Saturday, June 15, 2024
বাড়িখেলা‘বিনা পয়সা’র দামি খেলোয়াড়ের তালিকায় এমবাপ্পে–মেসির সঙ্গে আরও যাঁরা

‘বিনা পয়সা’র দামি খেলোয়াড়ের তালিকায় এমবাপ্পে–মেসির সঙ্গে আরও যাঁরা

স্যন্দন ডিজিটেল ডেস্ক, ১৪ মে: ২০২১ সাল থেকে কিলিয়ান এমবাপ্পেকে পেতে মরিয়া হয়ে মাঠে নামে রিয়াল মাদ্রিদ। এর পর থেকে প্রায় প্রতি মৌসুমে এই ফরাসি তারকাকে পেতে জোর চেষ্টা করে গেছে মাদ্রিদের ক্লাবটি। প্রতিবারই অবশ্য শেষ পর্যন্ত হতাশা নিয়ে ফিরতে হয়েছে রিয়ালকে।এর মধ্যে ২০২২ সালে এমবাপ্পেকে পেতে রিয়ালের ২০ কোটি ইউরোর প্রস্তাব দেওয়ার খবরও জানায় ইউরোপিয়ান সংবাদমাধ্যমগুলো। তবে রিয়ালের সে প্রস্তাবকে ফিরিয়ে দিয়ে এমবাপ্পেকে ধরে রাখে পিএসজি।এবার অবশ্য বদলে গেছে গল্পের চিত্রনাট্য। দলবদল শুরু হওয়ার আগে এমবাপ্পে নিজেই জানিয়ে দিয়েছেন, মৌসুম শেষে চুক্তির মেয়াদ সম্পন্ন করে পিএসজি ছাড়বেন তিনি। এখনো আনুষ্ঠানিক না হলেও বিশ্বকাপজয়ী এ ফরাসি স্ট্রাইকারের পিএসজি ছেড়ে রিয়ালে যাওয়ার খবরকে সিলগালা করে দিয়েছে বেশির ভাগ ইউরোপিয়ান সংবাদমাধ্যম। খবরটি সত্যি হওয়া মানে, ফ্রি ট্রান্সফারে পিএসজি ছাড়া এমবাপ্পের জন্য ফরাসি ক্লাবটিকে কোনো অর্থ দিতে হবে না রিয়ালের। অথচ মাত্র দুই বছর আগে একই খেলোয়াড়ের জন্য ২০ কোটি ইউরো পাওয়ার সুযোগ ছিল পিএসজির।

এদিকে ট্রান্সফারমার্কেটের দেওয়া হিসাবে এমবাপ্পের বর্তমান বাজারদর ১৮ কোটি ইউরো। এত দামি কোনো খেলোয়াড়ের ফ্রি ট্রান্সফারে (বিনা পয়সায়) ক্লাব ছাড়ার ঘটনা এটিই প্রথম। এর আগে এ তালিকায় শীর্ষে ছিলেন লিওনেল মেসি। ২০২১ সালে নাটকীয় এক দলবদলে ফ্রি ট্রান্সফার হিসেবে বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে গিয়েছিলেন মেসি। সেবার মেসি চুক্তি নবায়নের দ্বারপ্রান্তে থাকলেও, শেষ মুহূর্তে বদলে যায় দৃশ্যপট।চোখের জলেই বার্সাকে বিদায় জানিয়ে পিএসজিতে চলে যান এ আর্জেন্টাইন। ফ্রি ট্রান্সফার হিসেবে বার্সা ছাড়ার সময় মেসির বাজারদর ছিল ৮ কোটি ইউরো। এমবাপ্পে–মেসির এ তালিকায় আছে জিয়ানলুইগি দোন্নারুম্মা, আলাবা এবং লেভানডফস্কিও। এর মধ্যে ৫ কোটি ইউরোর লেভাকে ফ্রি ট্রান্সফার হিসেবে কিনে বেশ লাভবান হয়েছিল বায়ার্ন। পরবর্তী সময়ে বাভারিয়ান ক্লাবটির হয়ে দারুণ সব অর্জনে নিজের নাম লেখান এ পোলিশ স্ট্রাইকার।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

সবচেয়ে জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক মন্তব্য