Saturday, June 15, 2024
বাড়িখেলাবেলজিয়াম-নেদারল্যান্ডস-জার্মানির যৌথ উদ্যোগকে হারিয়ে বিশ্বকাপের আয়োজক ব্রাজিল

বেলজিয়াম-নেদারল্যান্ডস-জার্মানির যৌথ উদ্যোগকে হারিয়ে বিশ্বকাপের আয়োজক ব্রাজিল

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ১৭ মে: ব্যাংককে ফিফা কংগ্রেসে শুক্রবার ভোটাভুটি শেষে জয়ী হিসেবে ঘোষণা করা হয় ব্রাজিলকে। নারী বিশ্বকাপের দশ আসর আয়োজনের লড়াইয়ে ১১৯টি ভোট পায় তারা। যৌথভাবে আয়োজনের উদ্যোগ নেওয়া বেলজিয়াম-নেদারল্যান্ডস-জার্মানি পায় ৭৮ ভোট।এই বিশ্বকাপ আয়োজনের লড়াইয়ে যৌথভাবে ছিল যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোও। তবে কিছুদিন আগে তারা সরে দাঁড়িয়ে ২০৩১ বিশ্বকাপ আয়োজনের লড়াইয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়। এরপর ২০২৭ আসরের লড়াইটা হয়ে পড়ে দ্বিপাক্ষিক।চূড়ান্ত ভোটাভুটির আগেই ব্রাজিলের এগিয়ে থাকার আভাস মিলেছিল। ফিফা টেকনিক্যাল কমিটি গত সপ্তাহে যে মূল্যায়ন প্রকাশ করে, তাতে পাঁচের মধ্যে ব্রাজিলের স্কোর ছিল চার, ইউরোপের তিন দেশের স্কোর ছিল ৩.৭।

টুর্নামেণ্টের বাণিজ্যিক সম্ভাব্যতা, দলগুলির জন্য সুযোগ-সুবিধা ও আবাসন, সম্প্রচারের বিভিন্ন দিক, স্টেডিয়ামগুলোর অবস্থা ও ভেন্যুতে দর্শকদের উৎসবের সুযোগ, সব দিক বিবেচনা করেই ওই স্কোরগুলি দেওয়া হয়।২০১৪ পুরুষ বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য ১০টি স্টেডিয়াম নির্মাণ করায় এবারের লড়াইয়ে অনেকটা এগিয়ে যায় ব্রাজিল। এছাড়াও বাণিজ্যিক সম্ভাবনা ও সরকারের সহায়তা বেশি থাকা ব্রাজিলের পক্ষে কাজ করেছে।বাণিজ্যিক সম্ভাবনায় ইউরোপেও খুব কম নয়, অবকাঠামো তাদের শক্তিশালী। ভেন্যুগুলোর দূরত্ব ব্রাজিলের চেয়ে কম থাকাটা তাদের পক্ষে ছিল। কিন্তু তাদের বিপক্ষে গেছে ভেন্যুগুলোর দর্শক ধারণক্ষমতার স্বল্পতা।

ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের সভাপতি এদনাল্দো রদ্রিগেস উচ্ছ্বসিত কণ্ঠে বলেন, ভোটের লড়াইয়ে জয়ের বিশ্বাস তাদের ছিল।“আমরা জানতাম, দক্ষিণ আমেরিকার নারী ও ফুটবলের বিজয় আমরা উদযাপন করতে পারব। দম্ভ করে বলছি না, নিশ্চিত থাকতে পারে, নারীদের জন্য সবচেয়ে সেরা বিশ্বকাপ আমরা উপহার দেব।”ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনোর কণ্ঠেও ছিল একই আশাবাদ, “সর্বকালের সেরা নারী বিশ্বকাপ হবে এটি।”ফিফা নারী বিশ্বকাপ হয়ে আসছে ১৯৯১ সাল থেকে। সবশেষ গত বছর অস্ট্রেলিয়া-নিউ জিল্যান্ডের যৌথ আয়োজনের আসরে চ্যাম্পিয়ন হয় স্পেন।সর্বোচ্চ চারবার নারী বিশ্বকাপের শিরোপা জিতেছে যুক্তরাষ্ট্র। জার্মানি জিতেছে দুইবার, একবার করে জিতেছে নরওয়ে, জাপান ও স্পেন।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য