Monday, December 5, 2022
বাড়িরাজ্যকেন্দ্রীয় সরকারের সামাজিক ন্যায় বিচার এবং ক্ষমতায়ন মন্ত্রকের উদ্যোগে আঞ্চলিক কর্মশালা

কেন্দ্রীয় সরকারের সামাজিক ন্যায় বিচার এবং ক্ষমতায়ন মন্ত্রকের উদ্যোগে আঞ্চলিক কর্মশালা

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২৫ নভেম্বর : শুক্রবার থেকে রাজধানীর এক বেসরকারি হোটেলে কেন্দ্রীয় সরকারের সামাজিক ন্যায় বিচার এবং ক্ষমতায়ন মন্ত্রকের উদ্যোগে দুই দিন ব্যাপী আঞ্চলিক কর্মশালা শুরু হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের সামাজিক ন্যায় বিচার এবং ক্ষমতায়ন মন্ত্রকের বিভিন্ন প্রকল্প ও আইন বিধি নিয়ে এই কর্মশালায় আলোচনা হবে।

কর্মশালার সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী ডাক্তার মানিক সাহা। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সরকারের সামাজিক ন্যায় বিচার এবং ক্ষমতায়ন মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী প্রতিমা ভৌমিক, মন্ত্রী ভগবান চন্দ্র দাস, মন্ত্রী সান্তনা  চাকমা, মন্ত্রী রাম প্রসাদ পাল, রাজ্যের মুখ্য সচিব জে.কে সিনহা সহ অন্যান্যরা। মুখ্যমন্ত্রী ডাক্তার মানিক সাহা কর্মশালায় বক্তব্য রেখে বলেন, রাজ্য সরকারের অধীন দুইটি বৃদ্ধাশ্রম চালু রয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন সংস্থা পরিচালিত আরও বেশ কয়েকটি বৃদ্ধাশ্রম চালু রয়েছে। তৃতীয় লিঙ্গের নাগরিকদের অধিকার সুনিশ্চিত করার জন্য বোর্ড গঠন করা হয়েছে।

 সামাজিক ন্যায় বিচার এবং ক্ষমতায়ন মন্ত্রকের অর্থানুকূল্যে ত্রিপুরা এইডস কন্ট্রোল সোসাইটি ড্রাগ-এর কুফলের বিষয়ে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করার জন্য কাজ করছে। ড্রাগের নেশায় আসক্তদের সুস্থ করে তুলতে স্বাস্থ্য দপ্তর কাজ করছে। মুখ্যমন্ত্রী এইদিন কেন্দ্রীয় সরকার প্রদত্ত বিভিন্ন প্রকল্পের অর্থ সঠিক ব্যয় করার ফলে কি কি সাফল্য এসেছে তাও তুলে ধরেন। অপরদিকে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী প্রতিমা ভৌমিক এক সাক্ষাৎকারে জানান উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্য গুলি ছোট হলেও এই রাজ্য গুলিকে সম্মান জানান প্রধানমন্ত্রী। যার জলন্ত উদাহরণ এইদিনের আঞ্চলিক কর্মশালা। এই প্রথম ত্রিপুরা রাজ্যে দুইদিন ব্যাপী আঞ্চলিক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। দুইদিন ব্যাপী এই কর্মশালা ফলপ্রসূ হবে বলে আশা ব্যক্ত করেন তিনি। পাশাপাশি আগামিদিনে আরও বেশি করে কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মশালা রাজ্যে হবে বলে আশা ব্যক্ত করেন তিনি। নেশা মুক্ত ত্রিপুরা গড়ার বিষয়ে বলতে গিয়ে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বলেন সামাজিক ন্যায় বিচার এবং ক্ষমতায়ন মন্ত্রক দেশের ৩৭২ টি জেলাকে নেশা মুক্ত জেলা হিসাবে ঘোষণা করেছে। সকলকে সাথে নিয়ে যুব সমাজকে নেশার করাল গ্রাস থেকে বের করে আনার জন্য কাজ চলছে। ত্রিপুরা রাজ্যের ৮ টি জেলার মধ্যে ৭ টি জেলা নেশা মুক্ত দেশের ৩৭২ টি জেলার মধ্যে রয়েছে বলেও জানান কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী প্রতিমা ভৌমিক।কর্মশালায় দেশের ১৬ টি রাজ্য থেকে প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেছে। উত্তর প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, লাদাক, হিমাচল প্রদেশ, চণ্ডীগড়, বিহার, ঝারখন্ড, পশ্চিমবঙ্গ, সিকিম, আসাম, অরুনাচল প্রদেশ, মেঘালয়, নাগাল্যান্ড, ত্রিপুরা, মিজোরাম ও মণিপুরের প্রতিনিধিরা এই কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেছে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য