Monday, October 3, 2022
বাড়িরাজ্যকেন্দ্রীয় একঝাঁক মন্ত্রীর সাথে দেখা করে রাজ্যের জন্য উন্নয়নের দাবি মুখ্যমন্ত্রীর

কেন্দ্রীয় একঝাঁক মন্ত্রীর সাথে দেখা করে রাজ্যের জন্য উন্নয়নের দাবি মুখ্যমন্ত্রীর

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ৮ আগস্ট : ২০২৩ -এর নির্বাচনের ছয় মাস আগে সামাজিক মাধ্যমে ঢালাও প্রতিশ্রুতি মুখ্যমন্ত্রীর। দিল্লি গিয়ে দেখা করলেন বহু কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সহ বিজেপি’র সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার সাথে। সোমবার মুখ্যমন্ত্রী ডা. মানিক সাহা রাজ্যের স্বার্থে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের সাথে সাক্ষাৎ করেন। এদিন নয়া দিল্লির পরিবহণ ভবনে কেন্দ্রীয় বন্দর, নৌ-পরিবহণ, জলপথ এবং আয়ুষ মন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়ালের সাথে অত্যন্ত ফলপ্রসূ বৈঠক হয়।

মন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল ৫০ শয্যার আয়ুষ হাসপাতাল এবং ৫০ টি হেলথ এন্ড ওয়েলনেস সেন্টার রাজ্যে গড়ে তোলার আশ্বাস দিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি নদীর নাব্যতা বৃদ্ধি করতে ড্রেজিং এবং মূল ভূখণ্ডের সাথে নৌপথের সংযোগ আরো উন্নয়নে পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস দেন বলে সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করে জানান মুখ্যমন্ত্রী। ত্রিপুরা রাজ্যের শহর এলাকায় পানীয়জল সরবরাহ, পয়ঃপ্রণালী নিষ্কাশন এবং আবাসন গড়ে তোলা ইস্যু নিয়ে আজ কেন্দ্রীয় আবাসন ও নগরোন্নয়ন বিষয়ক মাননীয় মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরীর সাথেও বৈঠক করলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি লাইট হাউস প্রজেক্ট আগরতলার জন্য অতিরিক্ত তহবিল অনুমোদন, বড়জলা স্যুয়ারেজ ট্রিটমেন্ট থেকে ৬ হাজার পয়ঃনিষ্কাশন সংযোগ প্রদান, আমরুট ২.০-এর অধীনে ৮ টি ছোট শহরে পানীয় জল সরবরাহ প্রকল্পের অনুমোদন এবং প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা আরবানের অধীনে অতিরিক্ত ৬,৫২৩ টি বাড়ির অনুমোদনের জন্য সম্মত দিয়েছেন বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী।কেন্দ্রীয় আবাসন ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রক থেকে এই অতিরিক্ত বরাদ্দ ত্রিপুরা রাজ্যের শহর এলাকায় ‘সহজ জীবনযাত্রার’ মান উন্নতিতে সহায়ক হবে বলে আশা ব্যক্ত করেন মুখ্যমন্ত্রী।

 তারপর ত্রিপুরায় ন্যাশনাল হাইওয়ে ও সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী নিতীন গড়করি এবং এই মন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী জেনারেল বিজয় কুমার সিং -এর সঙ্গে বৈঠক করেন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গডকরি সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক মন্ত্রক এবং এন এইচ আই ডি সি এল -এর আধিকারিকদের নির্দেশ দেন, কমলপুর-আমবাসা-গন্ডাছড়া-অমরপুর সড়ক ১৪৮ কিলোমিটার, উদয়পুর-সোনামুড়া-কুমিল্লা সড়ক ৪৪ কিলোমিটার এবং আগরতলা শহরের বাইপাস পশ্চিমের ২৫ কিলোমিটার সড়ক ভারতমালা ২.০ প্রোজেক্টের অধীনে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য। তিনি এন এইচ -৮ এর আগরতলা-তেলিয়ামুড়া অংশকে চার লেন এবং খোয়াই-তেলিয়ামুড়া-অমরপুর-সাব্রুম পর্যন্ত ন্যাশনাল হাইওয়ের কাজ শুরু করার নির্দেশ প্রদান করেন। রাজ্যে পাকা সেতু এবং সিমেন্ট কংক্রিট রাস্তা নির্মাণের জন্য ‘সেন্ট্রাল রোড ইনফ্রাস্টাকচার ফান্ড ফর কনস্ট্রাকশান’ ‌এর থেকে ২০০ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন করেন বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি সংগঠন মজবুত করতে মুখ্যমন্ত্রী সাংগঠনিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্বদের সাথে। এদিন ভারতীয় জনতা পার্টির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক বি. এল সন্তোষের সঙ্গে সৌজন্যমূলক সাক্ষাৎ করেন। সাক্ষাতকার কালে বিভিন্ন সাংগঠনিক বিষয়ে আলোচনা হয়। আগামী বিধানসভার নির্বাচনে রণ কৌশল নিয়ে এদিন আলোচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। পরে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাটদের সাথে দেখা করে ত্রিপুরার বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন। সংগঠনের মাইলেজের জন্য পরামর্শ নেন মুখ্যমন্ত্রী।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য