়াই করবেন কৃষ্ণেন্দু চৌধুরী, কৈলাসহর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে প্রাক্তন বিধায়ক মবসর আলীর পরিবর্তে এবার আসনটি কংগ্রেসের জন্য ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। প্রার্থী তালিকা রয়েছেন দুজন মহিলা। প্রাক্তন বিধায়কদের মধ্যে যারা এবার প্রার্থী তালিকা থেকে বাদ হয়েছেন তারা সকলে রাজ্যের সাংগঠনিক নেতৃত্বে প্রথম সারিতে থেকে দায়িত্বে থাকবেন। বিশেষ করে বিরোধী দলনেতা মানিক সরকার সাংগঠনিক কাজ করতে প্রার্থী হওয়া থেকে অব্যাহতি চেয়েছেন বলে জানান নারায়ণ কর। রাজ্য সম্পাদক জিতেন্দ্র চৌধুরী লড়াই করবেন ৪০ সাব্রুম বিধানসভা কেন্দ্র থেকে। তিনি তিপ্রা মথার জন্য এখনো দরজা খোলা রয়েছে। যদি এক ছাতার নিচে আসে তাহলে তাদের জন্য আসন বামফ্রন্টের অন্যান্য আসন থেকে প্রার্থী তুলে বিজেপিকে পরাস্ত করার জন্য সুযোগ করে দেবে। আরো জানান যেহেতু রাজ্যে কোড অফ কন্টাক্ট চলছে তাই কেন্দ্রীয় সরকার চাইলেও তিপ্রা মথাকে গ্রেটার তিপরাল্যান্ডের প্রতিশ্রুতি লিখিত দিতে পারবে না বলে জানান জিতেন্দ্র চৌধুরী। আরো জানান যারা নতুন করে প্রার্থী তালিকায় স্থান পেয়েছেন তাদের রাজনৈতিক এবং প্রশাসনিক অভিজ্ঞতা যাচাই করে সুযোগ দেওয়া হয়েছে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে ইস্তেহার প্রকাশ করবে বামফ্রন্ট। ২৭ জানুয়ারি থেকে মনোনয়ন পত্র জমা শুরু করা হবে বলে জানান তিনি। তিনি আরো জানান কংগ্রেসের জন্য বারোটি আসন রাখা হয়েছিল। কিন্তু কংগ্রেসের পর্যবেক্ষক ড. অজয় কুমার ধর্মনগর আসনটি কংগ্রেসের জন্য চেয়েছেন। তাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ধর্মনগর আসনকে সিপিআইএম লড়াই করবে না।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য