Wednesday, October 5, 2022
বাড়িরাজ্যচাকরির দাবিতে রাস্তায় নেমে গ্রেপ্তার ডিগ্রিধারী শতাধিক যুবক-যুবতী

চাকরির দাবিতে রাস্তায় নেমে গ্রেপ্তার ডিগ্রিধারী শতাধিক যুবক-যুবতী

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ১০ আগস্ট : শূন্যপদ পূরণের কোন সদুত্তর না পেয়ে অবশেষে মহাকরণ অভিযান করে গ্রেপ্তার হতে হলো স্বাস্থ্যকর্মীর পোশাক পরিধান করা রাজ্যের কয়েক শতাধিক এ এন এম এবং এম পি ডব্লিউ ডিগ্রীধারি বেকারকে। বর্তমান সরকারের গত সাড়ে চার বছরে একজন এ এন এম এবং এম পি ডব্লিউ ডিগ্রীধারি বেকারের চাকরি হয়নি। প্রায় এক হাজারের মতো শূন্যপদ পড়ে আছে।

 কিন্তু সরকারের কোন হেলদোল নেই। এমনটাই অভিযোগ তুলে চাকুরির দাবিতে বুধবার গুর্খাবস্তিস্থিত স্বাস্থ্য দপ্তরের অধিকর্তার নিকট ডেপুটেশন প্রদান করল এ.এন.এম এবং এম.পি.ডাব্লিও ডিগ্রীধারি বেকার যুবক যুবতীরা। ২০১৬ সালের পর থেকে এ এন এম উত্তীর্ণদের এম পি ডব্লিউ হিসাবে নিয়োগ করা হচ্ছে না। বিগত দিনেও এম পি ডব্লিউ –র প্রয়োজনীয়তা ছিল। গ্রামীন এলাকায় পরিষেবা প্রদানে এম পি ডব্লিউ –র বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। অথচ তারপরেও এম পি ডব্লিউ নিয়োগ করা হচ্ছে না। ২০১৫ তে একবার নিয়োগ করা হয়েছে। ২০১৬- ১৭ সালে অল্প কিছু  এম পি ডব্লিউ নিয়োগ করা হয়েছে। কিন্তু ২০১৭ সালে এম পি ডব্লিউ নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করা হলেও ২০১৮ সালে তা বাতিল করা হয়। এই ক্ষেত্রে এম পি ডব্লিউ বেকারদের আশা ছিল নতুন সরকার নতুন ভাবে এম পি ডব্লিউ নিয়োগ করবে। অথচ বিগত সাড়ে চার বছরে কোন এম পি ডব্লিউ নিয়োগ করা হয়নি।

 বহুবার অধিকর্তার সঙ্গে দেখা করে নিয়োগের দাবি জানানো হয়। স্বাস্থ্য মন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে এই বিষয়ে অবগত করা হয়। নতুন করে এম পি ডব্লিউ নিয়োগ না হওয়ায় শঙ্কিত তারা। এই নিয়োগের দাবিতে বুধবার গুর্খাবস্তী স্থিত স্বাস্থ্য দপ্তরের সামনে প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে ধর্না দেয় এ এন এম উত্তীর্ণ বেকারেরা। তাই ডিগ্রিধারী বেকাররা জানান বর্তমানে সমগ্র রাজ্যে প্রায় ১০০০ জন এ এন এম এবং এম পি ডব্লিউ উত্তীর্ণ বেকার রয়েছে। তাই তারা এইদিন চাকুরিতে নিয়োগের দাবিতে স্বাস্থ্য দপ্তরের অধিকর্তার সাথে দেখা করতে এসেছে। সরকারের উদ্দেশ্যে ক্ষোভ প্রকাশ করে আরো বলেন যদি চাকরি দিতে না পারে তাহলে কেন এতগুলো ইনস্টিটিউট রাজ্যে খুলে রাখা হয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী পর্যন্ত তাদের সাথে দেখা করছে না। পরে একটি প্রতিনিধি দল দপ্তরের অধিকর্তার সাথে দেখা করতে গেলে কোন সদুত্তর পায় নি। অবশেষে তারা বিক্ষোভ করে মহাকরণ যায়। কিন্তু পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ লাইন নিয়ে যায়। তাদের অভিযোগ বেকারত্বের জ্বালায় আন্দোলনে নেমেছে। কিন্তু পুলিশ দিয়ে গ্রেপ্তার করা ছাড়া আর কোন পথ এই সরকারের কাছে খোলা নেই। কিন্তু ডিগ্রিধারী বেকাররা জানায় আজ পুলিশ দিয়ে আন্দোলন রুখা গেলেও, আগামী দিনে তারা বৃহত্তর আন্দোলনে নামবে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য