Thursday, August 18, 2022
বাড়িখেলাবার্সাই একমাত্র ক্লাব, টাকা না থাকলেও সব খেলোয়াড় কেনে’

বার্সাই একমাত্র ক্লাব, টাকা না থাকলেও সব খেলোয়াড় কেনে’

স্যন্দন ডিজিটাল ডেস্ক। আগরতলা। ২০ জুলাই।  দলছুট হয়েছেন আক্রমণভাগের প্রাণভোমরা রবের্ত লেভানদোভস্কি। বায়ার্ন মিউনিখ ছেড়ে যোগ দিয়েছেন বার্সেলোনায়। জার্মান ক্লাবটির কোচ ইউলিয়ান নাগেলসমান তাতে যেন বেশ ক্ষুব্ধ। ঋণের ভারে জর্জরিত বার্সেলোনা কিভাবে ট্রান্সফারের মোটা অঙ্কের হিসাব মেলালো, বিষয়টি তার কাছে অদ্ভূতুড়ে ঠেকছে।

প্রায় দুই মাস ধরে চলা গুঞ্জন সত্যি করে সাড়ে চার কোটি ইউরোয় পোলিশ তারকাকে দলে টেনেছে বার্সেলোনা। পরে অঙ্কটা দাঁড়াতে পারে পাঁচ কোটি ইউরোয়।শুরুতে যদিও অনেকেরই ধারণা ছিল, বার্সেলোনার পক্ষে এই চুক্তি করা সম্ভব হবে না। কেননা, ক্লাবটি ১০০ কোটি পাউন্ডেরও বেশি ঋণের ভারে জর্জরিত। তারপরও তারা হিসাবটা মিলিয়ে নিয়েছে।শুধু লেভানদোভস্কিই নয়, লিডস ইউনাইটেড থেকে ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার রাফিনিয়াকেও দলে টেনেছে তারা। গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, এজন্য তাদের আপাতত খরচ ৫ কোটি ৮০ লাখ ইউরো। চুক্তি অনুযায়ী আরও কিছু যোগ হলে খরচের অঙ্ক ছুঁতে পারে ৬ কোটি ৮০ লাখ ইউরো।

নাগেলসমানের প্রশ্নটা এখানেই। এত আর্থিক দুর্দশার মধ্যে থাকার পরও কিভাবে বার্সেলোনা দলবদলের বাজারে এত ট্রান্সফার ফি খরচ করে খেলোয়াড় কিনতে পারল।“বিশ্বে এটাই একমাত্র ক্লাব, যাদের কোনো অর্থ নেই। তারপরও যে খেলোয়াড়কে তারা চায়, তাদের সবাইকে কিনে নেয়। আমি জানি না, কিভাবে তারা এ কাজটি করে। এটা একটু অদ্ভূত, একটু পাগলাটে।”

এই গ্রীষ্মের শুরুতে বার্সেলোনার আর্থিক সমস্যা এতটা প্রকট ছিল যে, তারা এসি মিলান থেকে ফঁক কেসিয়ে ও চেলসি থেকে আন্দ্রেয়াস ক্রিস্টেনসেনকে দলে টানলেও তাদের রেজিস্ট্রেশন করতে পারছিল না।গত মে মাসে লা লিগা সভাপতি হাভিয়ের তেবাস বেশ জোর দিয়ে বলেছিলেন, বার্সেলোনা খুব করে লেভানদোভস্কিকে দলে টানতে চাইলে তাদেরকে দলে থাকা এক বা একাধিক খেলোয়াড়কে বিক্রি করে অর্থের যোগান দিতে হবে।ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনেও বিষয়টি এভাবেই দেখানো হয়েছে। যেমন বলা হয়েছে, লা লিগার নিয়ম মেনে চললে এই মুহূর্তে খেলোয়াড় বিক্রি থেকে বার্সেলোনা প্রায় ৪৬ লাখ ইউরো আয় করলে তখন কেবল ১১ লাখ ইউরোর মতো ব্যয় করতে পারবে।এ কারণে আলোচনা হচ্ছিল, এবার যদি বার্সেলোনাকে কোনো খেলোয়াড় কিনতে হয়, তাহলে দলটির প্রয়োজন পড়বে খেলোয়াড় বিক্রির। এজন্য ফ্রেংকি ডি ইয়ং ও উসমান দেম্বেলের ক্লাব ছাড়ার গুঞ্জন ছিল ধারাবাহিকভাবে। পরে অবশ্য দেম্বেলের সঙ্গে নতুন চুক্তি করেছে কাতালান দলটি।ডি ইয়ংকে কিনতে আগ্রহী ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দলটি বেশ কয়েকবার চেষ্টাও করেছে তাকে দলে টানতে। যদিও ডি ইয়ং কাম্প নউয়ে থেকে যেতে আগ্রহী।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য