Saturday, December 3, 2022
বাড়িরাজ্যফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার যুবতীর পচা গলা ঝুলন্ত মৃতদেহ

ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার যুবতীর পচা গলা ঝুলন্ত মৃতদেহ

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৮ অক্টোবর :  ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার এক যুবতীর রহস্যজনক ঝুলন্ত মৃতদেহ। মৃত যুবতীর নাম পৃথা দেবনাথ, বয়স ২৭ বছর। জানা যায় পৃথাকে দত্তক নেন ডাঃ শক্তিপদ দেবনাথ ও মনীষা ভৌমিক। জেল আশ্রম রোডে বাড়ি ছিল তাদের। বিগত ৫ বছর আগে সেই বাড়ি বিক্রি করে পশ্চিমবঙ্গের বারাসাতে চলে যায়। সেখানেই বর্তমানে রয়েছেন তারা। গত মে মাসে রাজ্যে আসে মেয়ে পৃথা। ফ্যাশন ডিজাইনিং -র উপর মাষ্টার ডিগ্রী শেষ করে ত্রিপুরায় আসে ব্যবসা করার জন্য। তার জন্য চন্দ্রপুর টাটা কোম্পানীর আর কে অ্যাপার্টমেন্টে একটি ফ্ল্যাট কেনে পৃথা। আর এটাই হয়ে উঠল তার কাল। জানা গেছে সেই ফ্ল্যাটের রেজিস্ট্রেশন এখনো হয়নি।

এরই মধ্যে খয়েরপুরে একটি দোকান  খুলেছিল বলে জানান পিতা- মাতা। গত ৪ অক্টোবর শেষবার মেয়ের সঙ্গে ফোনে কথা হয় তাদের। ৫ অক্টোবর একটি এস এম এস পান। এরপর থেকে কোন যোগাযোগ করতে পারেননি ডাঃ শক্তিপদ দেবনাথ ও মনীষা ভৌমিক। শেষ মেষ বাধ্য হয়ে শনিবার বিমানে রাজ্যে আসেন তারা। মেয়ের সন্ধানে যান ফ্ল্যাটে। কিন্তু চাবি না পেয়ে অ্যাপার্টমেন্টের নির্মাণকারী সংস্থার মালিককে জানান। শেষ পর্যন্ত দরজা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করেন তারা। দেখতে পান পৃথার ঝুলন্ত মৃতদেহ। খবর দেওয়া হয় পূর্ব মহিলা থানায়। ইতিমধ্যেই মৃতদেহ থেকে দুর্গন্ধ বের হওয়ায় পুলিশের অনুমান বেশ কিছু দিন আগেই মৃত্যু হয়েছে পৃথার। পুলিশ কোন ধরনের তদন্ত ছাড়াই বলে দেয় আত্মহত্যা। কিন্তু কি কারনে এই কান্ড ঘটাল সে তা স্পষ্ট করে কিছু পারেনি কেউ। এদিকে পৃথার পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি সে আত্মহত্যা করতে পারে না। যদিও স্থানীয়দের পক্ষ থেকে জানা যায় মৃতদেহটি যেভাবে ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে তাতে রহস্য ক্রমশ ঘনীভূত হচ্ছে। আসলে আত্মহত্যা নাকি খুন তা নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে স্থানীয়দের মধ্যে। কারণ এই ফ্ল্যাটের বিরুদ্ধে বহু অভিযোগ রয়েছে বলে সূত্রে খবর। গোটা ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য