Tuesday, October 4, 2022
বাড়িরাজ্যটি আর টি সি -র উন্নয়নের হিসেব চাইলেন প্রাক্তন পরিবহনমন্ত্রী

টি আর টি সি -র উন্নয়নের হিসেব চাইলেন প্রাক্তন পরিবহনমন্ত্রী

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৪ সেপ্টেম্বর : ২০১৮ তে বিজেপি সরকারে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার আগে শ্রমজীবী অংশের মানুষকে গালভরা ঘোষণা, আর বুক ভরা প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে এটা শ্রমজীবীদের সরকার নয়। শ্রমজীবী বিরোধী সরকার। কারণ সাড়ে চার বছরের শ্রমজীবীদের জন্য কিছু না করে শুধু মানুষকে টুপি পরিয়ে রাজ্যটা ধ্বংস করেছে। রবিবার সি আই টি ইউ রাজ্য দপ্তরে টিআরটিসি ইউনিয়নের অষ্টম রাজ্য সম্মেলনে বক্তব্য রেখে এমনটাই অভিযোগ তুললেন প্রাক্তন পরিবহন মন্ত্রী তথা সি আই টি ইউ রাজ্য সভাপতি মানিক দে।

 তিনি বলেন ২০১৮ -র পর রাজ্যের শ্রমিকরা কাজ হারিয়েছে। রেগার ও টুয়েপের কাজ ৬০ থেকে ৬৫ দিন থেকে কমিয়ে ২০ থেকে ২২ দিন করেছে। এবং বহু মানুষ রেগার কাজও হারিয়েছে। তাই এই সরকারকে একমাত্র শ্রমিকরাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে আগামী দিনে চ্যালেঞ্জ করতে পারে বলে এদিন সম্মেলনে দাবি করেন শ্রী দে। পাশাপাশি তিনি এই দিন টি আর টি সি পরিষেবার নগ্নতা বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে বলে অভিযোগ তুলে বলেন, ২০১৮ সালের বিজেপি সরকার প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর টিআরটিসি এবং আরবান বাস পরিষেবা মুখ থুবড়ে পড়েছে। নতুন করে একটি বাস এই সরকারের আমলে ক্রয় করতে দেখা যায়নি। এমনকি পূর্বতন সরকারের আমলে ক্রয় করা দুটি ভলবো বাস দীর্ঘদিন ফেলে রেখে যন্ত্রপাতি নষ্ট করেছে। এবং ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে কোষাগার। সবচেয়ে আশ্চর্যজনক বিষয় হলো আরবানে ১৭০ টি বাস ক্রয় করা হয়েছিল তৎকালীন সরকারের আমলে। সেই বাসগুলি দিয়ে আয় করে আরো তিনটি বাস ক্রয় করা হয়েছিল। এগুলি বর্তমান সরকারের আমলে টি আর টি সি অধীনে এনে মাত্র পাঁচ থেকে ছয়টি বাস শহরে পরিষেবা দেওয়ার জন্য রেখেছে। বাকি বাসগুলির কোন দেখা নেই। আবার বলছে রাজ্যে টি আর টি সি এবং আরবান বাস পরিষেবা নাকি লাভের মুখ দেখেছে। কিন্তু কোন দিক দিয়ে কীভাবে সেই লাভের মুখ দেখেছে তার সুনির্দিষ্ট প্রমাণ চাইলেন প্রাক্তন পরিবহনমন্ত্রী মানিক দে। আয়োজিত সম্মেলনের উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য