Monday, February 6, 2023
বাড়িরাজ্যদুর্বৃত্তদের হাতে রক্তাক্ত বনমালীপুরের এসি মোর্চার মন্ডল সভাপতি, গ্রেপ্তার ২

দুর্বৃত্তদের হাতে রক্তাক্ত বনমালীপুরের এসি মোর্চার মন্ডল সভাপতি, গ্রেপ্তার ২

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৪ জানুয়ারি :  নির্বাচনের দিনক্ষন ঘোষণার পর রাজনৈতিক সন্ত্রাসের গ্রাফ নিম্নমুখী হওয়ার নাম নিচ্ছে না। প্রতিদিন রাজ্যের কোথাও  না কোথাও বুথ কার্যালয়ে অগ্নি সংযোগ, প্রচার সজ্জা নষ্ট এবং আক্রমণের ঘটনার অভিযোগ উঠছে। নির্বাচনে কমিশনের দারস্থ হয়েছে রাজনৈতিক দলগুলি। জিরো পোল ভায়োলেন্স-র মিশনে কমিশন কড়া পদক্ষেপ নিচ্ছে প্রতিটি ক্ষেত্রে। এরই মধ্যে মঙ্গলবার সকালে একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ল ৯ বনমালীপুর বিধানসভা কেন্দ্রে।

এদিন ৯ বনমালীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি এসি মোর্চার মণ্ডল সভাপতি সুমন দাস প্রাতঃভ্রমণে বের হয়। অভিযোগ এরপর সাত সকালে তার উপর আড়ালিয়া এলাকায় প্রানঘাতী আক্রমণ চালায় দুষ্কৃতীরা। ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয় ৯ বনমালীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি এসি মোর্চর মণ্ডল সভাপতি সুমন দাসকে। তার মাথায় ও মুখে গুরুতর আঘাত লাগে। দুষ্কৃতীদের আক্রমণে গুরুতর আহত হয় সুমন দাস। তাকে সেখান থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় জিবি হাসপাতালে। খবর পেয়ে জিবি হাসপাতালে ছুটে যান মুখ্যমন্ত্রী ডাঃ মানিক সাহা। তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে খোঁজ খবর নেন চিকিৎসকদের কাছে থেকে।

 কথা বলেন পরিবারের সদস্য এবং দলীয় কার্যকর্তাদের সঙ্গে। পরে ৯ বনমালীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি এসি মোর্চর মণ্ডল সভাপতি সুমন দাসের উপর দুস্কৃতীদের আক্রমণের ঘটনা প্রসঙ্গে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী ডাঃ মানিক সাহা জানান, এদিন সকালবেলা প্রাতঃভ্রমণ থেকে বাড়ি ফেরার সময় কংগ্রেসের কর্মীরা তাকে বেধড়কভাবে রাস্তায় মারধর করে। কংগ্রেসের এই গুন্ডারা আবারো সিপিআইএমের সাথে মিলে বামগ্রেস হয়েছে। কংগ্রেস এবং সিপিআইএম আগেই এই ধরনের কাজ করেছে। তারা এগুলি আবারো শুরু করেছে। আইনশৃঙ্খলার অবনতি কথা বলে তারাই বারবার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি খারাপ করার চেষ্টা করছে। মুখ্যমন্ত্রী আরও অভিযোগ তুলে বলেন কংগ্রেসের কাজই হলো মানুষ খুন করা। এখন তারা আবার সিপিআইএমের সাথে জোট হয়েছে। মানুষ তাদের এ ধরনের কার্যকলাপ থেকে ২০১৮ সালে মুক্তি পেয়েছিল। কিন্তু এখন আবার তারা এগুলি সৃষ্টি করার চেষ্টা করছে। তাই পুলিশকে বলা হয়েছে যারা এ ঘটনা সংঘটিত করেছে তারা কাউকে যাতে না ছাড়া হয়। এবং ৪ থেকে ৫ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে বলেও জানান মুখ্যমন্ত্রী। গুরুতর আহত ৯ বনমালীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি এসি মোর্চর মণ্ডল সভাপতি সুমন দাসকে দেখতে জিবি হাসপাতালে যান বিধায়ক রতন চক্রবর্তী সহ অন্যান্য নেতৃত্ব। এই ঘটনায় চারজনের নামে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। গোটা বিষয়টি নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টিতে নিয়েছে বিজেপি। নির্বাচনের আগে এই ধরনের প্রানঘাতী আক্রমণের ঘটনাকে কেন্দ্র করে গোটা বিধানসভা জোড়ে উত্তেজনা ছড়িয়েছে। এদিকে পুলিশ দুজনকে গ্রেফতার করেছে। পুলিশের ধারণা ব্যবসা সংক্রান্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুর্বৃত্তরা এই ঘটনাটি সংঘটিত করেছে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য